করোনায় আক্রান্ত ৯৭১ চিকিৎসক, ১৮ জনের মৃত্যু

  যুগান্তর রিপোর্ট ০৪ জুন ২০২০, ১৮:৪৯:৫৫ | অনলাইন সংস্করণ

করোনার প্রতীকী ছবি

দেশে করোনার শুরু থেকে এ পর্যন্ত ৯৭১ জন চিকিৎসক আক্রান্ত হয়েছেন। এ পর্যন্ত ২১ জন চিকিৎসক মারা গেলেও তিনজনের মৃত্যু করোনায় নয় বলে জানিয়েছেন ডক্টরস ফাউন্ডেশন অব বাংলাদেশের সমন্বয়কারী ডা. নিরুপম দাশ।

করোনার কারণে দেশের একের পর এক বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের মৃত্যুবরণ করা একটি জাতীয় দুর্যোগ হিসেবে উল্লেখ করেছেন চিকিৎসকরা। ডাক্তারদের জন্য মানবতা প্রদর্শনের জন্য না, জনগণের চিকিৎসা নিশ্চিত করতেই ডাক্তারসহ সব স্বাস্থ্যসেবা কর্মীদের রক্ষা করা, তাদের সাহস ও প্রণোদনা প্রদানে গুরুত্ব দিতে বলেছেন তারা।

করোনায় দেশে প্রথম গত ১৫ এপ্রিল প্রাণ হারান সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সহকারী অধ্যাপক ডা. মঈন উদ্দিন। এরপর থেকেই এই সারি দীর্ঘ হতে থাকে। মারা যান অধ্যাপক কর্নেল (অব.) ডা. মনিরুজ্জামান, অধ্যাপক মেজর (অব.) ডা.আবুল মোকারিম, ডা. আজিজুর রহমান রাজু (তিতাস গ্যাস), ডা. এমএ মতিন (মৌলভীবাজার), ডা. আমিনা খান (গাইনিকোলজিস্ট), ডা. আ. রহমান (সিনিয়র কনসালটেন্ট, রংপুর), অধ্যাপক ডা. মোশাররফ হোসেন (অর্থোসার্জারি), ডা. তাজ উদ্দিন (শিশু হাসপাতাল), ডা. সাইদুল ইসলাম (এসবিএমসি ১ম ব্যাচ), ডা. ওয়াহিদুজ্জামান আকন্দ (এমএজিওমেক), প্রখ্যাত ইউরোলজিস্ট ডা. মঞ্জুর রশীদ চৌধুরী, অধ্যাপক ডা. আনিসুর রহমান (ফরেনসিক মেডিসিন), সহযোগী অধ্যাপক ডা. এহসানুল করিম, ডা. এম ওয়াহেদুল হক (এসওএমসি-১০ব্যাচ), ইব্রাহীম মেডিকেল কলেজের অধ্যাপক ডা. মহিউদ্দীন, অধ্যাপক ডা. হাবিবুর রহমান (ফরেনসিক মেডিসিন) এবং ডা. মহিদুল হাসান (ইএমও, সিএমসিএইচ)।

এছাড়া করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন ডা. জাফর রুমি (মা ও শিশু হাসপাতাল), ডা. দিলরুবা কাজী (এসওএমসি) এবং অধ্যাপক ডা. মাহবুবুর রহমান (সার্জারি, এমএমসি)। তবে তাদের মৃত্যু করোনায় নয় বলে নিশ্চিত করেছে ডক্টরস ফাউন্ডেশন।

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস

আরও

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত