ঢাকার বায়ু অস্বাস্থ্যকর, শুক্রবার ছিল বিপজ্জনক
jugantor
ঢাকার বায়ু অস্বাস্থ্যকর, শুক্রবার ছিল বিপজ্জনক

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

২৩ জানুয়ারি ২০২১, ১৯:৪৫:৩৭  |  অনলাইন সংস্করণ

ঢাকার বায়ু অস্বাস্থ্যকর, শুক্রবার ছিল বিপজ্জনক

বায়ুদূষণের দিক থেকে বাংলাদেশ এখন বিশ্বে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে। বিশ্বের বায়ুদূষণ পর্যবেক্ষণকারী আন্তর্জাতিক সংস্থা এয়ার কোয়ালিটি ইনডেক্স এ তথ্য দিয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক সংস্থাটির তথ্য অনুযায়ী, শনিবার দুপুর আড়াইটার দিকে রাজধানীর বায়ুর মান ছিল ২৩৫। এটিকে বায়ুমান সূচকে অস্বাস্থ্যকর বলা হয়।

এয়ার কোয়ালিটি ইনডেক্স অনুযায়ী, শনিবার দিনভর প্রথম অবস্থানে আছে পাকিস্তানের লাহোর, তৃতীয় ভারতের দিল্লি, চতুর্থ এবং পঞ্চম স্থানে ভিয়েতনামের হেনয় শহর।

এয়ার কোয়ালিটি ইনডেক্সের হিসাব মতে, বায়ুর মান ০ থেকে ৫০ থাকলে ওই স্থানের বায়ু ভালো। মান ২০০ থেকে ৩০০–এর মধ্যে থাকলে, সেই স্থান অস্বাস্থ্যকর। আর যদি বায়ুর মান ৩০০–এর বেশি থাকে, তাহলে সেই স্থান বিপজ্জনক।

শুক্রবার রাত নয়টার দিকে ঢাকার বায়ুর মান ৩৩২ উঠেছিল বলে তথ্য দিয়েছে এয়ার কোয়ালিটি ইনডেক্স, যা স্বাস্থ্যের জন্য বিপজ্জনক।

গবেষকদের ভাষ্য, ধুলাবালি হচ্ছে ঢাকার বায়ুদূষণের অন্যতম উৎস। এসব ধূলিকণা মুখে গেলে মানুষ যেখানে-সেখানে থুতু ও কফ ফেলে। আর এই থুতু ও কফ ধুলার সঙ্গে মিশে বিভিন্নভাবে তা মানুষের শরীরে প্রবেশ করে। এছাড়া বায়ুদূষণের আরও উৎস হচ্ছে- ইটভাটা, শিল্পকারখানার ধোঁয়া, যানবাহনের ধোঁয়া এবং সড়ক ও ভবন নির্মাণ সামগ্রী থেকে সৃষ্ট ধুলা।

ঢাকার এমন বায়ু স্বাস্থ্যের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকারণ। এতে ঢাকাবাসী ফুসফুসের নানা রোগ, অ্যাজমা, নিউমোনিয়া, শ্বাসকষ্টসহ বিভিন্ন শারীরিক জটিলতায় পড়ছেন বলে মনে করছেন গবেষকরা।

ঢাকার বায়ু অস্বাস্থ্যকর, শুক্রবার ছিল বিপজ্জনক

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
২৩ জানুয়ারি ২০২১, ০৭:৪৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ঢাকার বায়ু অস্বাস্থ্যকর, শুক্রবার ছিল বিপজ্জনক
ফাইল ছবি

বায়ুদূষণের দিক থেকে বাংলাদেশ এখন বিশ্বে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে। বিশ্বের বায়ুদূষণ পর্যবেক্ষণকারী আন্তর্জাতিক সংস্থা এয়ার কোয়ালিটি ইনডেক্স এ তথ্য দিয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক সংস্থাটির তথ্য অনুযায়ী, শনিবার দুপুর আড়াইটার দিকে রাজধানীর বায়ুর মান ছিল ২৩৫। এটিকে বায়ুমান সূচকে অস্বাস্থ্যকর বলা হয়। 

এয়ার কোয়ালিটি ইনডেক্স অনুযায়ী, শনিবার দিনভর প্রথম অবস্থানে আছে পাকিস্তানের লাহোর, তৃতীয় ভারতের দিল্লি, চতুর্থ এবং পঞ্চম স্থানে ভিয়েতনামের হেনয় শহর।

এয়ার কোয়ালিটি ইনডেক্সের হিসাব মতে, বায়ুর মান ০ থেকে ৫০ থাকলে ওই স্থানের বায়ু ভালো। মান ২০০ থেকে ৩০০–এর মধ্যে থাকলে, সেই স্থান অস্বাস্থ্যকর। আর যদি বায়ুর মান ৩০০–এর বেশি থাকে, তাহলে সেই স্থান বিপজ্জনক। 

শুক্রবার রাত নয়টার দিকে ঢাকার বায়ুর মান ৩৩২ উঠেছিল বলে তথ্য দিয়েছে এয়ার কোয়ালিটি ইনডেক্স, যা স্বাস্থ্যের জন্য বিপজ্জনক।

গবেষকদের ভাষ্য, ধুলাবালি হচ্ছে ঢাকার বায়ুদূষণের অন্যতম উৎস। এসব ধূলিকণা মুখে গেলে মানুষ যেখানে-সেখানে থুতু ও কফ ফেলে। আর এই থুতু ও কফ ধুলার সঙ্গে মিশে বিভিন্নভাবে তা মানুষের শরীরে প্রবেশ করে। এছাড়া বায়ুদূষণের আরও উৎস হচ্ছে- ইটভাটা, শিল্পকারখানার ধোঁয়া, যানবাহনের ধোঁয়া এবং সড়ক ও ভবন নির্মাণ সামগ্রী থেকে সৃষ্ট ধুলা।

ঢাকার এমন বায়ু স্বাস্থ্যের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকারণ। এতে ঢাকাবাসী ফুসফুসের নানা রোগ, অ্যাজমা, নিউমোনিয়া, শ্বাসকষ্টসহ বিভিন্ন শারীরিক জটিলতায় পড়ছেন বলে মনে করছেন গবেষকরা।