খালেদা-তারেকের জড়িত থাকার আলামত ধ্বংস করা হয়েছিল: প্রধানমন্ত্রী

  যুগান্তর ডেস্ক    ২১ আগস্ট ২০১৮, ১২:০৩ | অনলাইন সংস্করণ

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা
বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে আয়োজিত সভায় বক্তব্য দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ছবি-সংগৃহীত

২১শে আগস্ট গ্রেনেড হামলায় খালেদা জিয়া ও তারেক রহমান জড়িত থাকায় আলামত ধ্বংস করা হয়েছিল।

মঙ্গলবার সকালে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে ভয়াল সেই দিনের স্মরণে আয়োজিত সভায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই অভিযোগ করেন।

এর আগে তিনি সেখানে গ্রেনেড হামলায় নিহতদের স্মরণে নির্মিত অস্থায়ী বেদীতে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। নিহতের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে দোয়া করেন।

সভায় প্রধানমন্ত্রী বলেন, তৎকালীন বিএনপি-জামায়াত জোটের হামলার হাত থেকে শুধু আওয়ামী লীগ নয়, সেদিন বিদেশিরাও রক্ষা পায়নি। ঘটনা ধামাচাপা দিতে ২১ আগস্ট হামলার আলামত রক্ষা করা হয়নি। প্রকৃত খুনীদের গ্রেফতার না করে সাজানো হয় জজ মিয়া নাটক।

১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধুকে স্বপরিবারে হত্যার পেছনেও জিয়া পরিবারের হাত ছিল বলে অভিযোগ করেন শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, সকল ষড়যন্ত্র ছিন্ন করে জাতির জনকের স্বপ্ন বাস্তবায়নে কাজ করছে আওয়ামী লীগ সরকার।

২০০৪ সালের ২১ আগস্ট ২৩ বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে আওয়ামী লীগের ‘সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ ও দুর্নীতিবিরোধী’ সমাবেশে বর্বরোচিত গ্রেনেড হামলায় আওয়ামী লীগের মহিলাবিষয়ক সম্পাদক ও প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমানের সহধর্মিণী আইভি রহমানসহ ২৪ জন নেতাকর্মী শাহাদাত বরণ করেন।

দিনটি যথাযোগ্য মর্যাদায় পালন উপলক্ষে আওয়ামী লীগ বিস্তারিত কর্মসূচি ঘোষণা করেছে।

গ্রেনেডের স্প্লিন্টারের আঘাতে আহত হন পাঁচ শতাধিক নেতাকর্মী। আহত হন প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকরাও। আহত আওয়ামী লীগ নেতাকর্মী-সমর্থকদের অনেকে এখনও স্প্লিন্টারের আঘাত নিয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছেন।

 

 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter