উপাচার্যের দ্রুত পদত্যাগ দাবিতে উত্তাল শাবি, মশাল মিছিল
jugantor
উপাচার্যের দ্রুত পদত্যাগ দাবিতে উত্তাল শাবি, মশাল মিছিল

  শাবি প্রতিনিধি  

২৪ জানুয়ারি ২০২২, ০০:৪৭:১৯  |  অনলাইন সংস্করণ

সিলেটে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবিপ্রবি) উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদের পদত্যাগ দাবিতে টানা অষ্টম দিনের মতো আন্দোলন করছেন শিক্ষার্থীরা। উপাচার্যের পদত্যাগ দাবিতে আমরণ অনশনের ইতোমধ্যেই পার হয়েছে ১০৪ ঘণ্টারও বেশি সময়।

অনশনে অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ২০ জনেরও বেশি। তবে শিক্ষার্থীরা একটু সুস্থ হলেই আবার ফিরে আসছেন অনশনস্থলে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ১৬ জন শিক্ষার্থী। বাকি শিক্ষার্থীদের দেওয়া হয়েছে স্যালাইন।

এদিকে উপাচার্যের দ্রুত পদত্যাগ দাবিতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে আবারো উত্তাল হয়ে উঠেছে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস। শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের অংশ হিসেবে রোববার রাত সাড়ে দশটায় মশাল মিছিল এবং কুশপুত্তলিকা দাহ করেছেন শিক্ষার্থীরা।

মশাল মিছিলটি বিশ্ববিদ্যালয়ের মুক্ত মঞ্চ থেকে শুরু হয়ে অনশনস্থল হয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে আবার মুক্ত মঞ্চে এসে শেষ হয়। এ সময় শিক্ষার্থীরা উপাচার্যের পদত্যাগ দাবিতে বিভিন্ন শ্লোগানে উত্তপ্ত করে তোলেন আশেপাশের পরিবেশ।

এ সময় তারা উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদের কুশপুত্তলিকা দাহ করেন।

মিছিলে ‘জ্বালো জ্বালো, আগুন জ্বালো’, ‘আগুন জ্বালো একসঙ্গে, ফরিদের গদিতে’, ‘আমার ভাইয়ের রক্ত, বৃথা যেতে দেব না’, ‘অ্যাকশন অ্যাকশন, ডাইরেক্ট অ্যাকশন’, ‘আমার ভাই আহত কেন? প্রশাসন জবাব চাই’, ‘স্বৈরাচারের গদিতে, আগুন জ্বালো একসঙ্গে’- এমন শ্লোগানে উত্তপ্ত করে তোলেন ক্যাম্পাস।

এদিকে উপাচার্যের পদত্যাগ দাবিতে অনশনরত শিক্ষার্থীদের অনশন ভাঙানোর জন্য যা যা দরকার তা অনতিবিলম্বে করতে সরকারের সহযোগিতা কামনা করে বিবৃতি দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতি।

উপাচার্যের দ্রুত পদত্যাগ দাবিতে উত্তাল শাবি, মশাল মিছিল

 শাবি প্রতিনিধি 
২৪ জানুয়ারি ২০২২, ১২:৪৭ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

সিলেটে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবিপ্রবি) উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদের পদত্যাগ দাবিতে টানা অষ্টম দিনের মতো আন্দোলন করছেন শিক্ষার্থীরা। উপাচার্যের পদত্যাগ দাবিতে আমরণ অনশনের ইতোমধ্যেই পার হয়েছে ১০৪ ঘণ্টারও বেশি সময়।

অনশনে অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ২০ জনেরও বেশি। তবে শিক্ষার্থীরা একটু সুস্থ হলেই আবার ফিরে আসছেন অনশনস্থলে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ১৬ জন শিক্ষার্থী। বাকি শিক্ষার্থীদের দেওয়া হয়েছে স্যালাইন।

এদিকে উপাচার্যের দ্রুত পদত্যাগ দাবিতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে আবারো উত্তাল হয়ে উঠেছে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস। শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের অংশ হিসেবে রোববার রাত সাড়ে দশটায় মশাল মিছিল এবং কুশপুত্তলিকা দাহ করেছেন শিক্ষার্থীরা।

মশাল মিছিলটি বিশ্ববিদ্যালয়ের মুক্ত মঞ্চ থেকে শুরু হয়ে অনশনস্থল হয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে আবার মুক্ত মঞ্চে এসে শেষ হয়। এ সময় শিক্ষার্থীরা উপাচার্যের পদত্যাগ দাবিতে বিভিন্ন শ্লোগানে উত্তপ্ত করে তোলেন আশেপাশের পরিবেশ।

এ সময় তারা উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদের কুশপুত্তলিকা দাহ করেন।

মিছিলে ‘জ্বালো জ্বালো, আগুন জ্বালো’, ‘আগুন জ্বালো একসঙ্গে, ফরিদের গদিতে’, ‘আমার ভাইয়ের রক্ত, বৃথা যেতে দেব না’, ‘অ্যাকশন অ্যাকশন, ডাইরেক্ট অ্যাকশন’, ‘আমার ভাই আহত কেন? প্রশাসন জবাব চাই’, ‘স্বৈরাচারের গদিতে, আগুন জ্বালো একসঙ্গে’- এমন শ্লোগানে উত্তপ্ত করে তোলেন ক্যাম্পাস।

এদিকে উপাচার্যের পদত্যাগ দাবিতে অনশনরত শিক্ষার্থীদের অনশন ভাঙানোর জন্য যা যা দরকার তা অনতিবিলম্বে করতে সরকারের সহযোগিতা কামনা করে বিবৃতি দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন