যুগান্তর রিপোর্ট    |    
প্রকাশ : ২৮ ডিসেম্বর, ২০১৭ ০০:০০:০০ প্রিন্ট
খালেদা জিয়া নির্বাচন বানচালের ষড়যন্ত্রে লিপ্ত
তথ্যমন্ত্রী ইনু
জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জাসদ) সভাপতি ও তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেছেন, দেশের মানুষ যখন জাতীয় নির্বাচনের প্রস্তুতি নিচ্ছে, খালেদা জিয়া তখন বানচালের ষড়যন্ত্রে লিপ্ত। নির্বাচন সামনে রেখে দুর্নীতি, বিদেশে টাকা পাচার ও এতিমের টাকা চুরির মামলা থেকে রেহাই পেতে খালেদা জিয়া আসলে দরকষাকষি শুরু করেছেন। নির্বাচন বানচাল করতে তিনি সহায়ক সরকারের প্রস্তাবনা অব্যাহত রেখেছেন। আমি পরিষ্কার বলতে চাই, নির্বাচন দুর্নীতির মামলা থেকে রেহাই পেতে দরকষাকষির বিষয় নয়। আগামী নির্বাচনে দুর্নীতিবাজরা নির্বাচন করতে পারবে না। বুধবার বিকালে রাজধানীর রমনার ইঞ্জিনিয়ার্স ইন্সটিটিউটের সামনে জাসদের বিজয় শোভাযাত্রা ও সমাবেশপূর্ব অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন।
তথ্যমন্ত্রী সামনে ৪টি বড় চ্যালেঞ্জ রয়েছে জানিয়ে বলেন, আসন্ন নির্বাচন বানচালের ষড়যন্ত্র ঠেকাতে হবে। যথাসময়ে নির্বাচন করতে হবে। রাজাকার, জঙ্গি, খালেদা জিয়া, বিএনপি এবং সাম্প্রদায়িক চক্রকে ক্ষমতার বাইরে রাখতে হবে। বর্তমান সরকারের উন্নয়ন ধারা অব্যাহত রাখতে এ সরকারকে আবারও নির্বাচিত করতে হবে। তথ্যমন্ত্রী আরও বলেন, আগামী জাতীয় নির্বাচন বানচালের লক্ষ্যেই খালেদা জিয়া কৌশলে সহায়ক সরকারের প্রস্তাব অব্যাহত রেখেছেন। যতক্ষণ খালেদা জিয়া সহায়ক সরকারের, অস্বাভাবিক সরকারের প্রস্তাব অব্যাহত রাখবেন, মনে করতে হবে, তারা নির্বাচন বানচালে উঠেপড়ে লেগেছেন। নির্বাচনে গণতন্ত্রের মুখোশ পরে খালেদা জিয়া আসলে নির্বাচন বানচাল করতে চাচ্ছেন। ২০০৮ থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত খালেদা জিয়া আগুন সন্ত্রাসের মাধ্যমে দেশের মানুষকে পুড়িয়ে মেরেছেন। খালেদা জিয়ার ইতিহাস হচ্ছে, হত্যার ইতিহাস, মানুষ পোড়ানোর ইতিহাস, জঙ্গিবাদের ইতিহাস।
তিনি বলেন, খালেদা জিয়া এখনও সামরিক শাসন, আগুন সন্ত্রাস এবং চুরির পক্ষে ওকালতি করছেন। তিনি মোটেও বদলাননি।
জাসদ সাধারণ সম্পাদক শিরিন আখতার এমপি বলেন, খালেদা জিয়া নির্বাচন চান না, নির্বাচন বানচাল করতে চাচ্ছেন। তিনি নির্বাচন সামনে রেখে জ্বালাও-পোড়াওয়ের রাজনীতি করতে চাচ্ছেন। তিনি বলেন, নির্বাচন সামনে রেখে খালেদা জিয়া-বিএনপি যদি দেশে ফের অরাজকতা করে তাহলে কঠোর হাতে দমন করতে হবে।
সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন মহানগর জাসদ সমন্বয়কারী মীর হোসাইন আখতার। বক্তব্য রাখেন, জাসদ নেতা বিশিষ্ট অভিনেতা নাদের চৌধুরী, অ্যাডভোকেট হাবিবুর রহমান সৈকত, শফিউদ্দিন মোল্লা, শহিদুল হোসেন শহীদ প্রমুখ। সমাবেশ শেষে রমনা থেকে বিজয় শোভাযাত্রাটি প্রেস ক্লাব হয়ে জিরো পয়েন্টে গিয়ে শেষ হয়।



আরো পড়ুন
  • শীর্ষ খবর
  • সর্বশেষ খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Design and Developed by

© ২০০০-২০১৭ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত