যে বার্তা দিয়ে দেশে ফিরে গেলেন মার্কিন রাষ্ট্রদূত মিলার
jugantor
যে বার্তা দিয়ে দেশে ফিরে গেলেন মার্কিন রাষ্ট্রদূত মিলার

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

২১ জানুয়ারি ২০২২, ২২:৪৩:৩৪  |  অনলাইন সংস্করণ

দেশে ফিরে গেছেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত আর্ল রবার্ট মিলার। বাংলাদেশে তিন বছরের বেশি সময় দায়িত্ব পালন শেষে আজ (শুক্রবার) নিজ দেশে ফিরলেন এই কূটনীতিক।

সন্ধ্যায় হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে যুক্তরাষ্ট্রের উদ্দেশে ঢাকা ত্যাগ করেন তিনি।

যাওয়ার আগে মার্কিন রাষ্ট্রদূত মিলার এক বার্তায় বাংলাদেশের জনগণের ভূয়সী প্রশংসা করে গেছেন। তিনি বলেন, ‘আমার সবচেয়ে প্রিয় স্মৃতি হয়ে থাকবে বাংলাদেশের জনগণের উষ্ণতা ও সৌজন্যবোধ। যুক্তরাষ্ট্রের কূটনীতিক হিসেবে গত ৩৫ বছরে আমি এমন কোনো দেশে কখনো কাজ করিনি, যেখানকার মানুষ এত অতিথিপরায়ন, চিন্তাশীল ও অমায়িক।’

২০১৮ সালের ১৩ নভেম্বর ঢাকায় যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত হিসেবে নিযুক্ত হন মিলার। ঢাকায় তিন বছরের বেশি সময় দায়িত্ব পালন করেন তিনি।

এর আগে ২০১৪-২০১৮ সাল পর্যন্ত বতসোয়ানায় যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন মিলার।

বিদায়ের আগে জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরিন শারমীন চৌধুরী, পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আবদুল মোমেন ও প্রধানমন্ত্রীর আন্তর্জাতিক সম্পর্কবিষয়ক উপদেষ্টা ড. গওহর রিজভী, পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেনের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে ঢাকা-ওয়াশিংটনের মধ্যে সম্পর্ক শক্তিশালী করার বার্তা দিয়ে গেছেন মিলার।

যে বার্তা দিয়ে দেশে ফিরে গেলেন মার্কিন রাষ্ট্রদূত মিলার

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
২১ জানুয়ারি ২০২২, ১০:৪৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

দেশে ফিরে গেছেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত আর্ল রবার্ট মিলার। বাংলাদেশে তিন বছরের বেশি সময় দায়িত্ব পালন শেষে আজ (শুক্রবার) নিজ দেশে ফিরলেন এই কূটনীতিক।

সন্ধ্যায় হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে যুক্তরাষ্ট্রের উদ্দেশে ঢাকা ত্যাগ করেন তিনি।

যাওয়ার আগে মার্কিন রাষ্ট্রদূত মিলার এক বার্তায় বাংলাদেশের জনগণের ভূয়সী প্রশংসা করে গেছেন। তিনি বলেন, ‘আমার সবচেয়ে প্রিয় স্মৃতি হয়ে থাকবে বাংলাদেশের জনগণের উষ্ণতা ও সৌজন্যবোধ। যুক্তরাষ্ট্রের কূটনীতিক হিসেবে গত ৩৫ বছরে আমি এমন কোনো দেশে কখনো কাজ করিনি, যেখানকার মানুষ এত অতিথিপরায়ন, চিন্তাশীল ও অমায়িক।’

২০১৮ সালের ১৩ নভেম্বর ঢাকায় যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত হিসেবে নিযুক্ত হন মিলার। ঢাকায় তিন বছরের বেশি সময় দায়িত্ব পালন করেন তিনি।

এর আগে ২০১৪-২০১৮ সাল পর্যন্ত বতসোয়ানায় যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন মিলার।

বিদায়ের আগে জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরিন শারমীন চৌধুরী, পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আবদুল মোমেন ও প্রধানমন্ত্রীর আন্তর্জাতিক সম্পর্কবিষয়ক উপদেষ্টা ড. গওহর রিজভী, পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেনের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে ঢাকা-ওয়াশিংটনের মধ্যে সম্পর্ক শক্তিশালী করার বার্তা দিয়ে গেছেন মিলার।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন