মোহাম্মদ আতাউর রহমান    |    
প্রকাশ : ০৮ ডিসেম্বর, ২০১৭ ০০:০০:০০ প্রিন্ট
প্রশিক্ষণেই মিলবে পর্যটনশিল্পে চাকরি

বাংলাদেশে বর্তমানে ১৫ থেকে ৬৫ বছর বয়স্ক কর্মক্ষম মানুষের সংখ্যা বেশি। এদের মধ্যে নারী ও পুরুষ উভয়ই রয়েছে। বিপুল এ জনসংখ্যার অনেকেই বেকার। তারা কাজ পাচ্ছে না কিংবা বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে কাজের জন্য যে দক্ষতা দরকার তা তাদের নেই। এমন লোকজনকে কারিগরি ও প্রযুক্তিগত প্রশিক্ষণ দিয়ে কাজে লাগাতে পারলে বাংলাদেশের অর্থনীতি ঘুরে দাঁড়াবে। এমনই উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে সরকারি ও বেসরকারি পর্যায় থেকে। দ্রুত বিকাশমান হোটেল ব্যবস্থাপনা ও পর্যটন শিল্পে সক্ষমতা অর্জনেও দক্ষ জনবলের বিষয়টি গুরুত্ব পাচ্ছে।

সম্ভাবনাময় পর্যটনশিল্প

দেশের পর্যটন শিল্প দিনে দিনে বিকশিত হচ্ছে। তৈরি হচ্ছে আন্তর্জাতিক মানের হোটেল-মোটেল। বাড়ছে এ খাতে কর্মসংস্থানের সুযোগ। একইসঙ্গে প্রয়োজন হচ্ছে দক্ষ কর্মীর। অনেকেই ক্যারিয়ার গড়তে বা পেশা হিসেবে বেছে নিচ্ছেন পর্যটন শিল্পকে। ফলে বেড়েছে পেশাগত প্রশিক্ষণের সুযোগও। আর সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, পর্যটন শিল্পে প্রশিক্ষণ নিয়ে কাউকে বসে থাকতে হয় না। চাকরিদাতা প্রতিষ্ঠানগুলো হোটেল ব্যবস্থাপনা ও পর্যটনে দক্ষ জনবল খুঁজে নেয়।

কারা প্রশিক্ষণ দিচ্ছে

ইতিমধ্যে বাংলাদেশ পর্যটন কর্পোরেশনের (বিপিসি) অধীনে ন্যাশনাল হোটেল অ্যান্ড ট্যুরিজম ট্রেনিং ইন্সটিটিউট (এনএইচটিটিআই) হোটেল অ্যান্ড ট্যুরিজম বিষয়ে প্রশিক্ষণ দিচ্ছে। এমনকি এখন থেকে প্রশিক্ষণ নিলে মিলছে নিশ্চিত কর্মসংস্থান।

সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা বলছেন, দেশে-বিদেশে হোটেল, মোটেল, গেস্ট হাউস, রেস্তোরাঁ, ফাস্ট ফুড শপ, বেকারি, ট্রাভেল এজেন্সি ট্যুর অপারেটর, বিমান সংস্থাসহ পর্যটন শিল্প ও অন্যান্য সেবামূলক প্রতিষ্ঠান প্রাসঙ্গিক ক্ষেত্রে কর্মজীবন গড়ে তুলতে আগ্রহী প্রার্থীদের কাছে নিন্মবর্ণিত বিষয়ে ১৮ সপ্তাহ মেয়াদি ন্যাশনাল সার্টিফিকেট কোর্সে ভর্তির জন্য নির্ধারিত ফরমে আবেদন করতে পারবে। তারা বলছেন, শুধু দেশে নয় দেশের বাইরেও মিলছে লোভনীয় চাকরির হাতছানি। এ বিষয়ে ন্যাশনাল হোটেল অ্যান্ড ট্যুরিজম ট্রেনিং ইন্সটিটিউটের (এনএইচটিটিআই) অধ্যক্ষ পারভেজ আহমেদ চৌধুরী এক সাক্ষাৎকারে বলেন, এনএইচটিটিআই দক্ষ মানবসম্পদ তৈরিতে কাজ করছে। এখানকার শিক্ষার্থীরা এখন দেশের সীমানা ছাড়িয়ে বিভিন্ন দেশে কাজ করছে। তিনি আরও জানান, আমাদের কাছে অনেক দেশ দক্ষ কর্মী চায়। তাদের চাহিদামতো আমরা দক্ষ কর্মী দিতে পারি না। এছাড়া নতুন প্রায় ১৫টির বেশি তারকামানের হোটেল পাইপলাইনে আছে। এগুলোতেও দক্ষ জনশক্তি নেবে। কিন্তু এখাতে যারা কাজ করেন অধিকাংশ প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত নয়।

যেসব বিষয়ে প্রশিক্ষণ

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানা গেছে, হোটেল ব্যবস্থাপনা ও পর্যটন সংক্রান্ত ছয়টি বিষয়ে প্রশিক্ষণ কোর্সের আয়োজন করে থাকে বাংলাদেশ পর্যটন কর্পোরেশনের ন্যাশনাল হোটেল অ্যান্ড ট্যুরিজম ট্রেনিং ইন্সটিটিউট। এগুলো হচ্ছে-

১. ফ্রন্ট অফিস অ্যান্ড সেক্রেটারিয়াল অপারেশন্স, হোটেল, মোটেল, গেস্ট হাউস ও সেবামূলক প্রতিষ্ঠান পরিচালনার ক্ষেত্রে অভ্যর্থনা প্রণালী টেলিফোন ইত্যাদি বিষয় এ কোর্সের অন্তর্ভুক্ত।

২. ফুড অ্যান্ড বেভারেজ সার্ভিস, হোটেল, মোটেল রেস্তোরাঁ পরিচালনার ক্ষেত্রে আন্তর্জাতিক মান অনুযায়ী বিদেশি খাবার প্রস্তুতি বিষয় এ কোর্সের অন্তর্ভুক্ত। ফুড অ্যান্ড বেভারেজ সার্ভিস : খাবার তৈরি, টেবিল সাজানো, খাদ্য ও পানীয় পরিবেশন, পানীয় ও খাদ্য তালিকা তৈরি ইত্যাদি বিষয় কোর্সের অন্তর্ভুক্ত।

৩. ফুড অ্যান্ড বেভারেজ প্রোডাকশন : এই কোর্সের অন্তর্ভুক্ত বিষয়গুলো হল বাংলাদেশি, চায়নিজ, ইউরোপিয়ান, ইন্ডিয়ান খাবার তৈরি প্রণালী, ডেকোরেশন, হাইজিন অ্যান্ড স্যানিটেশন।

৪. সার্টিফিকেট কোর্স ইন হাউসকিপিং অ্যান্ড লন্ড্রি : কক্ষসজ্জা, বেড তৈরি, ক্লিনিং, লন্ড্রি সার্ভিস, হাইজিন অ্যান্ড স্যানিটেশন, ফাস্ট এইড ইত্যাদি এ কোর্সের অন্তর্ভুক্ত।

৫. বেকারি অ্যান্ড পেস্ট্রি প্রোডাকশন : এই কোর্সে শিখবেন কেক, পেস্ট্রি, ব্রেড, কুকিজ থেকে শুরু করে বিভিন্ন ধরনের ডেজার্ট আইটেম প্রস্তুত, ডেকোরেশন, হাইজিন অ্যান্ড স্যানিটেশনের মতো বিষয়গুলো।

৬. ট্রাভেল এজেন্সি অ্যান্ড ট্যুর অপারেশন : এয়ারলাইন্স, ট্রাভেল এজেন্সি ও ট্যুর অপারেটর প্রতিষ্ঠান পরিচালনার জন্য এখানে শিখবেন ট্যুর অপারেশন্স অ্যান্ড ট্যুর গাইডিং, ট্রাভেল সার্ভিস, ট্রাভেল ও কালচারাল জিওগ্রাফি বিষয়গুলো। নতুন করে পাঁচটি কোর্সের জন্য আবেদন নেয়া শুরু হয়েছে।

প্রশিক্ষণ খরচ

দুই বছরের হায়ার ডিপ্লোমা ইন হোটেল ম্যানেজমেন্ট কোর্সের খরচ দুই লাখ ১০ হাজার টাকা। এক বছরের ডিপ্লোমা ইন ট্যুরিজম ম্যানেজমেন্ট কোর্সের খরচ এক লাখ টাকা। ১০ মাসের ডিপ্লোমা প্রফেশনাল ইন ব্যাংকি কোর্স। এক বছরের কুরিয়াল আর্টস এবং ক্যাটারিং ম্যানেজমেন্ট কোর্সের খরচ এক লাখ ৫০ হাজার টাকা। এক বছর মেয়াদি প্রফেশনাল শেফ কোর্স খরচ হবে এক লাখ ২০ হাজার টাকা। এছাড়া ট্যুর গাইড অ্যান্ড ট্রাভেল এজেন্সি অপারেশন্স, ফুড অ্যান্ড বেভারেজ সার্ভিস ও বেকারি অ্যান্ড পেস্ট্রি প্রোডাকশন কোর্সে খরচ পড়বে ২৫ হাজার টাকা। ফুড অ্যান্ড বেভারেজ প্রোডাকশন ও হাউস কিপিং অ্যান্ড লন্ড্রি কোর্সে খরচ ৩০ হাজার টাকা। ফ্রন্ট অফিস সেক্রেটারিয়াল অপারেশন্স কোর্সে গুনতে হবে ২০ হাজার টাকা।

কখন আবেদন

আগ্রহীরা ডিপ্লোমা ইন হোটেল ম্যানেজমেন্ট, ডিপ্লোমা ইন ট্যুরিজম ম্যানেজমেন্ট, ডিপ্লোমা প্রফেশনাল ইন ব্যাংকি এই তিনটি কোর্সে জন্য আগামী ১০ ডিসেম্বরের মধ্যে আবেদন করতে পারবেন। ভর্তি পরীক্ষা হবে ১৮ ডিসেম্বর। কোর্স শুরু হবে আগামী ১৬ জানুয়ারি। কুরিয়াল আর্টস এবং ক্যাটারিং ম্যানেজমেন্ট, প্রফেশনাল শেফ কোর্সের জন্য ৮ আগামী ডিসেম্বর। ভর্তি পরীক্ষা হবে আগামী ২৪ ডিসেম্বর। প্রতিটি কোর্সের মেয়াদ ১৮ সপ্তাহ। পাঁচ ঘণ্টা করে সপ্তাহে পাঁচ দিন (রোববার থেকে বৃহস্পতিবার) ক্লাস হবে।

প্রশিক্ষণের বয়সসীমা ও যোগ্যতা

সর্বোচ্চ ৩৫ বছর বয়সের প্রার্থীরা আবেদন করতে পারবেন।

ফুড অ্যান্ড বেভারেজ সার্ভিস ও প্রোডাকশন, হাউস কিপিং অ্যান্ড লন্ড্রি, বেকারি অ্যান্ড পেস্ট্রি প্রোডাকশন কোর্সে আবেদনের যোগ্যতা এসএসসি পাস।

ফ্রন্ট অফিস সেক্রেটারিয়াল অপারেশন্স ও ট্যুর গাইড অ্যান্ড ট্রাভেল এজেন্সি অপারেশন্স কোর্সে আবেদনের যোগ্যতা এইচএসসি। তবে মাস্টার্স পাস।

আবেদনের নিয়ম

আবেদন ফরম ও অন্য তথ্য ৩০০ টাকার বিনিময়ে ইন্সটিটিউটের অফিসে আবেদন ফরম পাওয়া যাবে রোববার থেকে বৃহস্পতিবার সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত। আবেদন ফরমের সঙ্গে জমা দিতে হবে শিক্ষাগত যোগ্যতার সত্যায়িত সনদ, প্রশংসাপত্র এবং পাসপোর্ট আকারের দুই কপি ছবি। আবেদন প্রার্থীদের অংশ নিতে হবে ভর্তি পরীক্ষায়। এমসিকিউ এবং রচনামূলক পদ্ধতিতে মোট ১০০ নম্বরের ভর্তি পরীক্ষা হবে। নম্বর বিভাজন সাধারণ জ্ঞান ৪০, সাধারণ গণিত ২০ এবং ইংরেজি ৪০।

যোগাযোগ

ন্যাশনাল হোটেল অ্যান্ড ট্যুরিজম ট্রেনিং ইন্সটিটিউট, বাংলাদেশ পর্যটন কর্পোরেশন, ৮৩-৮৮ মহাখালী বা/এ, ঢাকা। ফোন : ৯৮৯৯২৮৯-৯১। ওয়েবসাইটেও (www.nhtti.org/notice.php) পাওয়া যাবে দরকারি তথ্য।

প্রসপেক্টাস : খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, হোটেল ব্যবস্থাপনা ও পর্যটন শিল্পে রয়েছে ব্যাপক কর্মসংস্থানের সুযোগ। তাই এ বিষয়ে যারা প্রশিক্ষণ নিয়েছে কাউকে বসে থাকতে হচ্ছে না। কোনো না কোনো জায়গায় চাকরি হয়ে যাচ্ছে। কারণ দেশে প্রচুর হোটেল মোটেল গড়ে উঠছে। পর্যটন স্পটের সংখ্যাও বাড়ছে। এগুলোতে প্রচুর দক্ষ জনবলের দরকার হচ্ছে। অনেক সময় প্রশিক্ষণ শেষে প্রশিক্ষণ দাতা প্রতিষ্ঠানও প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করে থাকে।


 


আরো পড়ুন
  • শীর্ষ খবর
  • সর্বশেষ খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Design and Developed by

© ২০০০-২০১৭ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত