শিক্ষার্থীদের লাইসেন্স পরীক্ষায় আটকে গেল পুলিশের গাড়ি

প্রকাশ : ০১ আগস্ট ২০১৮, ১৫:০১ | অনলাইন সংস্করণ

  যুগান্তর রিপোর্ট

ছবি: যুগান্তর

এবার পুলিশের ভূমিকায় নেমেছেন শিক্ষার্থীরা। লাইসেন্স না থাকায় তারা স্বয়ং পুলিশের গাড়িও আটকে দিয়েছেন।

বুধবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে ধানমণ্ডিতে হারুণ আই হসপিটালের সামনে পুলিশের পাবলিক অর্ডার ম্যানেজমেন্টের একটি গাড়ি শিক্ষার্থীদের লাইসেন্স পরীক্ষায় আটকে যায়।   

পিঠে স্কুলব্যাগ নিয়ে ওই গাড়িটির পথ আগলে ছিল ইউনিফর্ম পরিহিত এক শিক্ষার্থী। সে জানায়, তারা লাইসেন্স দেখতে চেয়েছিল, কিন্তু চালক তা দেখাতে পারেননি। এ গাড়ি তারা যেতে দেবে না।

ওই গাড়ির চালকের আসনে থাকা পুলিশ কনস্টেবল অরবিন্দ সমাদ্দার বলেন, আমরা সরকারি চাকরি করি। লাইসেন্স না দেখে তো আর চাকরি দেয়নি।

তা হলে লাইসেন্স দেখাতে পারেননি কেন জানতে চাইলে তিনি বলেন, সরকারি গাড়ি। আমাদের গাড়িতে করে খাবার নেয়া হয়। কাজের সময় আমরা লাইসেন্স নিয়ে বের হই না। কাগজ অফিসে থাকে।

প্রায় আধা ঘণ্টা ওই জায়গায় আটকে থাকার পর বাড়তি পুলিশ এসে শিক্ষার্থীদের বুঝিয়ে ওই গাড়িটি ছাড়িয়ে নিয়ে যায়। তবে সব লাইসেন্সবিহীন চালকের ভাগ্য এতটা ভালো ছিল না। অনেককেই গাড়ির চাবি ফেরত পাওয়ার জন্য শিক্ষার্থীদের কাছে কাকুতিমিনতি করতে দেখা যায়।  

ছবি: যুগান্তর

বিমানবন্দর সড়কে বাসচাপায় শহীদ রমিজউদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট কলেজের দুই শিক্ষার্থী নিহত হওয়ার প্রতিবাদে গত চার দিন ধরে রাজধানীজুড়ে বিক্ষোভ চলছে। বুধবার সেই বিক্ষোভ সারা দেশে ছড়িয়ে পড়ে।

ফার্মগেট, শাহবাগ, সায়েন্স ল্যাবরেটরি ও মালিবাগসহ বিভিন্ন স্থানে পুলিশের সামনেই যানবাহন থামিয়ে চালকদের কাছে লাইসেন্স দেখতে চাইছেন বিক্ষোভরত শিক্ষার্থীরা। লাইসেন্স দেখাতে না পারলে চালকদের কাছ থেকে চাবি রেখে দেয়া হচ্ছে। ফলে গাড়ি পড়ে থাকছে রাস্তায়।

ছবি: যুগান্তর

আন্দোলনরত এক শিক্ষার্থী বললেন, লাইসেন্স না থাকার পরও এরা গাড়ি চালায়। এদের কারণে আমাদের ভাইয়েরা রাস্তায় মারা যাচ্ছে। লাইসেন্স ছাড়া কোনো গাড়ি রাস্তায় চলবে না।