মঠবাড়িয়া (পিরোজপুর) প্রতিনিধি    |    
প্রকাশ : ২৮ ডিসেম্বর, ২০১৭ ০০:০০:০০ প্রিন্ট
মঠবাড়িয়ায় হত্যা মামলার আসামির হাত পা ভেঙে দিয়েছে সন্ত্রাসীরা
পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় আলোচিত ওয়ার্ড বিএনপি নেতা হাবিব তালুকদার হত্যা মামলার জামিনপ্রাপ্ত আসামি ইদ্রিস তালুকদারকে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে দুই পা ও ডান হাত ভেঙে দিয়েছে প্রতিপক্ষ। তিনি ইউপি সদস্য ও ওয়ার্ড আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক। মঙ্গলবার সন্ধ্যার পর উপজেলার তুষখালী লঞ্চঘাট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। আহত ইদ্রিস তালুকদারকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে পিরোজপুর সদর হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে খুলনা হাসপাতালে ভর্তি করে। তার অবস্থার অবনতি হলে রাতেই ঢাকা মেডিকেল কলেজে প্রেরণ করা হয়। আহতের পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, ইদ্রিস তালুকদার মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ইউনিয়ন পরিষদ থেকে মোটরসাইকেলে বাড়ি ফেরার পথে ওঁৎ পেতে থাকা প্রতিপক্ষরা অতর্কিত হামলা চালায়। এ সময় তাকে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে দু’পা ও ডান হাত ভেঙে দেয়। ধানীসাফা ইউপি চেয়ারম্যান হারুন তালুকদার অভিযোগ করেন, নিহত হাবিব তালুকদারের ছোট ভাই শাহীন তালুকদার ও তার সহযোগী খলিল মোল্লা, স্বপন তালুকদার, শাহ আলম তালুকদারের নেতৃত্বে ২৫-৩০ জনের দুর্বৃত্তদল ইদ্রিস তালুকদারের মোটরসাইকেলের গতিরোধ করে তারাই হাতুড়ি, রামদা দিয়ে পিটিয়ে ও কুপিয়ে মৃত ভেবে স্থানীয় শহিদুল তালুকদারের বাড়ির পিছনে তাকে ফেলে রেখে যায়। মঠবাড়িয়া থানার অফিসার ইনচার্জ কেএম তারিকুল ইসলাম জানান, খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে যাই। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। ৩ সেপ্টেম্বর মঠবাড়িয়া উপজেলার বুড়িরচর গ্রামের হাবিব তালুকদার নিখোঁজের দু’দিন পর তার লাশ তুষখালী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের বাথরুমের পাশে পাওয়া য়ায়। এ ঘটনায় নিহতের কলেজপড়–য়া ছেলে হাফিজুর রহমানের মঠবাড়িয়া থানায় দায়ের করা হত্যা মামলায় ইদ্রিস তালুকদার এজাহারভুক্ত ২নং আসামি। ইদ্রিস তালুকদার উচ্চ আদালতে জামিনের পর বর্তমানে নিন্ম আদালত থেকেও জামিনে রয়েছেন।



আরো পড়ুন
  • শীর্ষ খবর
  • সর্বশেষ খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Design and Developed by

© ২০০০-২০১৭ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত