লকডাউন শিথিলের সময় ‘পরিবর্তন’, প্রজ্ঞাপন কাল
jugantor
লকডাউন শিথিলের সময় ‘পরিবর্তন’, প্রজ্ঞাপন কাল

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

১২ জুলাই ২০২১, ১৯:৫৬:১০  |  অনলাইন সংস্করণ

চলমান কঠোর লকডাউন শিথিলের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। করোনা মহামারি বিস্তার রোধে সরকার আরোপিত কঠোর লকডাউন বা বিধিনিষেধ১৫ জুলাই থেকে ২২ জুলাই পর্যন্ত শিথিল করা হবে।যদিও আগে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে জানানো হয়েছিল, ১৫ জুলাই থেকে ২৩ জুলাই পর্যন্ত শিথিল করা হবে।

সোমবার প্রধান তথ্য অফিসার সুরথ কুমার সরকার জানান, চলমান বিধিনিষেধ আগামী ১৫ জুলাই থেকে ২২ জুলাই পর্যন্ত শিথিল করা হবে। তবে আগামী ২৩ জুলাই থেকে আবার কঠোর বিধিনিষেধ জারি করা হবে বলেও জানান তিনি।

এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে সুরথ কুমার সরকার বলেন, এ বিষয়ে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে আগামীকাল (১৩ জুলাই) প্রজ্ঞাপন জারি করা হবে।

এর আগে সোমবার বিকালে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে জানানো হয়, চলমান কঠোর লকডাউন শিথিলের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। কুরবানি ঈদের মানুষের চলাচল ও পশুরহাটে কেনাবেচার বিবেচনায় আগামী ১৫ জুলাই থেকে ২৩ জুলাই পর্যন্ত লকডাউন শিথিলের এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এই সময়ে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলবে গণপরিবহণ। খোলা থাকবে শপিংমল ও দোকানপাট। তবে বেসরকারি অফিস বন্ধ থাকবে। আর সরকারি অফিসের কার্যক্রম ভার্চুয়ালি চলবে।

এদিকে সব ধরনের স্বাস্থ্যবিধি মেনে আগামী বৃহস্পতিবার থেকে রেল যোগাযোগ চালু করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার।

সোমবার রেল মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, স্বাস্থ্যবিধি মেনে অর্ধেক আসন ফাঁকা রেখে ১৫ জুলাই থেকে ট্রেন চলাচল করবে। তবে টিকিট কিনতে হবে অনলাইনে। কাউন্টারে কোনো টিকিট বিক্রি হবে না। লকডাউন শিথিল করা নিয়ে সরকারের প্রজ্ঞাপন জারির পর পরবর্তী সিদ্ধান্ত জানানো হবে।

করোনার প্রকোপ বেড়ে যাওয়ায় গত ১ জুলাই থেকে এক সপ্তাহের কঠোর লকডাউন আরোপ করে সরকার। পরে সময়সীমা বাড়িয়ে ১৪ জুলাই পর্যন্ত করা হয়।

লকডাউন শিথিলের সময় ‘পরিবর্তন’, প্রজ্ঞাপন কাল

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
১২ জুলাই ২০২১, ০৭:৫৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

চলমান কঠোর লকডাউন শিথিলের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। করোনা মহামারি বিস্তার রোধে সরকার আরোপিত কঠোর লকডাউন বা বিধিনিষেধ ১৫ জুলাই থেকে ২২ জুলাই পর্যন্ত শিথিল করা হবে।যদিও আগে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে জানানো হয়েছিল, ১৫ জুলাই থেকে ২৩ জুলাই পর্যন্ত শিথিল করা হবে।

সোমবার প্রধান তথ্য অফিসার সুরথ কুমার সরকার জানান, চলমান বিধিনিষেধ আগামী ১৫ জুলাই থেকে ২২ জুলাই পর্যন্ত শিথিল করা হবে। তবে আগামী ২৩ জুলাই থেকে আবার কঠোর বিধিনিষেধ জারি করা হবে বলেও জানান তিনি।

এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে সুরথ কুমার সরকার বলেন, এ বিষয়ে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে আগামীকাল (১৩ জুলাই) প্রজ্ঞাপন জারি করা হবে।

এর আগে সোমবার বিকালে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে জানানো হয়, চলমান কঠোর লকডাউন শিথিলের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। কুরবানি ঈদের মানুষের চলাচল ও পশুরহাটে কেনাবেচার বিবেচনায় আগামী ১৫ জুলাই থেকে ২৩ জুলাই পর্যন্ত লকডাউন শিথিলের এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এই সময়ে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলবে গণপরিবহণ। খোলা থাকবে শপিংমল ও দোকানপাট। তবে বেসরকারি অফিস বন্ধ থাকবে। আর সরকারি অফিসের কার্যক্রম ভার্চুয়ালি চলবে।

এদিকে সব ধরনের স্বাস্থ্যবিধি মেনে আগামী বৃহস্পতিবার থেকে রেল যোগাযোগ চালু করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। 

সোমবার রেল মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, স্বাস্থ্যবিধি মেনে অর্ধেক আসন ফাঁকা রেখে ১৫ জুলাই থেকে ট্রেন চলাচল করবে। তবে টিকিট কিনতে হবে অনলাইনে। কাউন্টারে কোনো টিকিট বিক্রি হবে না। লকডাউন শিথিল করা নিয়ে সরকারের প্রজ্ঞাপন জারির পর পরবর্তী সিদ্ধান্ত জানানো হবে।

করোনার প্রকোপ বেড়ে যাওয়ায় গত ১ জুলাই থেকে এক সপ্তাহের কঠোর লকডাউন আরোপ করে সরকার। পরে সময়সীমা বাড়িয়ে ১৪ জুলাই পর্যন্ত করা হয়। 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস