হজ এজেন্সিগুলোর অনিয়মের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিয়েছে মন্ত্রণালয়: ধর্মমন্ত্রী

  যুগান্তর রিপোর্ট ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২১:১৪ | অনলাইন সংস্করণ

সংসদে ধর্মমন্ত্রী
সংসদে ধর্মমন্ত্রী। ফাইল ছবি

ধর্মমন্ত্রী অধ্যক্ষ মতিউর রহমান বলেছেন, সম্প্রতি শেষ হওয়া হাজীদের হজ নিশ্চিত করতে হজ এজেন্সিগুলোর অনিয়মের বিরুদ্ধে কঠোর তদারকির কারণে সুষ্ঠুভাবে হজ কার্যক্রম সম্পন্ন হয়েছে।

একই সঙ্গে বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় সৌদি আরবে গমন করা হাজীরা নির্বিঘ্নে হজ পালন করতে পেরেছেন।

উদাহরণ হিসেবে মন্ত্রী বলেন, তাদের (বেসরকারি হাজী) বিমান ভাড়ার টাকা ব্যাংকে জমা বাধ্যতামূলক করা হয়েছিল। ফলে ২০১৮ সালে নিবন্ধিত সব হজযাত্রীই হতে যেতে সক্ষম হন বলে জানান মন্ত্রী।

বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদে কামাল আহমেদ মজুমদারের এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

অধ্যক্ষ মতিউর রহমান বলেন, ধর্ম মন্ত্রণালয়, প্রধানমন্ত্রীর দফতর, হজ অফিস এবং হাবের কঠোর তদারকির পরও চলতি বছরে হজ কার্যক্রমের সঙ্গে যুক্ত যেসব হজ এজেন্সির বিরুদ্ধে অভিযোগ পাওয়া যাচ্ছে এবং পাওয়া যাবে তদন্তে অভিযোগ প্রমাণিত হলে জাতীয় হজ ও ওমরাহ নীতিমালার ৩২ (২) অনুচ্ছেদে শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে। এসব শাস্তির মধ্যে হজ ও ওমরাহ এজেন্সির লাইসেন্স বাতিল, জামানত বাজেয়াপ্ত, অর্থদণ্ড ও জরিমানা এবং তিরস্কার ও সতর্ক করা।

মতিউর রহমান বলেন, একই সঙ্গে পরপর তিন বছর কোনো এজেন্সির বিরুদ্ধে তিরস্কার ও সতর্ক করে নোটিশ দেয়া হলে সংশ্লিষ্ট হজ ও ওমরাহ এজেন্সির বিরুদ্ধে পরবর্তী পদক্ষেপ হিসেবে কোনো ধরনের কারণ দর্শানোর নোর্টিশ ছাড়াই লাইসেন্স বাতিল করা হবে।

মন্ত্রী আরও বলেন, আগামীতে হজ ব্যবস্থাপনা সুন্দর ও সুষ্ঠু করার লক্ষ্যে জাতীয় হজ ও ওমরাহ নীতি ও হজ প্যাকেজকে আরও যুগোপযোগী করা হবে। এছাড়া হাজীদের হজ নিশ্চিতকরণে প্রয়োজনীয় সব ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

সেলিনা বেগমের এক প্রশ্নের জবাবে ধর্মমন্ত্রী বলেন, জাতীয় হজ ও ওমরাহ নীতি অনুযায়ী ২০১৪ সাল থেকে সরকারি খরচে ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের হজে পাঠানো শুরু হয়। গত পাঁচ বছরে এ ব্যবস্থাপনায় ১ হাজার ৩৩৮ জন নাগরিক হজ পালন করেছেন।

এর মধ্যে ২০১৪ সালে ১২৪ জন, ২০১৫ সালে ২৬৬ জন, ২০১৬ সালে ২৮৮ জন, ২০১৭ সালে ৩২০ জন এবং ২০১৮ অর্থাৎ চলতি বছরে ৩৪০ জনসহ মোট ১৩৩৮ জন হজব্রত পালন করেছেন। দেশের ৬৪ জেলার মধ্যে সবচেয়ে বেশি হজ পালন করেছেন ময়মনসিংহ জেলার ২৪৬ জন এবং দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ঢাকা জেলায় ১৬১ জন রয়েছে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
×