রংপুর ব্যুরো    |    
প্রকাশ : ২৬ ডিসেম্বর, ২০১৭ ০০:০০:০০ প্রিন্ট
বেরোবিতে ভর্তি জালিয়াতি
ঘটনা তদন্তে উদাসীনতার অভিযোগ
বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে (বেরোবি) চলতি শিক্ষাবর্ষের স্নাতক শ্রেণীতে ভর্তি জালিয়াতির অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় ২ ছাত্রলীগ নেতাসহ গ্রেফতার ৮ ছাত্র রংপুর কেন্দ্রীয় কারাগারে রয়েছে। এ ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ২ শিক্ষক জড়িত থাকার অভিযোগ রয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ এ নিয়ে উদাসীন থাকায় নানা প্রশ্ন দেখা দিয়েছে।
২০১৭-১৮ সালের লিখিত ভর্তি পরীক্ষা গত ২৬ ও ২৯ নভেম্বর অনুষ্ঠিত হয়। পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে গত ১৭ ডিসেম্বর মৌখিক পরীক্ষা দিতে এসে তারা গ্রেফতার হয়। এ সময় গ্রেফতারকৃতরা জানায়, ওই জালিয়াতির সঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয়ের ২ শিক্ষক, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ২ ছাত্রলীগ নেতা ও বহিরাগত এক নারী জড়িত। গ্রেফতারকৃতরা পুলিশকে জানায়, জনপ্রতি ৩ লাখ টাকার বিনিময়ে ওই ভর্তি জালিয়াতির মাধ্যমে বেরোবিতে ভর্তির জন্য চুক্তিবদ্ধ হয় তারা। এদিকে বিশ্ববিদ্যালয় পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ (এসআই) মহিব্বুল ইসলাম মুন জানান, যাদের গ্রেফতার করা হয়েছে তাদের ভর্তি কমিটির সদস্যরা আটক করে তাদের কাছে সোপর্দ করেছে। তারা হল- ভর্তি পরীক্ষার্থী রিফাদ সরকার, সামস বিন শাহরিয়ার, সাহাদ আহমেদ, রোকসানুজ্জামান, আহসান হাবিব ও শাহরিয়ার আল সানি। এরা ভর্তির জন্য জালিয়াতির মাধ্যমে বিভিন্ন ইউনিটে লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়। পরে সাক্ষাৎকার দিতে এসে আটক হয়। এদের সঙ্গে আরও দুই বহিরাগত ছাত্রকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। যাদের গ্রেফতার করা হয়েছে তাদের নামে মামলা হয়েছে। মামলার বাদী প্রক্টর ড. আবু কালাম মো. ফরিদ উল ইসলাম। সহকারী প্রক্টর ড. শফিকুর রহমান জানান, ভর্তি জালিয়াতির ঘটনায় আটককৃতদের পুলিশ জেলহাজতে পাঠিয়েছে। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের আটক দুই ছাত্রলীগ নেতা হাসান সজল ও গোলাম মোস্তফা (মোস্তফা বিন ইসলাম) ছাত্রলীগের সঙ্গে তাদের রাজনৈতিক সম্পর্ক অস্বীকার করেছেন। তারা বলেন, তাদের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করা হয়েছে।



আরো পড়ুন
  • শীর্ষ খবর
  • সর্বশেষ খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Design and Developed by

© ২০০০-২০১৭ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত