লালমনিরহাট প্রতিনিধি    |    
প্রকাশ : ১১ আগস্ট, ২০১৬ ০০:০০:০০ প্রিন্ট
প্রতিমন্ত্রীর ভাই বলে কথা
১৪ মামলার ‘পলাতক’ আসামি অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথি!
দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) মামলার এজাহারভুক্ত আসামিদের মধ্যে পিআইও (প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা) কারাগারে থাকলেও প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়াচ্ছেন লালমনিহাটের কালীগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান মাহবুবুজ্জামান আহমেদ। শুধু তাই নয়, বড় ভাই নুরুজ্জামান আহমেদ সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী হওয়ার সুবাদে তার সঙ্গেই সভা-সমাবেশে বক্তব্যও দিচ্ছেন তিনি। দুদক কর্মকর্তারা ১৪ মামলার ‘পলাতক’ আসামি মাহবুবুজ্জামানকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে বলে দাবি করলেও বাস্তবে তা ভিন্ন। কেন না, সম্প্রতি কালীগঞ্জ প্রশাসনের আয়োজনে একটি সন্ত্রাসবিরোধী মতবিনিময় সভায় বিশেষ অতিথির ভাষণ দিতে দেখা গেছে ওই আসামিকে। অবশ্য এমনটি দেখে অনেকে মুখ খুলতে নারাজ হলেও কেউ কেউ বলছেন, প্রতিমন্ত্রীর ভাই বলে কথা! বুধবার দুপুরে এ ব্যাপারে জানতে চাইলে দুদক রংপুর সমন্বিত কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক (তদন্ত) আমিরুল ইসলাম যুগান্তরকে বলেন, ‘মাহবুবুজ্জামান আহমেদকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। আর কালীগঞ্জের সাবেক প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তাকে ইতিমধ্যে গ্রেফতার করে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। এদিকে দুদক রংপুর সমন্বিত কার্যালয়ের কর্মকর্তারা প্রতিমন্ত্রীর ছোট ভাই ও কালীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মাহবুবুজ্জামান আহমেদকে গ্রেফতারের চেষ্টার কথা বললেও তা শুধু কথার কথাই থেকে যাচ্ছে। কারণ, তিনি যেমন এলাকায় দিব্যি ঘোরাফেরা করছেন- তেমনই যাচ্ছেন সরকারি প্রশাসনের অনুষ্ঠানেও। আর তাই সোমবার কালীগঞ্জ উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে ‘সন্ত্রাস রোধে জনগণের সচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে এক মতবিনিময় সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবেই যোগ দেন ১৪ মামলার আসামি মাহবুবুজ্জামান। আর সেখানে প্রধান অতিথি হিসেব বক্তব্য রাখেন সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী ও লালমনিরহাট-২ (কালীগঞ্জ-আদিতমারী) আসনের সংসদ সদস্য নুরুজ্জামান আহমেদ। ওই সভায় মাহবুবুজ্জামানের উপস্থিতির বিষয়টি স্বীকার করে কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শাহীনুর আলম সাংবাদিকদের বলেন, ‘উপজেলা চেয়ারম্যান হিসেবে মাহবুবুজ্জামান সাহেবকে বিশেষ অতিথি করা হয়। তিনি দুদকের এজাহারভুক্ত আসামি কিনা সেটি আমার জানা ছিল না।’ জানতে চাইলে কালীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও দুদকের দায়ের করা ১৪ মামলার আসামি মাহবুবুজ্জামান আহমেদ যুগান্তরকে বলেন, ‘আমাকে উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবেই মামলাগুলোতে জড়ানো হয়েছে। এর কারণ হিসেবে তিনি বলেন, প্রকল্পগুলোর যখন কাজ চলে, তখন আমি ছুটিতে ছিলাম এবং দেশের বাইরে ছিলাম।’ এরপরেও তার নামে হীন উদ্দেশেই মামলা দেয়া হয়েছে বলে দাবি কালীগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান মাহবুবুজ্জামান আহমেদের। তবে শিগগিরই মাহবুবুজ্জামান আহমেদকে গ্রেফতার করা হবে বলে জানান দুদক রংপুর সমন্বিত কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক আমিরুল ইসলাম।



আরো পড়ুন
  • শীর্ষ খবর
  • সর্বশেষ খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Design and Developed by

© ২০০০-২০১৭ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত