নোয়াখালী ও ফেনী প্রতিনিধি    |    
প্রকাশ : ২৬ ডিসেম্বর, ২০১৭ ০০:০০:০০ প্রিন্ট
ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক
প্রথম ছয় লেন ফ্লাইওভার উদ্বোধন ৪ জানুয়ারি
সেতুমন্ত্রী
দেশের প্রথম ও সর্ববৃহৎ ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের ফেনীর মহিপাল ছয় লেন ফ্লাইওভার যান চলাচলের জন্য খুলে দেয়া হবে ৪ জানুয়ারি। ওই দিন গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ফ্লাইওভারটি উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। একই সঙ্গে নোয়াখালীর দুঃখ নোয়াখালী খাল পুনঃখনন ও সংস্কারকাজও উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী।
সোমবার সকালে ফ্লাইওভার পরিদর্শন শেষে সড়ক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এ কথা বলেন। মন্ত্রী বলেন, ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের এ স্থানটিতে আগে ব্যাপক যানজটে চালক ও যাত্রীদের নানা দুর্ভোগ পোহাতে হতো। এখন আর এটি থাকবে না। পাশাপাশি নিচ দিয়ে আরও ফোর লেন সড়ক যুক্ত থাকায় চট্টগ্রাম হয়ে ফেনী থেকে নোয়াখালী, লক্ষ্মীপুরমুখী যাতায়াত আরও সহজ হবে।
১৮১ কোটি ৪৮ লাখ টাকা ব্যয়ে নির্মিত ৬৬০ মিটার দীর্ঘ ফ্লাইওভারটিতে ১১টি স্পেন ও র‌্যাম্প রয়েছে ২৯০ মিটার। এরই মধ্যে ফ্লাইওভারের সম্পূর্ণ কাজ শেষ হয়েছে। সেনাবাহিনীর তত্ত্বাবধানে এর নির্মাণকাজ নির্ধারিত সময়ের ৬ মাস আগেই শেষ হয়েছে। ৪ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ফ্লাইওভারটি উদ্বোধনের পর উন্মুক্ত করে দেয়া হবে যান চলাচলের জন্য। সেতুমন্ত্রীর সঙ্গে এ সময় উপস্থিত ছিলেন- ১৯ ইঞ্জিনিয়ার কোরের মেজর জেনারেল সিদ্দিকুর রহমান সরকার, নকশার কনসালটেন্ট ড. মোহাম্মদ আজাদুর রহমান, ফেনী জেলা প্রশাসক মনোজ কুমার, পুলিশ সুপার এসএম জাহাঙ্গীর আলম সরকার, ফেনী পৌরসভার মেয়র হাজী আলাউদ্দিন, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আবদুর রহমান বিকম, আবদুল মোমেন লিমিটেডের পরিচালক আক্তার উজ্জ জামান, ফেনী পৌরসভার প্যানেল মেয়র নজরুল ইসলাম স্বপন মিয়াজী।
জেলা আওয়ামী লীগ সূত্র জানায়, ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ফ্লাইওভার আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করবেন এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের মহিপালে ফ্লাইওভারের ফলক উন্মোচন করবেন।
ফ্লাইওভারসংলগ্ন চাঁড়িপুর আলহাজ কোব্বাদ আহমদ উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে সুধী সমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে। সমাবেশে ফেনী-২ আসনের সংসদ সদস্য নিজাম উদ্দিন হাজারী, জেলা প্রশাসক মনোজ কুমার রায়, পুলিশ সুপার এসএম জাহাঙ্গীর আলম সরকারসহ প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা, রাজনীতিক ব্যক্তি, জনপ্রতিনিধিসহ বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার নেতারা উপস্থিত থাকবেন।
নোয়াখালীবাসীর দুঃখ দূর হবে খাল খননে- ওবায়দুল কাদের : সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের সোমবার দুপুরে সেনাবাহিনীর প্রকৌশল বিভাগের প্রধান জেনারেল সিদ্দিকুর রহমানকে সঙ্গে নিয়ে নোয়াখালী খাল পুনঃখননের ফলক নির্মাণের স্থান পরিদর্শন করেন। আগামী ৪ জানুয়ারি ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ‘নোয়াখালীর দুঃখ’ হিসেবে পরিচিত কবিরহাট উপজেলার ধানশালিক ইউনিয়নে অবস্থিত এ খালটির পুনঃখনন ও সংস্কারকাজ উদ্বোধন করবেন।
সেতুমন্ত্রী বলেন, এ খাল খননের মধ্য দিয়ে নোয়াখালীবাসীর দীর্ঘদিনের দুঃখ দূর হবে। সেই সঙ্গে দূর হবে জলাবদ্ধতার অভিশাপ। মন্ত্রী বলেন, এ নোয়াখালী খাল নিয়ে দীর্ঘ দিনের জলাবদ্ধতা ও সেচ সমস্যার সমাধান বিগত কোনো সরকারই করেনি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মানুষের কষ্টের কথা বিবেচনা করে নোয়াখালী খাল পুনঃখননে উদ্যোগ নেয়ায় ধন্যবাদ জানান তিনি।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন- নোয়াখালী-৪ আসনের সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক একরামুল করিম চৌধুরী, জেলা প্রশাসক মাহবুব আলম তালুকদার, কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান বাদল, কবিরহাট উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শিউলি একরাম, কবিরহাট পৌরসভার মেয়র জহিরুল হক রায়হান প্রমুখ। ৩২৪ কোটি ৯৮ লাখ টাকা ব্যয়ে সেনাবাহিনীর তত্ত্বাবধানে আগামী ২০২১ সালের জুন মাসে এ কাজ শেষ হবে।



আরো পড়ুন
  • শীর্ষ খবর
  • সর্বশেষ খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Design and Developed by

© ২০০০-২০১৭ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত