প্রধানমন্ত্রীর নথি জালিয়াতি: সেই ছাত্রলীগ নেতা ফের রিমান্ডে
jugantor
প্রধানমন্ত্রীর নথি জালিয়াতি: সেই ছাত্রলীগ নেতা ফের রিমান্ডে

  যুগান্তর রিপোর্ট  

১৩ মে ২০২০, ১৯:৩৬:৪৪  |  অনলাইন সংস্করণ

প্রধানমন্ত্রীর নথি জালিয়াতি: সেই ছাত্রলীগ নেতা ফের রিমান্ডে

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের নথি জালিয়াতির মামলায় ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের বহিষ্কৃত সহ-সভাপতি তরিকুল ইসলাম মুমিনের ফের দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

বুধবার শুনানি শেষে ঢাকা মহানগর হাকিম নিভানা খায়ের জেসী আসামির রিমান্ডের এ আদেশ দেন।

চার দিনের রিমান্ড শেষে এদিন আসামিকে আদালতে হাজির করে ফের পাঁচ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা। অপরদিকে আসামিপক্ষে রিমান্ড বাতিল চেয়ে জামিন আবেদন করা হয়। উভয়পক্ষের শুনানি শেষে আদালত আসামির জামিন নাকচ করে রিমান্ডের ওই আদেশ দেন।

আদালত সূত্র জানায়, গত ৫ মে নথি জালিয়াতির ঘটনায় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের পরিচালক-৭ মোহাম্মদ রফিকুল আলম বাদী হয়ে মামলাটি করেন। মামলার পর তরিকুলকে ভোলা থেকে গ্রেফতার করা হয়। পরে তাকে ছাত্রলীগ থেকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করা হয়।

এ মামলায় গত ৮ মে মুমিনসহ তিন আসামির চার দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। রিমান্ড চলাকালে অপর দুই আসামি নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ফরহাদ ও বিনিয়োগ বোর্ডের কর্মচারী নাজিমউদ্দিন দোষ স্বীকার করে জবানবন্দি দেন।

পরবর্তীতে আরেক আসামি প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের অফিস সহকারী ফাতেমাও গ্রেফতার হয়ে আদালতে দোষ স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। বর্তমানে আসামিরা কারাগারে আছেন। রাজধানীর তেজগাঁও থানার ওসি শামীম উর রশীদ মামলাটি তদন্ত করছেন।

প্রধানমন্ত্রীর নথি জালিয়াতি: সেই ছাত্রলীগ নেতা ফের রিমান্ডে

 যুগান্তর রিপোর্ট 
১৩ মে ২০২০, ০৭:৩৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
প্রধানমন্ত্রীর নথি জালিয়াতি: সেই ছাত্রলীগ নেতা ফের রিমান্ডে
তরিকুল ইসলাম মুমিন। ফাইল ছবি

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের নথি জালিয়াতির মামলায় ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের বহিষ্কৃত সহ-সভাপতি তরিকুল ইসলাম মুমিনের ফের দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

বুধবার শুনানি শেষে ঢাকা মহানগর হাকিম নিভানা খায়ের জেসী আসামির রিমান্ডের এ আদেশ দেন।

চার দিনের রিমান্ড শেষে এদিন আসামিকে আদালতে হাজির করে ফের পাঁচ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা। অপরদিকে আসামিপক্ষে রিমান্ড বাতিল চেয়ে জামিন আবেদন করা হয়। উভয়পক্ষের শুনানি শেষে আদালত আসামির জামিন নাকচ করে রিমান্ডের ওই আদেশ দেন।

আদালত সূত্র জানায়, গত ৫ মে নথি জালিয়াতির ঘটনায় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের পরিচালক-৭ মোহাম্মদ রফিকুল আলম বাদী হয়ে মামলাটি করেন। মামলার পর তরিকুলকে ভোলা থেকে গ্রেফতার করা হয়। পরে তাকে ছাত্রলীগ থেকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করা হয়।

এ মামলায় গত ৮ মে মুমিনসহ তিন আসামির চার দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। রিমান্ড চলাকালে অপর দুই আসামি নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ফরহাদ ও বিনিয়োগ বোর্ডের কর্মচারী নাজিমউদ্দিন দোষ স্বীকার করে জবানবন্দি দেন।

পরবর্তীতে আরেক আসামি প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের অফিস সহকারী ফাতেমাও গ্রেফতার হয়ে আদালতে দোষ স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। বর্তমানে আসামিরা কারাগারে আছেন। রাজধানীর তেজগাঁও থানার ওসি শামীম উর রশীদ মামলাটি তদন্ত করছেন।