‘কেনিয়াকে ওবামা বলেছেন ফলো শেখ হাসিনা, ফলো বাংলাদেশ’
jugantor
‘কেনিয়াকে ওবামা বলেছেন ফলো শেখ হাসিনা, ফলো বাংলাদেশ’

  আগারগাঁও (ঢাকা) প্রতিনিধি  

২৫ জানুয়ারি ২০২২, ২১:২০:৫৬  |  অনলাইন সংস্করণ

মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেছেন, উন্নতির জন্য বারাক ওবামা তার দাদার দেশ কেনিয়ার রাষ্ট্রপ্রধানকে বলেছেন- ফলো শেখ হাসিনা, ফলো বাংলাদেশ।

মন্ত্রী আরও বলেন, জাতিসংঘ বাংলাদেশকে পৃথিবীর রোল মডেল হিসেবে আখ্যায়িত করেছে। ২৬টি আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি দিয়েছে বাংলাদেশকে। এটা চেহারা দেখে দেয়নি বা আওয়ামী লীগের কর্মীরাও দেয়নি যে তেল মারার জন্য দিবে। ৫০ বছরে আমরা ছাড়া অন্যরাও ক্ষমতায় ছিল, তারা দেশের জন্য কোনো স্বীকৃতি আনতে পারেনি। আনার মধ্যে দুর্নীতিতে চ্যাম্পিয়নের স্বীকৃতি নিয়ে এসেছিল।

মঙ্গলবার তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের বিসিসি অডিটোরিয়ামে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন উপলক্ষে ‘সুবর্ণজয়ন্তী ওয়েবসাইট’ ও ‘সুবর্ণজয়ন্তী অনলাইন কুইজ’ প্রতিযোগিতার উদ্বোধন অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপনের জন্য মন্ত্রিসভা কমিটি করে। মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী এবং সচিবকে আহ্বায়ক করে দায়িত্ব দেওয়া হয়। এই কমিটি সুবর্ণজয়ন্তী পালন উপলক্ষে দেশব্যাপী গ্রহণ করে নানা উদ্যোগ। ‘সুবর্ণজয়ন্তী ওয়েবসাইট’ ও ‘সুবর্ণজয়ন্তী অনলাইন কুইজ প্রতিযোগিতা’ সেই উদ্যোগের অংশ।

তথ্য ও যোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন- তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সিনিয়র সচিব এনএম জিয়াউল আলম, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব তপন কান্তি ঘোষ, বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল ও তথ্য প্রযুক্তি বিভাগের নির্বাহী পরিচালক ড. আবদুল মান্নান, এটুআই প্রকল্প পরিচালক (যুগ্ম সচিব) ড. দেওয়ান মোহাম্মদ হুমায়ুন কবীর।

সুবর্ণজয়ন্তী অনলাইন কুইজের মাধ্যমে তরুণ প্রজন্মের কাছে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস আরও সহজভাবে ও দ্রুত তুলে ধরতেই এই আয়োজন বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

যেসব বিষয়ের ওপর কুইজের প্রশ্ন হবে- ভাষা আন্দোলন, ছয় দফা, আগরতলা ষড়যন্ত্র, উনসত্তরের অভ্যুত্থান, মহান মুক্তিযুদ্ধ, স্বাধীন বাংলাদেশ, বঙ্গবন্ধু জীবন আদর্শ, বঙ্গবন্ধুর রাজনৈতিক জীবন, দীর্ঘ মুক্তির সংগ্রাম ও স্বাধীনতার পথে অভিযাত্রা, বাংলাদেশ ও বঙ্গবন্ধু, বঙ্গবন্ধুর হত্যার বিচার, আদেশ বিনির্মাণ, ডিজিটাল বাংলাদেশ রূপকল্প, ডিজিটাল বাংলাদেশের অর্জন, রূপকল্প ২০৪১, স্বাধীনতার শতবর্ষ ২০৭১, ডেল্টা প্লান ২১০০, স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী, বাংলাদেশের অর্জন, ই-সেবা ইত্যাদি।

কুইজে অংশ নেওয়ার জন্য নিবন্ধন করা যাবে ২৫ জানুয়ারি থেকে ২৫ ফেব্রুয়ারি রাত ১১টা ৫৯ মিনিট পর্যন্ত। প্রতিযোগিতার সময় সন্ধ্যা ৭টা থেকে রাত ৮টার মধ্যে যে কোনো ২৬ মিনিট। তিনটি গ্রুপে এই কুইজ হবে। তার মধ্যে ক-গ্রুপ ১ মার্চ, খ-গ্রুপ ২ মার্চ এবং গ-গ্রুপ ৩ মার্চ।

‘কেনিয়াকে ওবামা বলেছেন ফলো শেখ হাসিনা, ফলো বাংলাদেশ’

 আগারগাঁও (ঢাকা) প্রতিনিধি 
২৫ জানুয়ারি ২০২২, ০৯:২০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেছেন, উন্নতির জন্য বারাক ওবামা তার দাদার দেশ কেনিয়ার রাষ্ট্রপ্রধানকে বলেছেন- ফলো শেখ হাসিনা, ফলো বাংলাদেশ।

মন্ত্রী আরও বলেন, জাতিসংঘ বাংলাদেশকে পৃথিবীর রোল মডেল হিসেবে আখ্যায়িত করেছে।  ২৬টি আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি দিয়েছে বাংলাদেশকে। এটা চেহারা দেখে দেয়নি বা আওয়ামী লীগের কর্মীরাও দেয়নি যে তেল মারার জন্য দিবে। ৫০ বছরে আমরা ছাড়া অন্যরাও ক্ষমতায় ছিল, তারা দেশের জন্য কোনো স্বীকৃতি আনতে পারেনি। আনার মধ্যে দুর্নীতিতে চ্যাম্পিয়নের স্বীকৃতি নিয়ে এসেছিল।

মঙ্গলবার তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের বিসিসি অডিটোরিয়ামে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন উপলক্ষে ‘সুবর্ণজয়ন্তী ওয়েবসাইট’ ও ‘সুবর্ণজয়ন্তী অনলাইন কুইজ’ প্রতিযোগিতার উদ্বোধন অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপনের জন্য মন্ত্রিসভা কমিটি করে। মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী এবং সচিবকে আহ্বায়ক করে দায়িত্ব দেওয়া হয়। এই কমিটি সুবর্ণজয়ন্তী পালন উপলক্ষে দেশব্যাপী গ্রহণ করে নানা উদ্যোগ। ‘সুবর্ণজয়ন্তী ওয়েবসাইট’ ও ‘সুবর্ণজয়ন্তী অনলাইন কুইজ প্রতিযোগিতা’ সেই উদ্যোগের অংশ। 

তথ্য ও যোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন- তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সিনিয়র সচিব এনএম জিয়াউল আলম, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব তপন কান্তি ঘোষ, বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল ও তথ্য প্রযুক্তি বিভাগের নির্বাহী পরিচালক ড. আবদুল মান্নান, এটুআই প্রকল্প পরিচালক (যুগ্ম সচিব) ড. দেওয়ান মোহাম্মদ হুমায়ুন কবীর। 

সুবর্ণজয়ন্তী অনলাইন কুইজের মাধ্যমে তরুণ প্রজন্মের কাছে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস আরও সহজভাবে ও দ্রুত তুলে ধরতেই এই আয়োজন বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

যেসব বিষয়ের ওপর কুইজের প্রশ্ন হবে- ভাষা আন্দোলন, ছয় দফা, আগরতলা ষড়যন্ত্র, উনসত্তরের অভ্যুত্থান, মহান মুক্তিযুদ্ধ, স্বাধীন বাংলাদেশ, বঙ্গবন্ধু জীবন আদর্শ, বঙ্গবন্ধুর রাজনৈতিক জীবন, দীর্ঘ মুক্তির সংগ্রাম ও স্বাধীনতার পথে অভিযাত্রা, বাংলাদেশ ও বঙ্গবন্ধু, বঙ্গবন্ধুর হত্যার বিচার, আদেশ বিনির্মাণ, ডিজিটাল বাংলাদেশ রূপকল্প, ডিজিটাল বাংলাদেশের অর্জন, রূপকল্প ২০৪১, স্বাধীনতার শতবর্ষ ২০৭১, ডেল্টা প্লান ২১০০, স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী, বাংলাদেশের অর্জন, ই-সেবা ইত্যাদি।

কুইজে অংশ নেওয়ার জন্য নিবন্ধন করা যাবে ২৫ জানুয়ারি থেকে ২৫ ফেব্রুয়ারি রাত ১১টা ৫৯ মিনিট পর্যন্ত। প্রতিযোগিতার সময় সন্ধ্যা ৭টা থেকে রাত ৮টার মধ্যে যে কোনো ২৬ মিনিট। তিনটি গ্রুপে এই কুইজ হবে। তার মধ্যে ক-গ্রুপ ১ মার্চ, খ-গ্রুপ ২ মার্চ এবং গ-গ্রুপ ৩ মার্চ।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন