• বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৮
যশোর ব্যুরো    |    
প্রকাশ : ১০ নভেম্বর, ২০১৭ ০০:০০:০০ প্রিন্ট
র‌্যাব পরিচয়ে তুলে নেয়া ঝিনাইদহের এনজিও কর্মকর্তা নিখোঁজ
আট মাস আগে ঝিনাইদহের ওয়াজির আলী হাইস্কুল মাঠে মাদক ও জঙ্গিবাদবিরোধী সমাবেশে খুলনা রেঞ্জের ডিআইজি এসএম মনির-উজ-জামানের উপস্থিতিতে ৭১ মাদক বিক্রেতা ও ৮৭২ জন মাদকসেবী স্বাভাবিক জীবনে ফেরার প্রত্যয়ে আত্মসমর্পণ করেন। এদের একজন ঝিনাইদহ চাকলাপাড়া মির্জামহল এলাকার বরিউল ইসলাম রবি (৪০)। আত্মসমর্পণের পর তিনি মাদক ব্যবসা ছেড়েও দেন। স্থানীয় একটি এনজিওর চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলেন। কিন্তু আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা তাকে ভালো থাকতে দিচ্ছে না। র‌্যাবের সোর্স হিসেবে তাকে কাজে লাগাতে চায়। র‌্যাবের প্রস্তাবে তিনি রাজি নন। এরপর গত ২৫ অক্টোবর বিকালে র‌্যাব পরিচয়ে সাদা পোশাকের দুই ব্যক্তি তাকে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে গেছে। তবে তুলে নেয়ার কথা অস্বীকার করেছে র‌্যাব। বৃহস্পতিবার যশোর প্রেস ক্লাব মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলনে রবির স্ত্রী ককিলা আক্তার রানু এসব অভিযোগ করেন। লিখিত বক্তব্যে ককিলা আক্তার রানু বলেন, এক সময় তার স্বামী মাদক ব্যবসা করতেন। পুলিশের কাছে আত্মসমর্পণ করার পর ভালো হয়ে গেছেন। তিনি ঝিনাইদহের ‘রবির আলো’ নামে একটি এনজিও চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলেন। গত ২৫ অক্টোবর বিকাল ৫টায় তাদের বাড়িতে আবদুর রাজ্জাক (৪২) ও কারিম (৩৫) নামে সাদা পোশাকের দুই ব্যক্তি মোটরসাইকেলযোগে আসেন। তারা র‌্যাবের সদস্য বলে জানান। তাদের ককিলা ও তার পরিবার দীর্ঘদিন ধরে চেনেন। তারা বলেন, র‌্যাব-৬ ঝিনাইদহ ক্যাম্পের মেজর মনির জরুরি কথা বলবেন, কথা শেষে বাড়িতে পৌঁছে দেবেন। কিন্তু ককিলার স্বামী যেতে রাজি না হওয়ায় জোর করে তাকে তুলে নিয়ে যান। পরে তারা মেজর মনির সাহেবের সঙ্গে দেখা করতে গেলেও সাক্ষাৎ পাননি বলে ককিলা জানান। এরপর থেকে তার স্বামীর সন্ধান মিলছে না। নিখোঁজের ঘটনায় ঝিনাইদহ সদর থানায় সাধারণ ডায়েরি করেছেন। যার নম্বর ১৩৮৩, তারিখ ২৯ অক্টোবর ২০১৭। ককিলা আরও জানান, স্বামীর সন্ধান দাবিতে ঝিনাইদহ প্রেস ক্লাব ও জেলা রিপোর্টার্স ক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করার অনুমতি চেয়েও পাননি। এজন্য যশোর প্রেস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করছেন। স্বামীকে ফিরে পেতে সবার সহযোগিতা চান ককিলা। এ ব্যাপারে র‌্যাব-৬ ঝিনাইদহ ক্যাম্পের অধিনায়ক মেজর মনির হোসেনের সঙ্গে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি গণমাধ্যমে বক্তব্য দিতে রাজি হননি।





আরো পড়ুন
  • শীর্ষ খবর
  • সর্বশেষ খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Design and Developed by

© ২০০০-২০১৭ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত