হুদার বিরুদ্ধে সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু
jugantor
হুদার বিরুদ্ধে সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

০৯ জুন ২০২২, ২২:০৫:০৪  |  অনলাইন সংস্করণ

সাবেক প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার (এসকে সিনহা) বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগে মামলা করায় দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) পালটা মামলায় সাবেক যোগাযোগমন্ত্রী ব্যারিস্টার নাজমুল হুদার বিরুদ্ধে সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হয়েছে।

বৃহস্পতিবার এ মামলায় সাক্ষ্যগ্রহণের জন্য দিন ধার্য ছিল। এদিন মামলার বাদী দুদক পরিচালক সৈয়দ ইকবাল হোসেন সাক্ষ্যপ্রদান করেন। এ সময় ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৯ এর বিচারক শেখ হাফিজুর রহমান সাক্ষীর জবানবন্দি রেকর্ড করেন। এরপর সাক্ষীকে জেরা করেন নাজমুল হুদার আইনজীবী। এদিন তার জেরা শেষ না হওয়ায় পরবর্তী ২৮ জুন সাক্ষ্যগ্রহণের জন্য দিন ধার্য করেন আদালত।

৬ এপ্রিল নাজমুল হুদার বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন একই আদালত। গত বছরের অক্টোবরে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা দুদকের পরিচালক বেনজীর আহম্মেদ নাজমুল হুদাকে অভিযুক্ত করে এ মামলায় অভিযোগপত্র দাখিল করেন।

সূত্রমতে, ২০১৮ সালের ২৭ সেপ্টেম্বর ব্যারিস্টার নাজমুল হুদা বাদী হয়ে শাহবাগ থানায় এসকে সিনহার বিরুদ্ধে একটি মামলা করেন। সেখানে তিনি অভিযোগ করেছিলেন, তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে তার বিরুদ্ধে হওয়া একটি মামলা উচ্চ আদালতে ডিসমিস করার পরও প্ররোচিত হয়ে মামলাটির রায় পরিবর্তন করা হয়। মামলাটি ডিসমিস করতে দুই কোটি টাকা ও অন্য একটি ব্যাংক গ্যারান্টির আড়াই কোটি টাকার অর্ধেক ১ কোটি ২৫ লাখ টাকা উৎকোচ চান এসকে সিনহা।

পরে মামলাটি তদন্তের জন্য দুদকে আসে। দেড় বছর তদন্ত করে এসকে সিনহার বিরুদ্ধে নাজমুল হুদার মামলাটি মিথ্যা অভিযোগে করা মর্মে প্রমাণিত হয়েছে দুদকের। আর মিথ্যা তথ্য দেওয়ার অভিযোগে উলটো ব্যারিস্টার নাজমুল হুদার বিরুদ্ধেই মামলা করে দুদক।

হুদার বিরুদ্ধে সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
০৯ জুন ২০২২, ১০:০৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

সাবেক প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার (এসকে সিনহা) বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগে মামলা করায় দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) পালটা মামলায় সাবেক যোগাযোগমন্ত্রী ব্যারিস্টার নাজমুল হুদার বিরুদ্ধে সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হয়েছে।

বৃহস্পতিবার এ মামলায় সাক্ষ্যগ্রহণের জন্য দিন ধার্য ছিল। এদিন মামলার বাদী দুদক পরিচালক সৈয়দ ইকবাল হোসেন সাক্ষ্যপ্রদান করেন। এ সময় ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৯ এর বিচারক শেখ হাফিজুর রহমান সাক্ষীর জবানবন্দি রেকর্ড করেন। এরপর সাক্ষীকে জেরা করেন নাজমুল হুদার আইনজীবী। এদিন তার জেরা শেষ না হওয়ায় পরবর্তী ২৮ জুন সাক্ষ্যগ্রহণের জন্য দিন ধার্য করেন আদালত। 

৬ এপ্রিল নাজমুল হুদার বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন একই আদালত। গত বছরের অক্টোবরে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা দুদকের পরিচালক বেনজীর আহম্মেদ নাজমুল হুদাকে অভিযুক্ত করে এ মামলায় অভিযোগপত্র দাখিল করেন। 

সূত্রমতে, ২০১৮ সালের ২৭ সেপ্টেম্বর ব্যারিস্টার নাজমুল হুদা বাদী হয়ে শাহবাগ থানায় এসকে সিনহার বিরুদ্ধে একটি মামলা করেন। সেখানে তিনি অভিযোগ করেছিলেন, তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে তার বিরুদ্ধে হওয়া একটি মামলা উচ্চ আদালতে ডিসমিস করার পরও প্ররোচিত হয়ে মামলাটির রায় পরিবর্তন করা হয়। মামলাটি ডিসমিস করতে দুই কোটি টাকা ও অন্য একটি ব্যাংক গ্যারান্টির আড়াই কোটি টাকার অর্ধেক ১ কোটি ২৫ লাখ টাকা উৎকোচ চান এসকে সিনহা। 

পরে মামলাটি তদন্তের জন্য দুদকে আসে। দেড় বছর তদন্ত করে এসকে সিনহার বিরুদ্ধে নাজমুল হুদার মামলাটি মিথ্যা অভিযোগে করা মর্মে প্রমাণিত হয়েছে দুদকের। আর মিথ্যা তথ্য দেওয়ার অভিযোগে উলটো ব্যারিস্টার নাজমুল হুদার বিরুদ্ধেই মামলা করে দুদক।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন