• বৃহস্পতিবার, ২১ নভেম্বর ২০১৯
সিরাজুল ইসলাম    |    
প্রকাশ : ২৮ ডিসেম্বর, ২০১৭ ০০:০০:০০ প্রিন্ট
পুলিশ সপ্তাহ শুরু ৮ জানুয়ারি
বিপিএম ও পিপিএম পাচ্ছেন দেড়শ’ সদস্য
নৈশভোজে অংশ নেবেন রাষ্ট্রপতি * পুলিশ সদস্যদের মুখোমুখি হবেন মন্ত্রীরা

৮ থেকে ১২ জানুয়ারি পর্যন্ত দেশে পুলিশ সপ্তাহ পালিত হবে। এ উপলক্ষে পুলিশ সদর দফতর ব্যাপক প্রস্তুতি নিয়েছে। সেবা, সাহসিকতা ও কর্মদক্ষতার স্বীকৃতিস্বরূপ বাংলাদেশ পুলিশের দেড় শতাধিক সদস্যকে ‘বাংলাদেশ পুলিশ পদক’ (বিপিএম) ও ‘রাষ্ট্রপতি পুলিশ পদক’ (পিপিএম) দেয়া হবে। এবারের পুলিশ সপ্তাহের মূল আকর্ষণ হলেন রাষ্ট্রপতি। আগের পুলিশ সপ্তাহগুলোতে প্রধানমন্ত্রী উপস্থিত থাকলেও রাষ্ট্রপতি কখনও থাকেননি। সুবিধা-অসুবিধা নিয়ে এবার কয়েকজন পুলিশ সদস্য সিনিয়র মন্ত্রীদের সঙ্গে সরাসরি কথা বলার সুযোগ পাবেন। এ ধরনের উদ্যোগ আগে ছিল না। পুলিশ সদর দফতরের সংশ্লিষ্ট একাধিক সূত্র যুগান্তরকে এসব তথ্য জানায়। সূত্র জানায়, এবার যারা বিপিএম ও পিপিএম পাচ্ছেন তাদের তালিকা তৈরি করেছে পুলিশ সদর দফতর। চূড়ান্ত অনুমোদনের জন্য ওই তালিকা পুলিশ সদর দফতর থেকে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। অনুমোদনের পর সেটি পুলিশ সদর দফতরে ফেরত আসবে। এরপর এ তালিকা প্রকাশ করা হবে। এ সংক্রান্ত কমিটির সদস্য সচিব এবং অতিরিক্ত ডিআইজি (ইন্টেলিজেন্স অ্যান্ড স্পেশাল অ্যাফেয়ার্স) মনিরুজ্জামান যুগান্তরকে জানান, গতবারের চেয়ে এবার পদকপ্রাপ্তদের সংখ্যা বাড়তে পারে। গত বছর বিপিএম ও পিপিএম পেয়েছিলেন ১৩২ পুলিশ সদস্য। এর আগের বছর পেয়েছিলেন ১০২ জন। অন্য একটি সূত্র জানায়, বিপিএম ও পিপিএম-এর জন্য দেড় শতাধিক নামের তালিকা মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। মন্ত্রণালয়ের সিদ্ধান্তের পর এ সংক্রান্ত চূড়ান্ত সংখ্যা জানা যাবে।

পুলিশ সদর দফতর সূত্র জানায়, পুলিশ সপ্তাহের উদ্বোধনী দিন ৮ জানুয়ারি সকালে রাজারবাগ পুলিশ লাইন মাঠে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পুলিশের প্যারেডে সালাম গ্রহণ করবেন। এদিন সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। এতে বিভিন্ন দাবি জানানোর পাশাপাশি রোহিঙ্গা ইস্যুতে প্রধানমন্ত্রীর উদ্যোগের প্রতি পুলিশের পক্ষ থেকে স্বাগত জানানো হবে। চার পৃষ্ঠার লিখিত বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রীর ভূয়সী প্রশংসা করা হবে। পুলিশ সদস্যদের হাতে পদক তুলে দেবেন প্রধানমন্ত্রী।

সূত্র জানায়, রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ প্রথমবারের মতো পুলিশ সপ্তাহে থাকার সম্মতি দিয়েছেন। প্রথম দিন রাতে পুলিশ সদস্যদের সঙ্গে নৈশভোজে তিনি অংশ নেবেন। পুলিশের শীর্ষ কর্মকর্তাদের সঙ্গে তিনি বিভিন্ন বিষয়ে কথা বলবেন। সূত্রমতে, অন্য বছর পুলিশ সপ্তাহের প্রথম দিন মন্ত্রিপরিষদ সদস্যরা প্যারেড গ্রাউন্ড থেকে ফিরে যান। তাদের সঙ্গে পুলিশ সদস্যদের মতবিনিময়ের সুযোগ থাকে না। তবে এবার ৯ জানুয়ারি পুলিশের কনভেনশন হলে অর্থমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও পরিকল্পনামন্ত্রীসহ ৫ থেকে ৬ জন সিনিয়র মন্ত্রী পুলিশ সদস্যদের সঙ্গে বিষয়ভিত্তিক মতবিনিময় করবেন। ১০ জানুয়ারি পুলিশের উচ্চপর্যায়ের একটি প্রতিনিধি দল বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে দেখা করবেন। এদিন সংশ্লিষ্ট পুলিশ সদস্যদের মধ্যে আইজিস ব্যাজ বিতরণ করা হবে। পাশাপাশি পুলিশের স্পেশাল ব্রাঞ্চ (এসবি) এবং অপরাধ তদন্ত বিভাগসহ (সিআইডি) বিভিন্ন ইউনিটের উচ্চপর্যায়ের কর্মকর্তাদের সঙ্গে আইজিপি মতবিনিময় করবেন। ১১ জানুয়ারি আইজিপির সঙ্গে মতবিনিময় করবেন মাঠপর্যায়ের পুলিশ সদস্যরা। পুলিশ সপ্তাহের শেষ দিন ১২ জানুয়ারি আইনশৃঙ্খলা সংক্রান্ত মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হবে। এদিন অফিসার মেস ও পুলিশ অফিসার বহুমুখী সমবায় সমিতির নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করবেন আইজিপি। মেস ও সমিতির নেতারা আইজিপির কাছে তাদের দাবি-দাওয়ার কথা তুলে ধরবেন বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো জানিয়েছে। জানতে চাইলে পুলিশের এআইজি (মিডিয়া) সহেলী ফেরদৌস বুধবার সন্ধ্যায় যুগান্তরকে বলেন, পুলিশ সপ্তাহ সফল করতে সব ধরনের প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। আশা করা যাচ্ছে, এবার একটি কার্যকর পুলিশ সপ্তাহ পালিত হবে।


 


আরো পড়ুন
  • শীর্ষ খবর
  • সর্বশেষ খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Design and Developed by

© ২০০০-২০১৭ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত