বঙ্গবন্ধু হত্যার ষড়যন্ত্রকারীদের খুঁজতে এ বছরেই কমিশন: আইনমন্ত্রী
jugantor
বঙ্গবন্ধু হত্যার ষড়যন্ত্রকারীদের খুঁজতে এ বছরেই কমিশন: আইনমন্ত্রী

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

১৩ আগস্ট ২০২২, ২০:৪২:০৫  |  অনলাইন সংস্করণ

সপরিবারে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট হত্যায় জড়িত ষড়যন্ত্রকারীদের খোঁজার বিষয়ে কমিশন গঠন চলতি বছরের শেষ নাগাদ চূড়ান্ত হবে। এরই মধ্যে কমিশনের রূপরেখা প্রস্তুত করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক।

রাজধানীর একটি হোটেলে শনিবার শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের আয়োজনে শ্রম আপিল ট্রাইব্যুনালে কর্মশালা শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে তিনি এ কথা জানান।

আইনমন্ত্রী বলেন, কমিশনের রূপরেখা প্রস্তুত। এখন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে পাঠানো হবে। পরে প্রধানমন্ত্রী প্রয়োজনে সংযোজন-বিয়োজন করবেন। তিনি (প্রধানমন্ত্রী) প্রয়োজনীয় সংশোধন করে চূড়ান্ত অনুমোদন করবেন।

কমিশনের অগ্রগতির বিষয়ে প্রশ্নের উত্তরে মন্ত্রী বলেন, ষড়যন্ত্রকারীদের খোঁজার বিষয়ে কমিশনের রূপরেখা তৈরি করেছি। এখন কমিশন গঠন ও এর কার্যপ্রণালি নির্ধারণের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া জরুরি।

কোভিডের জন্য দেরি হয়েছে উল্লেখ করে আইনমন্ত্রী বলেন, এখানে অর্থনৈতিক বিষয়েও কিছু সিদ্ধান্ত নিতে হচ্ছে। সেজন্য কমিশনের রূপরেখার বিষয়ে নীতিনির্ধারকদের সঙ্গে আলোচনা করা হয়ে উঠছে না। আশা করছি, কিছু দিনের মধ্যে আলোচনায় বসতে পারব। এ বছর নাগাদ আমরা হয়তো কমিশন চালু করতে পারব।

এ সময় ২১ আগস্টের গ্রেনেড হামলা মামলায় সাজাপ্রাপ্ত আসামি তারেক রহমানকে ফিরিয়ে আনতেও সরকার সচেষ্ট বলে মন্তব্য করেন আনিসুল হক।

শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব ড. সেলিনা আক্তারের সভাপতিত্বে এ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন- শ্রম ও কর্মসংস্থানমন্ত্রী মন্নুজান সুফিয়ান, শ্রম আপিল ট্রাইব্যুনালের চেয়ারম্যান বিচারপতি মো. ফারুক, আইএলও বাংলাদেশের কান্ট্রি ডিরেক্টর টুমো পোটিআইনেন।

বঙ্গবন্ধু হত্যার ষড়যন্ত্রকারীদের খুঁজতে এ বছরেই কমিশন: আইনমন্ত্রী

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
১৩ আগস্ট ২০২২, ০৮:৪২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

সপরিবারে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট হত্যায় জড়িত ষড়যন্ত্রকারীদের খোঁজার বিষয়ে কমিশন গঠন চলতি বছরের শেষ নাগাদ চূড়ান্ত হবে। এরই মধ্যে কমিশনের রূপরেখা প্রস্তুত করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক। 

রাজধানীর একটি হোটেলে শনিবার শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের আয়োজনে শ্রম আপিল ট্রাইব্যুনালে কর্মশালা শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে তিনি এ কথা জানান। 

আইনমন্ত্রী বলেন, কমিশনের রূপরেখা প্রস্তুত। এখন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে পাঠানো হবে। পরে প্রধানমন্ত্রী প্রয়োজনে সংযোজন-বিয়োজন করবেন। তিনি (প্রধানমন্ত্রী) প্রয়োজনীয় সংশোধন করে চূড়ান্ত অনুমোদন করবেন।

কমিশনের অগ্রগতির বিষয়ে প্রশ্নের উত্তরে মন্ত্রী বলেন, ষড়যন্ত্রকারীদের খোঁজার বিষয়ে কমিশনের রূপরেখা তৈরি করেছি। এখন কমিশন গঠন ও এর কার্যপ্রণালি নির্ধারণের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া জরুরি। 

কোভিডের জন্য দেরি হয়েছে উল্লেখ করে আইনমন্ত্রী বলেন, এখানে অর্থনৈতিক বিষয়েও কিছু সিদ্ধান্ত নিতে হচ্ছে। সেজন্য কমিশনের রূপরেখার বিষয়ে নীতিনির্ধারকদের সঙ্গে আলোচনা করা হয়ে উঠছে না। আশা করছি, কিছু দিনের মধ্যে আলোচনায় বসতে পারব। এ বছর নাগাদ আমরা হয়তো কমিশন চালু করতে পারব।

এ সময় ২১ আগস্টের গ্রেনেড হামলা মামলায় সাজাপ্রাপ্ত আসামি তারেক রহমানকে ফিরিয়ে আনতেও সরকার সচেষ্ট বলে মন্তব্য করেন আনিসুল হক।  

শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব ড. সেলিনা আক্তারের সভাপতিত্বে এ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন- শ্রম ও কর্মসংস্থানমন্ত্রী মন্নুজান সুফিয়ান, শ্রম আপিল ট্রাইব্যুনালের চেয়ারম্যান বিচারপতি মো. ফারুক, আইএলও বাংলাদেশের কান্ট্রি ডিরেক্টর টুমো পোটিআইনেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও খবর