আমরা সারা দুনিয়ার রোহিঙ্গাদের পুনর্বাসনের কন্ট্রাক্ট নেইনি: পররাষ্ট্রমন্ত্রী
jugantor
আমরা সারা দুনিয়ার রোহিঙ্গাদের পুনর্বাসনের কন্ট্রাক্ট নেইনি: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

১৩ মার্চ ২০২১, ২২:৫০:৪৪  |  অনলাইন সংস্করণ

আমরা সারা দুনিয়ার রোহিঙ্গাদের পুনর্বাসনের কন্ট্রাক্ট নেইনি: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

আন্দামান সাগরে ভাসা রোহিঙ্গাদের বিষয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আবদুল মোমেন বলেছেন, আন্দামান সাগরে ভাসমান রোহিঙ্গাদের ফেরত নিতে বাংলাদেশ রাজি নয়। সারা দুনিয়ায় অসুবিধায় পড়া রোহিঙ্গাদের পুনর্বাসনে কন্ট্রাক্ট নেইনি।

শনিবার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে সাংবাদিকদের এ বিষয়ে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা বলেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী আন্দামান সাগরে ভাসা রোহিঙ্গারা বাংলাদেশের জলসীমা থেকে অনেক দূরে ছিল। তাদের নৌকা মিয়ানমার, মালয়েশিয়া, থাইল্যান্ড, ভারত থেকে অনেক কাছে। তাহলে এই দায় আমরা কেন নেব। আমরা সারা দুনিয়ায় অসুবিধায় পড়া রোহিঙ্গাদের পুনর্বাসনের কন্ট্রাক্ট নেইনি।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি আরও বলেন, যখনই সাগরে ভাসা রোহিঙ্গাদের পাওয়া যায় তখনই তাদের কাছে ইউএনএইচসিআর’র কার্ড পাওয়া যায়। তাদের কার্ড নিয়ে কেন রোহিঙ্গারা চলে যায়, সেটা আপনারা ইউএনএইচসিরআরকে জিজ্ঞাসা করেন।

রোহিঙ্গাদের বিষয়টি ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর তুলেছিলেন জানিয়ে ড. মোমেন বলেন, উনি আসার আগে থেকে আমি বলাবলি করছি যে এটা আমাদের গ্রহণ করার কোনো যুক্তিযুক্ত কারণ নেই। কারণ তাদেরকে ১৭০০ কিলোমিটার দূরে পাওয়া গেছে এবংভারত থেকে ১৪৭ কিলোমিটার ও মিয়ানমার থেকে ৩২৪ কিলোমিটার দূরে অবস্থান।এরা যে জাহাজে ছিল সেটি আমাদের দেশের না, সেটি থাইল্যান্ডের জাহাজ।

আমরা সারা দুনিয়ার রোহিঙ্গাদের পুনর্বাসনের কন্ট্রাক্ট নেইনি: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
১৩ মার্চ ২০২১, ১০:৫০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
আমরা সারা দুনিয়ার রোহিঙ্গাদের পুনর্বাসনের কন্ট্রাক্ট নেইনি: পররাষ্ট্রমন্ত্রী
ফাইল ছবি

আন্দামান সাগরে ভাসা রোহিঙ্গাদের বিষয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আবদুল মোমেন বলেছেন, আন্দামান সাগরে ভাসমান রোহিঙ্গাদের ফেরত নিতে বাংলাদেশ রাজি নয়। সারা দুনিয়ায় অসুবিধায় পড়া রোহিঙ্গাদের পুনর্বাসনে কন্ট্রাক্ট নেইনি।

শনিবার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে সাংবাদিকদের এ বিষয়ে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা বলেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী আন্দামান সাগরে ভাসা রোহিঙ্গারা বাংলাদেশের জলসীমা থেকে অনেক দূরে ছিল। তাদের নৌকা মিয়ানমার, মালয়েশিয়া, থাইল্যান্ড, ভারত থেকে অনেক কাছে। তাহলে এই দায় আমরা কেন নেব। আমরা সারা দুনিয়ায় অসুবিধায় পড়া রোহিঙ্গাদের পুনর্বাসনের কন্ট্রাক্ট নেইনি।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি আরও বলেন, যখনই সাগরে ভাসা রোহিঙ্গাদের পাওয়া যায় তখনই তাদের কাছে ইউএনএইচসিআর’র কার্ড পাওয়া যায়। তাদের কার্ড নিয়ে কেন রোহিঙ্গারা চলে যায়, সেটা আপনারা ইউএনএইচসিরআরকে জিজ্ঞাসা করেন।

রোহিঙ্গাদের বিষয়টি ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর তুলেছিলেন জানিয়ে ড. মোমেন বলেন, উনি আসার আগে থেকে আমি বলাবলি করছি যে এটা আমাদের গ্রহণ করার কোনো যুক্তিযুক্ত কারণ নেই। কারণ তাদেরকে ১৭০০ কিলোমিটার দূরে পাওয়া গেছে এবং ভারত থেকে ১৪৭ কিলোমিটার ও মিয়ানমার থেকে ৩২৪ কিলোমিটার দূরে অবস্থান।এরা যে জাহাজে ছিল সেটি আমাদের দেশের না, সেটি থাইল্যান্ডের জাহাজ।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : রোহিঙ্গা বর্বরতা