ইভ্যালির রাসেল-শামীমার বিরুদ্ধে ফের মামলা
jugantor
ইভ্যালির রাসেল-শামীমার বিরুদ্ধে ফের মামলা

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

০৯ ডিসেম্বর ২০২১, ২০:১১:১২  |  অনলাইন সংস্করণ

ইভ্যালির রাসেল-শামীমার বিরুদ্ধে ফের মামলা

বিতর্কিত ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ইভ্যালির সিইও মোহাম্মদ রাসেল ও তার স্ত্রী প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান শামীমা নাসরিনের বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগে ফের আদালতে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট বেগম আফনান সুমির আদালতে মামলাটি করা হয়। ইভ্যালির গ্রাহক তোফাজ্জল হোসেন বাদী হয়ে মামলাটি করেন। বিচারক বাদীর জবানবন্দি গ্রহণ করে আগামী ১০ জানুয়ারি রাসেল ও শামীমকে আদালতে হাজির হওয়ার সমন জারি করেছেন।

মামলার অভিযোগে বলা হয়, ইভ্যালি থেকে বিশেষ ছাড়ে মোটরসাইকেল কেনার জন্য গত ২৬ ফেব্রুয়ারি ১ লাখ ৪৯ হাজার ৬৩৫ টাকা দেন তোফাজ্জল। অফার অনুযায়ী, মোটরসাইকেলটি ৪৫ দিনের মধ্যে ডেলিভারি দেওয়ার কথা। কিন্তু তা না করলে মোটরসাইকেলের দাম বাবদ ২ লাখ ৫০ হাজার টাকা ফেরত দেওয়ার কথা। আসামিরা নির্ধারিত সময় অতিবাহিত হওয়ার পর মোটরসাইকেল ডেলিভারি করতে না পারায় গত ২৮ জুন ২ লাখ ৫০ হাজার টাকার একটি চেক দেন। তবে চেকটি ব্যাংকে জমা দিলে তা ডিজঅনার হয়।

প্রতারণা ও অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে গত ১৬ সেপ্টেম্বর আরেক গ্রাহক আরিফ বাকের ইভ্যালির বিরুদ্ধে রাজধানীর গুলশান থানায় মামলা করেন। মামলার পর ওইদিন বিকালে রাজধানীর মোহাম্মদপুরের বাসায় অভিযান চালিয়ে রাসেল দম্পতিকে গ্রেফতার করে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। এরপর রাসেল দম্পতিসহ প্রতিষ্ঠানটির কয়েকজন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে বেশ কয়েকটি মামলা হয়।

ইভ্যালির রাসেল-শামীমার বিরুদ্ধে ফের মামলা

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
০৯ ডিসেম্বর ২০২১, ০৮:১১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ইভ্যালির রাসেল-শামীমার বিরুদ্ধে ফের মামলা
ফাইল ছবি

বিতর্কিত ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ইভ্যালির সিইও মোহাম্মদ রাসেল ও তার স্ত্রী প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান শামীমা নাসরিনের বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগে ফের আদালতে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট বেগম আফনান সুমির আদালতে মামলাটি করা হয়। ইভ্যালির গ্রাহক তোফাজ্জল হোসেন বাদী হয়ে মামলাটি করেন। বিচারক বাদীর জবানবন্দি গ্রহণ করে আগামী ১০ জানুয়ারি রাসেল ও শামীমকে আদালতে হাজির হওয়ার সমন জারি করেছেন।

মামলার অভিযোগে বলা হয়, ইভ্যালি থেকে বিশেষ ছাড়ে মোটরসাইকেল কেনার জন্য গত ২৬ ফেব্রুয়ারি ১ লাখ ৪৯ হাজার ৬৩৫ টাকা দেন তোফাজ্জল। অফার অনুযায়ী, মোটরসাইকেলটি ৪৫ দিনের মধ্যে ডেলিভারি দেওয়ার কথা। কিন্তু তা না করলে মোটরসাইকেলের দাম বাবদ ২ লাখ ৫০ হাজার টাকা ফেরত দেওয়ার কথা। আসামিরা নির্ধারিত সময় অতিবাহিত হওয়ার পর মোটরসাইকেল ডেলিভারি করতে না পারায় গত ২৮ জুন ২ লাখ ৫০ হাজার টাকার একটি চেক দেন। তবে চেকটি ব্যাংকে জমা দিলে তা ডিজঅনার হয়। 

প্রতারণা ও অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে গত ১৬ সেপ্টেম্বর আরেক গ্রাহক আরিফ বাকের ইভ্যালির বিরুদ্ধে রাজধানীর গুলশান থানায় মামলা করেন। মামলার পর ওইদিন বিকালে রাজধানীর মোহাম্মদপুরের বাসায় অভিযান চালিয়ে রাসেল দম্পতিকে গ্রেফতার করে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। এরপর রাসেল দম্পতিসহ প্রতিষ্ঠানটির কয়েকজন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে বেশ কয়েকটি মামলা হয়।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন