মাঝ সেতুতে দাঁড়িয়ে পদ্মার আকাশে ৩১ বিমানের ফ্লাইং ডিসপ্লে দেখলেন প্রধানমন্ত্রী
jugantor
মাঝ সেতুতে দাঁড়িয়ে পদ্মার আকাশে ৩১ বিমানের ফ্লাইং ডিসপ্লে দেখলেন প্রধানমন্ত্রী

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

২৫ জুন ২০২২, ১৬:৪৭:১৩  |  অনলাইন সংস্করণ

মাঝ সেতুতে দাঁড়িয়ে পদ্মার আকাশে ৩১ বিমানের ফ্লাইং ডিসপ্লে দেখলেন প্রধানমন্ত্রী

প্রমত্তা নদীর বুকে দেশের সবচেয়ে বড় অবকাঠামো বহুল প্রতীক্ষিত স্বপ্নের পদ্মা সেতু আজ উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। দুপুরে মাওয়া প্রান্তে টোল পরিশোধ শেষে উদ্বোধনী ফলক ও ম্যুরাল-১ উন্মোচনের মাধ্যমে সেতুর উদ্বোধন করেন সরকারপ্রধান।

উদ্বোধন শেষে প্রধানমন্ত্রী সেতুর ওপর দিয়ে শরীয়তপুরের জাজিরা প্রান্তের উদ্দেশে রওনা হন। প্রধানমন্ত্রী সেতুর মাঝামাঝি গিয়ে গাড়ি থেকে নেমে দাঁড়ান। এ সময় বিমান বাহিনীর ৩১টি বিমান ও হেলিকপ্টারের সমন্বয়ে এক মনোজ্ঞ ‘ফ্লাইং ডিসপ্লে’ উপভোগ করেন তিনি। এ সময় প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ছিলেন তার কন্যা সায়মা ওয়াজেদ পুতুল।

এ সময় দুটি মিগ-২৯, দুটি এফটি-৭বিজি/এফ-৭ এমবি ও দুটি এফ-৭ বিজিআইর সমন্বয়ে স্মোক পাস, তিনটি এফ-৭ বিজিআই/বিজির ফ্লাই পাস্ট প্রদর্শন, একটি সি-১৩০জে ও পাঁচটি কে-৮ ডব্লিউর সমন্বয়ে স্মোক পাস প্রদর্শন, তিনটি এল-৪১০ ও পাঁচটি গ্রোব-১২০টিপির সমন্বয়ে ফ্লাই পাস্ট প্রদর্শন, পাঁচটি এমআই-১৭/১৭১ এর মাধ্যমে পতাকা প্রদর্শন ও একটি বেল-২১২ এর মাধ্যমে লিফলেট বিতরণ, দুটি কে-৮ডব্লিউর মাধ্যমে শেকুল মেন্যুভার প্রদর্শন, পাঁচটি কে-৮ডব্লিউ’র মাধ্যমে ভিক্সেন ব্রেক প্রদর্শন এবং একটি মিগ-২৯ এর মাধ্যমে লো লেভেল অ্যারোবেটিক্স প্রদর্শন করা হয়।

এদিকে পাঁচটি হেলিকপ্টারের একটি বহরের শুরুতেই ছিল লাল সবুজের পতাকা, যা বাঙালির আত্মমর্যাদা ও সক্ষমতার জানান দেয়।

দ্বিতীয়টিতে ছিল জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছবি সংবলিত পতাকা। আকাশে পাখা মেলে জানান দিয়ে গেল অদম্য বাঙালিকে দাবিয়ে রাখা যাবে না।

তৃতীয় হেলিকপ্টারে ছিল বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি সংবলিত পতাকা। বিমানবাহিনীর এই প্রদর্শনীতে জানান দেয় সব ষড়যন্ত্রের জাল ছিন্ন করে যার দৃঢ়তায় স্বপ্নের এই পদ্মা সেতু।

চতুর্থ এবং পঞ্চম হেলিকপ্টারে ছিল স্বপ্নজয় ও জাতীয় স্লোগান জয়বাংলা সংবলিত পতাকা। যেন আরেকবার অদম্য বাঙালিদের ডাক দিয়ে গেল সম্মিলিত বিজয় উল্লাসে শামিল হওয়ার।

একপর্যায়ে নীল আকাশে লাল সবুজের পতাকার অবয়ব ফুটিয়ে তোলা হয়। এরপরই গর্জন তুলে পদ্মার আকাশে হাজির হয় যুদ্ধবিমান। জানান দেয় সব ষড়যন্ত্রের জাল ছিন্ন করে এগিয়ে যাওয়ার।

পদ্মার দুই পাড়ে লাখো মানুষ মনোমুগ্ধভাবে উপভোগ করেন বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর এসব মনোজ্ঞপ্রদর্শনী।

মাঝ সেতুতে দাঁড়িয়ে পদ্মার আকাশে ৩১ বিমানের ফ্লাইং ডিসপ্লে দেখলেন প্রধানমন্ত্রী

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
২৫ জুন ২০২২, ০৪:৪৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
মাঝ সেতুতে দাঁড়িয়ে পদ্মার আকাশে ৩১ বিমানের ফ্লাইং ডিসপ্লে দেখলেন প্রধানমন্ত্রী
ছবি: পিআইডি।

প্রমত্তা নদীর বুকে দেশের সবচেয়ে বড় অবকাঠামো বহুল প্রতীক্ষিত স্বপ্নের পদ্মা সেতু আজ উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। দুপুরে মাওয়া প্রান্তে টোল পরিশোধ শেষে উদ্বোধনী ফলক ও ম্যুরাল-১ উন্মোচনের মাধ্যমে সেতুর উদ্বোধন করেন সরকারপ্রধান।

উদ্বোধন শেষে প্রধানমন্ত্রী সেতুর ওপর দিয়ে শরীয়তপুরের জাজিরা প্রান্তের উদ্দেশে রওনা হন। প্রধানমন্ত্রী সেতুর মাঝামাঝি গিয়ে গাড়ি থেকে নেমে দাঁড়ান। এ সময় বিমান বাহিনীর ৩১টি বিমান ও হেলিকপ্টারের সমন্বয়ে এক মনোজ্ঞ ‘ফ্লাইং ডিসপ্লে’ উপভোগ করেন তিনি। এ সময় প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ছিলেন তার কন্যা সায়মা ওয়াজেদ পুতুল।

এ সময় দুটি মিগ-২৯, দুটি এফটি-৭বিজি/এফ-৭ এমবি ও দুটি এফ-৭ বিজিআইর সমন্বয়ে স্মোক পাস, তিনটি এফ-৭ বিজিআই/বিজির ফ্লাই পাস্ট প্রদর্শন, একটি সি-১৩০জে ও পাঁচটি কে-৮ ডব্লিউর সমন্বয়ে স্মোক পাস প্রদর্শন, তিনটি এল-৪১০ ও পাঁচটি গ্রোব-১২০টিপির সমন্বয়ে ফ্লাই পাস্ট প্রদর্শন, পাঁচটি এমআই-১৭/১৭১ এর মাধ্যমে পতাকা প্রদর্শন ও একটি বেল-২১২ এর মাধ্যমে লিফলেট বিতরণ, দুটি কে-৮ডব্লিউর মাধ্যমে শেকুল মেন্যুভার প্রদর্শন, পাঁচটি কে-৮ডব্লিউ’র মাধ্যমে ভিক্সেন ব্রেক প্রদর্শন এবং একটি মিগ-২৯ এর মাধ্যমে লো লেভেল অ্যারোবেটিক্স প্রদর্শন করা হয়।

এদিকে পাঁচটি হেলিকপ্টারের একটি বহরের শুরুতেই ছিল লাল সবুজের পতাকা, যা বাঙালির আত্মমর্যাদা ও সক্ষমতার জানান দেয়।

দ্বিতীয়টিতে ছিল জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছবি সংবলিত পতাকা। আকাশে পাখা মেলে জানান দিয়ে গেল অদম্য বাঙালিকে দাবিয়ে রাখা যাবে না।

তৃতীয় হেলিকপ্টারে ছিল বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি সংবলিত পতাকা। বিমানবাহিনীর এই প্রদর্শনীতে জানান দেয় সব ষড়যন্ত্রের জাল ছিন্ন করে যার দৃঢ়তায় স্বপ্নের এই পদ্মা সেতু।

চতুর্থ এবং পঞ্চম হেলিকপ্টারে ছিল স্বপ্নজয় ও জাতীয় স্লোগান জয়বাংলা সংবলিত পতাকা। যেন আরেকবার অদম্য বাঙালিদের ডাক দিয়ে গেল সম্মিলিত বিজয় উল্লাসে শামিল হওয়ার।

একপর্যায়ে নীল আকাশে লাল সবুজের পতাকার অবয়ব ফুটিয়ে তোলা হয়। এরপরই গর্জন তুলে পদ্মার আকাশে হাজির হয় যুদ্ধবিমান। জানান দেয় সব ষড়যন্ত্রের জাল ছিন্ন করে এগিয়ে যাওয়ার।

পদ্মার দুই পাড়ে লাখো মানুষ মনোমুগ্ধভাবে উপভোগ করেন বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর এসব মনোজ্ঞ প্রদর্শনী।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : পদ্মা সেতু নির্মাণ