প্রকাশ : ১২ নভেম্বর, ২০১৭ ০০:০০:০০ প্রিন্ট
রাশিফলে যেমন কাটবে বিপিএল
বিপিএল উন্মাদনা চলছে দেশজুড়ে। কে জিতবে, কে হারবে বলা কঠিন। দলগুলোও নিশ্চয় ভুগছে অনিশ্চয়তায়, জিততে চাই সবাই। এমতাবস্থায় সাতটি দল ও সমর্থকদের সাহায্যে এগিয়ে এসেছেন ক্রিকেট জ্যোতিষী মুহসিন ইরম

ঢাকা ডাইনামাইটস

খেলায় বিপক্ষ দলের চেয়ে ভালো খেললে জয়ের সম্ভাবনা প্রবল। ম্যাচ হেরে গেলে খেলোয়াড়দের মন কালো হয়ে যাবে। টস হারা ম্যাচেও ম্যাচ না হারতে হতে পারে। কোনো ব্যাটসম্যান ব্যাটে বল আসার আগেই সজোরে ব্যাট হাঁকালে বোল্ড কিংবা স্ট্যাম্পিং হয়ে যেতে পারে। ফাইনালে উঠতে পারলে চ্যাম্পিয়ন নইলে রানার্সআপ হওয়ার সম্ভাবনা আছে। ছক্কা হাঁকাতে পারা বল শুভ।

রংপুর রাইডার্স

দলের প্লেয়ারগণ খেলার আগের অনুশীলনে সিরিয়াস থাকতে পারে। গেম প্ল্যান বাস্তবায়ন মাঠে হঠাৎ বুমেরাং হতে পারে। খেলায় হেরে গেলে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে হতাশ না হওয়ার পরামর্শ/ তথ্য এবং নিজেদের সামর্থ্য আছে আরও ভালো করার মর্মে সান্ত্বনা এবং আশ্বাস আসতে পারে। উইনিং মুহূর্ত শুভ।

খুলনা টাইটান্স

দলে নিয়মিত বিদেশি কোটার নতুন সংযোজন অর্থাৎ পাঁচজন করে খেলানোর সুযোগ পূর্ণমাত্রায় কাজে লাগাতে পারে টিম ম্যানেজমেন্ট। অধিনায়কের সিদ্ধান্তে খেলার মাঠে বোলার এবং ফিল্ডার চেঞ্জ হবে। দল হেরে যাওয়ার ম্যাচে এ দল থেকেও একজন ম্যান অফ দ্যা ম্যাচ হতে পারে, শর্ত হচ্ছে তাকে পারফরম্যান্সে ঐদিন সবাইকে ছাড়িয়ে যেতে হবে। ছক্কা হাঁকালে সমর্থকদের উল্লাস বাড়তি প্রেরণা জোগাবে। উইকেট প্রাপ্তির মুহূর্ত শুভ।

চিটাগাং ভাইকিংস

কোনো ব্যাটসম্যান ২০ ওভার টিকে থাকলে অনায়াসে ফিফটি রান করতে পারার কথা। ফিফটি করা ব্যাটসম্যানের অন্তত একটা হলেও চারের মার থাকতে পারে। কালেভদ্রে দুয়েকটা সেঞ্চুরি হয়ে যেতেও পারে কোনো ক্রিকেটারের। এজন্য তাকে শুরু থেকেই মারকুটে এবং চড়াও হতে হবে। ড্রিংকস বিরতিতে কোনো ক্রিকেটার পানি ভেবে শরবত মুখে দিয়ে ফেলতে পারে, অবশ্য এই

ভুল পারফরম্যান্সে কোনো প্রভাব পড়বে না। অতিরিক্ত রানপ্রাপ্তি ঘটলে দলের জন্য শুভ।

কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স

দল গঠনে বোলার, ব্যাটসম্যান এবং অলরাউন্ডারের মিশ্রণ থাকবে। শুধু ব্যাটসম্যান কিংবা শুধু বোলার নিয়ে খেলতে নামার সম্ভাবনা জিরো। পেস অ্যাটাকে বোলিং ওপেন হতে পারে, অধিনায়ক কখনও স্পিনারকেও ট্রাই করতে পারেন। ওপেনিং ব্যাটিংয়ের ক্ষেত্রে দুই বিদেশি কিংবা এক বিদেশি এক দেশি নয়তো দুই দেশি ওপেন করতে পারে। জাত বোলার দিয়ে ব্যাটিং ওপেনিং করানোর চান্স নেই। ২০০+ রান দলের জন্য শুভ।

রাজশাহী কিংস

টানা দুই ম্যাচ যেমন পরাজয় সম্ভব তেমনি টানা দুই ম্যাচ জেতাও সম্ভব। ম্যাচ জেতার ক্ষেত্রে বোলারদের ভূমিকা মুখ্য না হলে ব্যাটসম্যানদের ভূমিকা মুখ্য হবে। মুখ্য অবদান যে ডিপার্টমেন্টেরই থাকুক জয় উদযাপনে সবাই সমান অংশগ্রহণ করবে। ম্যাচ জিতলে টিম বাসে করে হোটেলে ফিরতে খুনসুটি চলতে পারে। তবে ম্যাচ হেরে গেলে বাসে কিংবা হোটেলে খেলোয়াড়দের চেহারায় চিন্তার ছাপ দেখা যেতে পারে। দলটি সেমিতে না উঠতে পারলে কস্মিনকালেও ফাইনাল খেলতে পারবে না। মেডেন ওভার শুভ।

সিলেট সিক্সার্স

কোনো ম্যাচে দলের ব্যাটসম্যানের চেয়ে বোলার ভালো ব্যাটিং করে ফেলতে পারে। ম্যাচ হারলে দুই পয়েন্ট খোয়ানো লাগবে, দলটির পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে যেমন থাকার সম্ভাবনা আছে, তেমনি সম্ভাবনা আছে তলানিতে পড়ে থাকারও। পয়েন্ট টেবিলের ২, ৩, ৪, ৫, ৬ নাম্বারে থাকাটাও বিচিত্র নয়। ম্যাচ জিতলে দলের খেলোয়াড়রা মাঠে উল্লাস করতে ছুটে আসতে পারে। বিজয়ের নিদর্শনস্বরূপ নিয়ে আসতে পারে ম্যাচের স্ট্যাম্পও। তবে ম্যাচ হারলে পরাজয় খেলারই একটি পার্ট এমন বক্তব্য আসার সম্ভাবনা শতভাগ। বিপক্ষ দলকে ১০০ রানে আটকে ফেলা শুভ।


 


আরো পড়ুন
  • শীর্ষ খবর
  • সর্বশেষ খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Design and Developed by

© ২০০০-২০১৭ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত