‘১০ মিনিটের জন্য বিদ্যুৎ গেলেই এমপি সাইফুজ্জামান শিখর আমাকে ফোন দেন’
jugantor
‘১০ মিনিটের জন্য বিদ্যুৎ গেলেই এমপি সাইফুজ্জামান শিখর আমাকে ফোন দেন’

  মাগুরা প্রতিনিধি ও যুগান্তর রিপোর্ট  

০৩ সেপ্টেম্বর ২০২০, ২১:৫২:১৬  |  অনলাইন সংস্করণ

‘১০ মিনিটের জন্য বিদ্যুৎ গেলেই এমপি সাইফুজ্জামান শিখর আমাকে ফোন দেন’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছে দেয়ার যে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন তা ব্যাপকভাবে বাস্তবায়িত হচ্ছে বলে জানিয়েছেন বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ।

তিনি বলেন, বর্তমানে দেশে ২৩ হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন হচ্ছে। নির্বিঘ্নে বিদ্যুৎ সঞ্চালনের জন্য আন্ডারগ্রাউন্ড বিদ্যুৎ সঞ্চালন লাইন স্থাপন করা হচ্ছে। আগামী ২ থেকে ৩ বছরের মধ্যে এটির কাজ শেষ হবে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে মাগুরায় বিদ্যুৎ সরবরাহের আওতাধীন এলাকায় স্মার্ট প্রি-পেমেন্ট বিদ্যুৎ মিটার স্থাপন কার্যক্রমের উদ্বোধনকালে তিনি এসব কথা বলেন। মাগুরায় ১৫ হাজার বিদ্যুৎ গ্রাহক পাচ্ছেন স্মার্ট প্রি-পেইড পেমেন্ট বিদ্যুৎ মিটার। মাগুরা জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে ভার্চুয়াল সভার মাধ্যমে তিনি এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন।

মাগুরা জেলা প্রশাসক ড. আশরাফুল আলমের সভাপতিত্বে ভার্চুয়াল সভায় অংশ নেন মাগুরা-১ আসনের সংসদ সদস্য সাইফুজ্জামান শিখর, বিদ্যুৎ জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব রহমত উল্লাহ মো. দস্তগীর, ওয়েস্টজোন পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি ওজোপাডিকো’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রকৌশলী মো. শফিক উদ্দিন, ওজোপাডিকো’র স্মার্ট প্রি-পেমেন্ট মিটারিং প্রকল্পের পরিচালক প্রকৌশলী শহিদুল ইসলাম, ওজোপাডিকো’র উপ-পরিচালক নাজমুল হুদা, মাগুরা মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ রতন কুমার সাহা, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান পঙ্কজ কুন্ডু, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আবু নাসির বাবলু, পৌর মেয়র খুরশীদ হায়দার টুটুল, মাগুরা বিদ্যুৎ সরবরাহ ওজোপাডিকোর নির্বাহী প্রকৌশলী মঞ্জুরুল ইসলাম প্রমুখ।

উদ্বোধনী দিনে মাগুরার জেলা ও দায়রা জজ কামরুল হাসান এবং জেলা প্রশাসক ড. আশরাফুল আলমের বাসভবনে একটি করে স্মার্ট প্রি-পেইড পেমেন্ট বিদ্যুৎ মিটার স্থাপন করা হয়।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছে দেয়ার যে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন তা ব্যাপকভাবে বাস্তবায়িত হচ্ছে। বর্তমানে দেশে ২৩ হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন হচ্ছে। নির্বিঘ্নে বিদ্যুৎ সঞ্চালনের জন্য আন্ডারগ্রাউন্ড বিদ্যুৎ সঞ্চালন লাইন স্থাপন করা হচ্ছে। আগামী ২ থেকে ৩ বছরের মধ্যে এটির কাজ শেষ হবে।

প্রতিমন্ত্রী এ সময় কথা প্রসঙ্গে বলেন, মাগুরায় ১০ মিনিটের জন্য বিদ্যুৎ গেলেই মাগুরা-১ আসনের এমপি সাইফুজ্জামান শিখর আমাকে ফোন দেন। এটি একজন এমপির দায়িত্বশীলতার অনন্য দিক। তিনি নিজ জেলার প্রতি এমপি শিখরের সার্বক্ষণিক নজরদারির প্রশংসা করেন। এ সময় সাইফুজ্জামান শিখর তার বক্তব্যে দেশের বিদ্যুৎ উন্নয়নে প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদের দক্ষতা ও দায়িত্বশীলতার প্রশংসা করেন।

সভায় জানানো হয়, প্রাথমিকভাবে মাগুরা জেলায় ১৫ হাজার ৭৭টি স্মার্ট প্রি-পেমেন্ট বিদ্যুৎ মিটার স্থাপন করা হবে। পাশাপাশি খুব দ্রুত সময়ের মধ্যেই বাকি ১৭ হাজার গ্রাহক এ সুবিধা পাবেন।

‘১০ মিনিটের জন্য বিদ্যুৎ গেলেই এমপি সাইফুজ্জামান শিখর আমাকে ফোন দেন’

 মাগুরা প্রতিনিধি ও যুগান্তর রিপোর্ট 
০৩ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৯:৫২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
‘১০ মিনিটের জন্য বিদ্যুৎ গেলেই এমপি সাইফুজ্জামান শিখর আমাকে ফোন দেন’
বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ। ছবি: সংগৃহীত

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছে দেয়ার যে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন তা ব্যাপকভাবে বাস্তবায়িত হচ্ছে বলে জানিয়েছেন বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ।

তিনি বলেন, বর্তমানে দেশে ২৩ হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন হচ্ছে। নির্বিঘ্নে বিদ্যুৎ সঞ্চালনের জন্য আন্ডারগ্রাউন্ড বিদ্যুৎ সঞ্চালন লাইন স্থাপন করা হচ্ছে।  আগামী ২ থেকে ৩ বছরের মধ্যে এটির কাজ শেষ হবে। 

বৃহস্পতিবার দুপুরে মাগুরায় বিদ্যুৎ সরবরাহের আওতাধীন এলাকায় স্মার্ট প্রি-পেমেন্ট বিদ্যুৎ মিটার স্থাপন কার্যক্রমের উদ্বোধনকালে তিনি এসব কথা বলেন। মাগুরায় ১৫ হাজার বিদ্যুৎ গ্রাহক পাচ্ছেন স্মার্ট প্রি-পেইড পেমেন্ট বিদ্যুৎ মিটার। মাগুরা জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে ভার্চুয়াল সভার মাধ্যমে তিনি এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন।

মাগুরা জেলা প্রশাসক ড. আশরাফুল আলমের সভাপতিত্বে ভার্চুয়াল সভায় অংশ নেন মাগুরা-১ আসনের সংসদ সদস্য সাইফুজ্জামান শিখর, বিদ্যুৎ জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব রহমত উল্লাহ মো. দস্তগীর, ওয়েস্টজোন পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি ওজোপাডিকো’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রকৌশলী মো. শফিক উদ্দিন, ওজোপাডিকো’র স্মার্ট প্রি-পেমেন্ট মিটারিং প্রকল্পের পরিচালক প্রকৌশলী শহিদুল ইসলাম, ওজোপাডিকো’র  উপ-পরিচালক নাজমুল হুদা, মাগুরা মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ রতন কুমার সাহা, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান পঙ্কজ কুন্ডু, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আবু নাসির বাবলু, পৌর মেয়র খুরশীদ হায়দার টুটুল, মাগুরা বিদ্যুৎ সরবরাহ ওজোপাডিকোর নির্বাহী প্রকৌশলী মঞ্জুরুল ইসলাম প্রমুখ। 

উদ্বোধনী দিনে মাগুরার জেলা ও দায়রা জজ কামরুল হাসান এবং জেলা প্রশাসক ড. আশরাফুল আলমের বাসভবনে একটি করে স্মার্ট প্রি-পেইড পেমেন্ট বিদ্যুৎ মিটার স্থাপন করা হয়।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছে দেয়ার যে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন তা ব্যাপকভাবে বাস্তবায়িত হচ্ছে।  বর্তমানে দেশে ২৩ হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন হচ্ছে। নির্বিঘ্নে বিদ্যুৎ সঞ্চালনের জন্য আন্ডারগ্রাউন্ড বিদ্যুৎ সঞ্চালন লাইন স্থাপন করা হচ্ছে।  আগামী ২ থেকে ৩ বছরের মধ্যে এটির কাজ শেষ হবে। 

প্রতিমন্ত্রী এ সময় কথা প্রসঙ্গে বলেন, মাগুরায় ১০ মিনিটের জন্য বিদ্যুৎ গেলেই মাগুরা-১ আসনের এমপি সাইফুজ্জামান শিখর আমাকে ফোন দেন।  এটি একজন এমপির দায়িত্বশীলতার অনন্য দিক। তিনি নিজ জেলার প্রতি এমপি শিখরের সার্বক্ষণিক নজরদারির প্রশংসা করেন। এ সময় সাইফুজ্জামান শিখর তার বক্তব্যে দেশের বিদ্যুৎ উন্নয়নে প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদের দক্ষতা ও দায়িত্বশীলতার প্রশংসা করেন।

সভায় জানানো হয়, প্রাথমিকভাবে মাগুরা জেলায় ১৫ হাজার ৭৭টি স্মার্ট প্রি-পেমেন্ট বিদ্যুৎ মিটার স্থাপন করা হবে। পাশাপাশি খুব দ্রুত সময়ের মধ্যেই বাকি ১৭ হাজার গ্রাহক এ সুবিধা পাবেন।