ইয়াসিন রহমান    |    
প্রকাশ : ২১ আগস্ট, ২০১৬ ০০:০০:০০ প্রিন্ট
লবণের দাম বেড়েছে বস্তায় ৬শ’ টাকা
আসন্ন কোরবানি ঈদ সামনে রেখে পশুর চামড়া সংগ্রহে প্রস্তুতি শুরু করেছে রাজধানী ঢাকার লালবাগে পোস্তার চামড়া আড়তদার ও ব্যবসায়ীরা। তবে লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে শংকা প্রকাশ করেন সংশ্লিষ্টরা।
তাদের মতে, কোরবানি উপলক্ষে ভারত থেকে গরু আসছে না। কাঁচা চামড়ায় ব্যবহৃত লবণের দামও বেড়েছে দ্বিগুণ। এসব কারণে চামড়া সংগ্রহের লক্ষ্যমাত্রা অর্জন না হওয়ার আশংকা রয়েছে। চামড়া খাতের ব্যবসায়ীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, ভারত থেকে পর্যাপ্ত গরু না এলে চামড়া সংগ্রহের এ লক্ষ্যমাত্রা পূরণ নাও হতে পারে। এ অবস্থায় সরকারের উচ্চ পর্যায় থেকে পার্শ^বর্তী দেশ ভারতের সঙ্গে আলোচনা করে সমস্যার সমাধানের আহ্বান জানান তারা। এ ছাড়া লবণের দাম বাড়াতে কাঁচা চামড়া প্রক্রিয়াজাতকরণে ব্যয় বেড়ে যাওয়ার আশংকা রয়েছে। ব্যবসায়ীরা বলছেন, কোরবানি উপলক্ষে এক শ্রেণীর ব্যবসায়ী সিন্ডিকেট করে ঈদ আসার এক মাস আগেই লবণের দাম বাড়িয়ে দিয়েছে। ঈদের আগে লবণের দাম না কমলে এর প্রভাব চামড়া খাতে এসে পড়বে। এ প্রসঙ্গে বাংলাদেশ হাইড অ্যান্ড স্কিন মার্চেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের চেয়ারম্যান হাজী মো. দেলোয়ার হোসেন যুগান্তরকে বলেন, কোরবানির পশুর চামড়া সংগ্রহে প্রস্তুত। কিন্তু ভারত থেকে গরু আমদানি না হওয়ার কারণে চামড়া ব্যবসায় একটু সমস্যা হতে পারে। মিয়ানমার ও বার্মা থেকে গরু এখনও তেমন ভাবে আসা শুরু করেনি। লক্ষ্যমাত্রা পূরণে শংকা প্রকাশ করে তিনি বলেন, এবার ৩৫ লাখ পশুর চামড়া সংগ্রহের লক্ষ্য থাকলেও তা পূরণ হওয়ার সম্ভাবনা ক্ষীণ। তবুও ৩০ থেকে ৩২ লাখ পশুর চামড়া সংগ্রহে আশা প্রকাশ করেন তিনি। তবে ভারতের সঙ্গে যদি বাংলাদেশের সরকার বা উচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তারা গরু আমদানি সম্পর্কে আলোচনা করেন তাহলে সমস্যার সমাধান হতে পারে। তিনি আরও বলেন, গত বছরের তুলনায় এ বছর লবণের দাম বাড়িয়েছে ব্যবসায়ীরা। ৫০০ থেকে ৬০০ টাকায় বিক্রি হওয়া প্রতি বস্তা (৭৫ কেজি) লবণ বর্তমানে বিক্রি হচ্ছে ১ হাজার ২০০ টাকায়। এতে চামড়া সংগ্রহের লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে ব্যবসায়ীরা শংকিত। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, গত বছর ৩০ লাখ পশুর চামড়া সংগ্রহের লক্ষ্যমাত্রা ছিল। যদিও পরে তা ছাড়িয়ে গেছে। আর ২০১৪ সালে কোরবানির ঈদেও ২৫ লাখ পশুর চামড়া সংগ্রহের লক্ষ্যমাত্রা ছিল। সে বছরও চামড়া সংগ্রহের লক্ষ্যমাত্র অর্জন হয়েছে। এবার কোরবানির ঈদকে ঘিরে ৩৫ লাখ পশুর চামড়া সংগ্রহের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। কিন্তু এ বছর চামড়া সংগ্রহের লক্ষ্যমাত্রা অর্জন না হওয়ার আশংকা রয়েছে। পোস্তার কাঁচা চামড়া ব্যবসায়ীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, দেশীয় বাজারে বর্তমানে প্রতি বর্গফুট ভালো মানের গরুর চামড়ার দাম ৮০ থেকে ৮৫ টাকা। মাঝারি মানের চামড়া ৬৫ থেকে ৭০ টাকা। আনোয়ার টেনার প্রাইভেট লিমিটেডের মালিক দিলজাহান ভূঁইয়া বলেন, প্রতি বছরই ঈদের আগে অ্যাসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে একটি দাম নির্ধারণ করা হতো। এবার তা হবে কিনা এখনও জানা যায়নি। তিনি আরও বলেন, কাঁচা চামড়ার দাম নির্ধারণ করে দিলে মৌসুমি ব্যবসায়ীরা সুযোগ খোঁজে।



আরো পড়ুন
  • শীর্ষ খবর
  • সর্বশেষ খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Design and Developed by

© ২০০০-২০১৭ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত