সব আইনের মধ্যেই কিছু ত্রুটি-বিচ্যুতি থাকে: প্রধান বিচারপতি

  সিলেট ব্যুরো ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২১:৪০ | অনলাইন সংস্করণ

সব আইনের মধ্যেই কিছু ত্রুটি-বিচ্যুতি থাকে: প্রধান বিচারপতি
সিলেটে সংস্কারকৃত শিশুবান্ধব আদালতের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন। ছবি: যুগান্তর

প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন বলেছেন, পৃথিবীতে কোনো আইনকেই স্বয়ংসম্পূর্ণ বলা যাবে না। সব আইনের মধ্যেই কিছু ত্রুটি-বিচ্যুতি থাকে। তেমনি বাংলাদেশে ২০১৩ সালে প্রণীত শিশু আইনেরও কিছু ত্রুটি রয়েছে বলে গবেষণায় চিহ্নিত হয়েছে। ক্রটি-বিচ্যুতি দূর করে শিশু আইন-২০১৩ সংশোধন করা হলে শিশু আদালতের মামলাগুলো দ্রুত নিষ্পত্তি সম্ভব হবে।

বুধবার বিকেলে বিচারের আওতায় আনা শিশুদের জন্য শিশু আইন-২০১৩ অনুযায়ী সিলেটে সংস্কারকৃত শিশুবান্ধব আদালতের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনকালে তিনি এসব কথা বলেন।

প্রধান বিচারপতি বলেন, কোমলমতি শিশুদের বিচারের বিষয়টি অত্যন্ত স্পর্শকাতর। তাই সংশ্লিষ্ট সবার সংবেদনশীলতা একান্ত কাম্য। কোনো শিশুই অপরাধী হয়ে জন্মায় না। পরিবেশ পরিস্থিতি একটি শিশুকে অপরাধী করে তোলে।

তিনি আরও বলেন, কিছু মানুষের আশ্রয়ে এরা বিচরণ করে অপরাধ জগতের বিভিন্ন পর্যায়ে। কোনো শিশু যাতে বিপথগামী না হয়, সে ব্যাপারে সজাগ থাকা আমাদের নৈতিক দায়িত্ব। এ কারণে বিচারকদের সতর্কতার সঙ্গে শিশু অপরাধের বিচারকার্য সম্পাদন করারও তাগিদ দেন প্রধান বিচারপতি।

সুপ্রিমকোর্টের আপিল বিভাগের বিচারপতি মোহাম্মদ ইমান আলীর সভাপতিত্বে আয়োজিত অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন ইউনিসেফ বাংলাদেশের শিশু সুরক্ষা বিভাগের প্রধান জন লেইভি।

উপস্থিত ছিলেন হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতি শেখ হাসান আরিফ, বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার, বিচারপতি খিজির আহমদ চৌধুরী, সুপ্রিমকোর্টের রেজিস্ট্রার জেনারেল ড. মো. জাকির হোসাইন, স্পেশাল অফিসার সাইফুর রহমান, সিলেটের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) অ্যাডভোকেট মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ প্রমুখ।

দেশে শিশু আইন-২০১৩ প্রণয়নের পর থেকে সিলেটেও শিশুবান্ধব বিচারব্যবস্থা নিশ্চিত করতে নেয়া হয় নানা পদক্ষেপ।

এর অংশ হিসেবে অতিরিক্ত মহানগর আদালত এবং অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ প্রথম আদালত শিশু আদালত হিসেবে কাজ করছে। বর্তমানে ইউনিসেফের সহযোগিতায় দুটি আদালতকেই শিশুদের জন্য আকর্ষণীয় করে তোলা হয়েছে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
×