ইকবাল হোসেন    |    
প্রকাশ : ২৩ জুলাই, ২০১৭ ০০:০০:০০ প্রিন্ট
বিশ্বে অস্ত্র বাণিজ্য সর্বোচ্চ পর্যায়ে

গত পাঁচ বছরে বিশ্বে অস্ত্র বাণিজ্য সর্বোচ্চ পর্যায়ে পৌঁছেছে। স্নায়ুযুদ্ধ-পরবর্তী অস্ত্রের ব্যবসা সবচেয়ে চাঙা অবস্থায় রয়েছে। এশিয়া ও মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলো তাদের অস্ত্র আমদানি দ্বিগুণেরও বেশি করায় এ পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। স্টকহোম ইন্টারন্যাশনাল পিস রিসার্চ ইন্সটিটিউটের (এসআইপিআরআই) এক গবেষণা প্রতিবেদনে এসব তথ্য উঠে এসেছে।

সংস্থাটি বলছে, ২০১২ থেকে ২০১৬ সাল পর্যন্ত বিশ্বে অস্ত্র বিক্রির পরিমাণ ১৯৯০ সালের পর যে কোনো পাঁচ বছর মেয়াদের তুলনায় বেশি। ইয়েমেনে সামরিক অভিযানে নেতৃত্বদানকারী সৌদি আরব এ সময়ের মধ্যে বিশ্বের দ্বিতীয় অস্ত্র আমদানিকারক দেশে পরিণত হয়েছে। বিশ্বে মোট অস্ত্র আমদানির ক্ষেত্রে ৭ শতাংশই দেশটির দখলে। দেশটির অস্ত্র আমদানির পরিমাণ আগের তুলনায় ২১২ শতাংশ বেড়েছে। মূলত যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্য থেকে এসব অস্ত্র কিনেছে সৌদি সরকার। মধ্যপ্রাচ্য ও আরব উপসাগরীয় দেশগুলোর অস্ত্র আমদানি ১৭ শতাংশ থেকে বেড়ে গত ৫ বছরে ২৯ শতাংশে পৌঁছায়। সে তুলনায় ইউরোপ, উত্তর ও দক্ষিণ আমেরিকা এবং আফ্রিকার অস্ত্র আমদানির পরিমাণ অনেক কমেছে। অস্ত্র আমদানিতে এশিয়ার আরেক দেশ ভারত শীর্ষস্থানে রয়েছে। আঞ্চলিক প্রতিদ্বন্দ্বী চীন ও পাকিস্তানকে মোকাবিলায় দেশটি অস্ত্র আমদানির পরিমাণ আগের যে কোনো সময়ের তুলনায় বহুলাংশে বেড়েছে। বিশ্বে মোট অস্ত্র আমদানির ক্ষেত্রে ১৪ শতাংশই ভারতের দখলে। দেশটি তার সিংহভাগ অস্ত্র কিনেছে রাশিয়ার কাছ থেকে। মধ্যপ্রাচ্যের আরেক দেশ সংযুক্ত আরব আমিরাত গত পাঁচ বছরে বিশ্বের চতুর্থ অস্ত্র আমদানিকারক দেশে পরিণত হয়েছে। বিশ্বে মোট অস্ত্র আমদানির ক্ষেত্রে ৪ দশমিক ৬ শতাংশই দেশটির দখলে। চীন বিশ্বের তৃতীয় অস্ত্র আমদানিকারক দেশ। বিশ্বে মোট অস্ত্র আমদানির ক্ষেত্রে ৪ দশমিক ৭ শতাংশই দেশটির দখলে। অস্ট্রেলিয়া এ তালিকায় পঞ্চম স্থানে রয়েছে। বিশ্বে মোট অস্ত্র আমদানির ক্ষেত্রে ৩ দশমিক ৬ শতাংশই দেশটির দখলে। ভিয়েতনামের নাটকীয়ভাবেই অস্ত্র আমদানির পরিমাণ ২০২ শতাংশ বেড়েছে। এর ফলে শীর্ষ ১০ অস্ত্র আমদানিকারক দেশের তালিকায় জায়গা করে নিতে সক্ষম হয়েছে দেশটি।

শীর্ষ পাঁচ অস্ত্র রফতানিকারক দেশ : শান্তি গবেষণা প্রতিষ্ঠান সিপ্রি ইন্টারন্যাশনাল অস্ত্র বাণিজ্য নিয়ে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে, শীর্ষ পাঁচ অস্ত্র রফতানিকারক দেশ হচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র, রাশিয়া, চীন, ফ্রান্স ও জার্মানি। এই পাঁচটি দেশ বৈশ্বিক ভারি অস্ত্রশস্ত্র রফতানির প্রায় ৭৫ শতাংশ দখলে রেখেছে। তবে বিশ্বে মোট অস্ত্র রফতানির অর্ধেকেরও বেশি করেছে রাশিয়া ও যুক্তরাষ্ট্র যৌথভাবে। এ শক্তিধর দেশগুলো দুর্বল দেশের কাছে অস্ত্র বিক্রি করে আঙুল ফুলে কলা গাছ হচ্ছে। সেই তালিকায় দেখানো হয়েছে কোন দেশ কার কাছে অস্ত্র বিক্রি করছে। বিশ্বের সবচেয়ে বেশি অস্ত্র রফতানিকারক দেশ হচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র। গত পাঁচ বছরে বিশ্বজুড়ে বিক্রি হওয়ায় অস্ত্রের ৩৩ শতাংশ সরবরাহ করেছে এই দেশ। সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরাত এবং তুরস্ক তাদের রফতানি করা অস্ত্রের মূল ক্রেতা। বিশ্বের অপর সামরিক শক্তি রাশিয়ার দখলে আছে আন্তর্জাতিক অস্ত্র বাজারের ২৫ শতাংশ। দেশটিতে উৎপাদিত অস্ত্রের মূল ক্রেতা ভারত। চীন এবং ভিয়েতনামও রাশিয়ার কাছ থেকে অস্ত্র কিনছে নিয়মিত। পরিমাণের দিক থেকে যুক্তরাষ্ট্র এবং রাশিয়ার কাছাকাছি না হলেও তিন নম্বরে অবস্থান করছে চীন। বিশ্বের অস্ত্র বাজারের ৫ দশমিক ৯ শতাংশ তাদের দখলে।

ক্রেতা পাকিস্তান, বাংলাদেশ এবং মিয়ানমার। চীনের পরেই ফ্রান্সের অবস্থান। গত কয়েক বছরে বিক্রি হওয়া অস্ত্রের ৫ দশমিক ৬ শতাংশ তৈরি করেছে এই দেশ। মূলত মরক্কো, চীন এবং মিসর এই দেশ থেকে অস্ত্র আমদানি করে। জার্মানির অস্ত্র রফতানির পরিমাণ সিপ্রির হিসেবে গত দশকের তুলনায় অনেক কমেছে। বর্তমানে আন্তর্জাতিক বাজারের ৪ দশমিক ৭ শতাংশ তাদের দখলে আছে।


 


আরো পড়ুন
  • শীর্ষ খবর
  • সর্বশেষ খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Design and Developed by

© ২০০০-২০১৭ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত