বুড়িগঙ্গায় লঞ্চডুবি: উদ্ধার অভিযানের সমাপ্তি ঘোষণা

  যুগান্তর রিপোর্ট ৩০ জুন ২০২০, ১৭:১২:৪৮ | অনলাইন সংস্করণ

ফাইল ছবি

বুড়িগঙ্গা নদীর শ্যামবাজার উল্টিগঞ্জ পয়েন্টে লঞ্চডুবির ঘটনায় দুইদিনে ৩৩ জনের লাশ উদ্ধারের পর তল্লাশি অভিযানের সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়েছে।

মঙ্গলবার দুপুর ২টা ৪০ মিনিটে এমভি মর্নিং বার্ড উদ্ধার অভিযান সমাপ্ত ঘোষণা করেন বিআইডব্লিউটিএ’র চেয়ারম্যান কমোডর গোলাম সাদেক। এ সময় ফায়ার সার্ভিস, কোস্টগার্ড, র‌্যাব ও নৌপুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

যুগান্তরকে এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্স অধিদফতরের মিডিয়া সেলের কর্মকর্তা মো. রায়হান। তিনি বলেন, আনুষ্ঠানিক অভিযান সমাপ্ত ঘোষণা হলেও নিখোঁজ ব্যক্তিদের উদ্ধারে একটি ডুবুরি টিম সার্বক্ষণিক অবস্থান করে উদ্ধার প্রক্রিয়া অব্যাহত রাখবে।

এ দিকে হাসিব নামে এক যুবক সদরঘাটের লালকুটি টার্মিনালে বিলাপ করে তার বাবাকে খুঁজতে দেখা গেছে। তিনি যুগান্তরকে বলেন, গতকাল (সোমবার) একসঙ্গে আমার বাবা-মা ও ভাই লঞ্চে রওনা হয়েছিল। বিকালে মা হাসিনা রহমান ও ভাই সিফাতের লাশ পাওয়া গেলেও বাবা আবদুর রহমান বেপারীর হদিস এখনও পাওয়া যায়নি। তিনি উদ্ধার অভিযান চালু রাখার দাবি জানান।

বিআইডব্লিউটিএ’র চেয়ারম্যান কমোডর গোলাম সাদেক যুগান্তরকে বলেন, ডুবে যাওয়া লঞ্চটি নদীর পাড়ে টেনে নিয়ে রাখা হয়েছে। সেখান থেকে পরবর্তীকালে ডকইয়ার্ডে টেনে তোলা হবে। এ ছাড়া নিখোঁজ ব্যক্তির আত্মীয়-স্বজনরা আমাদের সঙ্গে যোগাযোগ করলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও জানান তিনি।

প্রসঙ্গত, সোমবার সকাল সাড়ে ৯টায় বুড়িগঙ্গার শ্যামবাজার উল্টিগঞ্জ পয়েন্টে ঢাকা-চাঁদপুর রুটের ময়ূর-২ লঞ্চের ধাক্কায় ঢাকা-মুন্সিগঞ্জ রুটের মর্নিং বার্ড লঞ্চডুবির ঘটনা ঘটে। এতে মঙ্গলবার দুপুর পর্যন্ত ৮ জন নারী, ৩ জন শিশুসহ ৩৩ জন যাত্রীর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।

ঘটনাপ্রবাহ : বুড়িগঙ্গায় লঞ্চডুবি ২০২০

আরও
আরও খবর

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত