যুগান্তর রিপোর্ট    |    
প্রকাশ : ০৯ আগস্ট, ২০১৬ ০০:০০:০০ প্রিন্ট
ভুয়া মুক্তিযোদ্ধা সনদে চাকরি
পুলিশের ১৯ সদস্য গ্রেফতার
অর্থ ও ভূমি আত্মসাৎ মামলায় গ্রেফতার আরও ৬
মুক্তিযোদ্ধা সনদ জালিয়াতি, প্রতারণা ও আত্মসাৎ মামলায় ১৯ পুলিশ কনস্টেবলসহ ২৫ জনকে গ্রেফতার করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। পাবনা, কুমিল্লা, নেত্রকোনা ও টাঙ্গাইল থেকে সোমবার তাদের গ্রেফতার করা হয়।
গ্রেফতারকৃতরা হলেন- ট্রেইনি রিক্রুট কনস্টেবল (টিআরসি) মো. আইয়ুব আলী (টিআরসি নং-৪৫৫), মো. কামরুল ইসলাম (২৭১), আবদুল কুদ্দুছ শেখ (৫০০), মো. আলী আব্বাছ (৫০১), মোহাম্মদ আলী (১০৫), মো. সবুজ মিয়া (১৭১), মো. আবু হানিফ (১৭০), মো. সাইফুল ইসলাম (২১৪), মো. ফেরদৌস (৯২), মো. সাইফুল ইসলাম (৫০৭), মো. হায়দার আলী (২৩০), মো. বুদ্ধি মিয়া (৩৭২), সুমন কুমার সরকার (২১৬), মো. শহিদুল ইসলাম (২৬৭), মো. আবদুল আউয়াল (৫৮২), মো. আমিরুল ইসলাম (৪১), মো. আল আমিন (৪৮৩), মো. সোহেল রানা (৩২) এবং সুমন আহম্মেদ (টিআরসি নং-৫৮)।
দুদক সূত্র জানায়, এ আসামিরা ভুয়া মুক্তিযোদ্ধা সনদ দাখিল করে মুক্তিযোদ্ধার পোষ্য কোটায় পুলিশ বিভাগের ট্রেইনি রিক্রুট কনস্টেবল (টিআরসি) পদে চাকরি নেন। বিষয়টি প্রাথমিক তদন্তে প্রমাণিত হওয়ার পর পুলিশ কর্তৃপক্ষ বাদী হয়ে ২০১৪ সালের ৬ নভেম্বর সিরাজগঞ্জ সদর থানায় মামলা করে। মামলাটি তদন্তের জন্য দুদকে আসে। তদন্ত করছেন দুদকের পাবনা সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের উপ-সহকারী পরিচালক মো. আবুল কালাম আজাদ। তদন্ত তদারক করছেন একই কার্যালয়ের উপপরিচালক মো. আবু বকর সিদ্দিক।
এদিকে বিভিন্ন মামলায় আরও ৬ জনকে গ্রেফতার করেছে দুদক। এর মধ্যে রয়েছেন এলজিইডি’র গাইবান্ধার সাবেক সোশিওলজিস্ট (আর.ই.আর.এমপি প্রকল্প) মোছা. তাজুন্নাহার। তার বিরুদ্ধে পাবনা থানায় ৭৯ লাখ ৭০ হাজার টাকা আত্মসাতের মামলা রয়েছে।
টাঙ্গাইল থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে কালিহাতী উপজেলার আবদুল কাদের মিয়া ও একই উপজেলার ইন্দুটি গ্রামের মো. শুকুর মামুদকে। এ দুই আসামিসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে কালিহাতী থানায় ইন্দুটি কোনাবাড়ী মৌজার ৪৫০ শতাংশ সরকারি ভূমি আত্মসাতের মামলা রয়েছে। এছাড়া নেত্রকোনা জেলার পূর্বধলা সাবেক ইউনিয়ন সমাজকর্মী মো. আনসার উদ্দিন, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তার কার্যালয়ের সুপার মোখলেসুর রহমান এবং কুমিল্লার সদর দক্ষিণ উপজেলা হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তার কার্যালয়ের সাবেক এসএএস মো. বিল্লাল হোসেন পাটোয়ারীকে নিজ নিজ এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গ্রেফতার হওয়া মোখলেসুর রহমান ও বিল্লাল হোসেনসহ ২২ জনের বিরুদ্ধে পেনশনারদের ১৬ কোটি ৬ লাখ টাকার বেশি অর্থ আÍসাতের অভিযোগে বুড়িচং থানায় মামলা রয়েছে।



আরো পড়ুন
  • শীর্ষ খবর
  • সর্বশেষ খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Design and Developed by

© ২০০০-২০১৭ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত