কিলো ফ্লাইটের যোদ্ধা শামসুল আলমের প্রতি ভারতীয় হাইকমিশনের শ্রদ্ধা
jugantor
কিলো ফ্লাইটের যোদ্ধা শামসুল আলমের প্রতি ভারতীয় হাইকমিশনের শ্রদ্ধা

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

০৯ ডিসেম্বর ২০২২, ২১:৩২:৩৪  |  অনলাইন সংস্করণ

মুক্তিবাহিনী কর্তৃক গঠিত যুদ্ধবিমানবিন্যাস ‘কিলো ফ্লাইট’-এর সাহসী যোদ্ধা গ্রুপ ক্যাপ্টেন (অব.) শামসুল আলম বীর উত্তমের প্রতি শ্রদ্ধা জ্ঞাপন ও পুষ্পস্তবক অর্পণ করেছে ঢাকায় ভারতীয় হাইকমিশন।

শুক্রবার ভারতীয় হাইকমিশন থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

ভারতীয় হাইকমিশন বিজ্ঞপ্তিতে জানায়, চিরদিন শামসুল আলমের অভাব অনুভূত হবে, কখনো বিস্মৃত হবেন না। গ্রুপ ক্যাপ্টেন (অব.) শামসুল আলম বীর উত্তম ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় মুক্তিবাহিনী কর্তৃক গঠিত যুদ্ধবিমানবিন্যাস ‘কিলো ফ্লাইট’-এর সাহসী যোদ্ধা ছিলেন। তার প্রতি শ্রদ্ধা জ্ঞাপন ও স্মারকচিহ্ন হিসেবে ভারতীয় হাইকমিশনারের পক্ষ থেকে একটি পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। তিনি গতকাল (বৃহস্পতিবার) ৭৪ বছর বয়সে মারা যান।

হাইকমিশন জানিয়েছে, শামসুল আলম বিপুলসংখ্যক সেই মুক্তিযোদ্ধাদের মধ্যে ছিলেন, যারা ভারতীয় সৈন্যদের সঙ্গে একযোগে ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধে লড়াই করেছেন। যাদের আত্মত্যাগ ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে বন্ধুত্ব ও সংহতির ঘনিষ্ঠ বন্ধনকে অনুপ্রাণিত ও শক্তিশালী করে চলেছে।

বৃহস্পতিবার বিকালে রাজধানীর একটি হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন শামসুল আলম। শুক্রবার রাজধানীর তেজগাঁওয়ে বিমান ঘাঁটি বাশার প্যারেড গ্রাইন্ডে তার প্রথম জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। জানাজায় অংশ নেন বিমানবাহিনী ও সেনাবাহিনীর উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা।

দ্বিতীয় জানাজা বাদ জুমা রাজধানীর গুলশান আজাদ মসজিদে অনুষ্ঠিত হয়। এরপর তাকে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় বনানী কবরস্থানে দাফন করা হয়।

কিলো ফ্লাইটের যোদ্ধা শামসুল আলমের প্রতি ভারতীয় হাইকমিশনের শ্রদ্ধা

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
০৯ ডিসেম্বর ২০২২, ০৯:৩২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

মুক্তিবাহিনী কর্তৃক গঠিত যুদ্ধবিমানবিন্যাস ‘কিলো ফ্লাইট’-এর সাহসী যোদ্ধা গ্রুপ ক্যাপ্টেন (অব.) শামসুল আলম বীর উত্তমের প্রতি শ্রদ্ধা জ্ঞাপন ও পুষ্পস্তবক অর্পণ করেছে ঢাকায় ভারতীয় হাইকমিশন। 

শুক্রবার ভারতীয় হাইকমিশন থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। 

ভারতীয় হাইকমিশন বিজ্ঞপ্তিতে জানায়, চিরদিন শামসুল আলমের অভাব অনুভূত হবে, কখনো বিস্মৃত হবেন না। গ্রুপ ক্যাপ্টেন (অব.) শামসুল আলম বীর উত্তম ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় মুক্তিবাহিনী কর্তৃক গঠিত যুদ্ধবিমানবিন্যাস ‘কিলো ফ্লাইট’-এর সাহসী যোদ্ধা ছিলেন। তার প্রতি শ্রদ্ধা জ্ঞাপন ও স্মারকচিহ্ন হিসেবে ভারতীয় হাইকমিশনারের পক্ষ থেকে একটি পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। তিনি গতকাল (বৃহস্পতিবার) ৭৪ বছর বয়সে মারা যান। 

হাইকমিশন জানিয়েছে, শামসুল আলম বিপুলসংখ্যক সেই মুক্তিযোদ্ধাদের মধ্যে ছিলেন, যারা ভারতীয় সৈন্যদের সঙ্গে একযোগে ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধে লড়াই করেছেন। যাদের আত্মত্যাগ ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে বন্ধুত্ব ও সংহতির ঘনিষ্ঠ বন্ধনকে অনুপ্রাণিত ও শক্তিশালী করে চলেছে।

বৃহস্পতিবার বিকালে রাজধানীর একটি হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন শামসুল আলম। শুক্রবার রাজধানীর তেজগাঁওয়ে বিমান ঘাঁটি বাশার প্যারেড গ্রাইন্ডে তার প্রথম জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। জানাজায় অংশ নেন বিমানবাহিনী ও সেনাবাহিনীর উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা।

দ্বিতীয় জানাজা বাদ জুমা রাজধানীর গুলশান আজাদ মসজিদে অনুষ্ঠিত হয়। এরপর তাকে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় বনানী কবরস্থানে দাফন করা হয়। 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন