জিয়াউর রহমান চৌধুরী    |    
প্রকাশ : ০৮ ডিসেম্বর, ২০১৭ ০০:০০:০০ প্রিন্ট
অন্যায়ের বিরুদ্ধে দাঁড়াতে চাই
নূরাঙ্গীর নাহিদ
বিসিএস, অনেক তরুণের কাছেই এখন স্বপ্নের শব্দ। দেশসেবা আর নিজের ক্যারিয়ার সব মিলিয়ে যেন সোনার হরিণ বিসিএস। ৩৬তম বিসিএসে ২ হাজার ৩২৩ জনকে নিয়োগের সুপারিশ করে চূড়ান্ত ফল প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ সরকারি কর্মকমিশন (বিপিএসসি)।
পুলিশ ক্যাডারে সুপারিশপ্রাপ্ত নূরাঙ্গীর নাহিদের সফলতার গল্প
শোনাচ্ছেন- জিয়াউর রহমান চৌধুরী
পুলিশের পোশাকে নিজেকে দেখতে পাবেন শিগগিরই, এ ভাবনাই এখন শিহরণ নূরাঙ্গীর নাহিদের কাছে। পুলিশিংয়ের মাধ্যমে সাধারণের সেবা করার সুযোগটা তো এখন একেবারে চোখের সামনেই। যেন হাত বাড়ালেই ছোঁয়া যাবে। বলছি, ৩৬তম বিসিএস পুলিশ ক্যাডারে উত্তীর্ণ নূরাঙ্গীর নাহিদের কথা। সংসার-সন্তান সামলে তিনি পূরণ করেছেন নিজের আর পরিবারের স্বপ্ন। একেবারে প্রথম চেষ্টাতেই। পররাষ্ট্র তার প্রথম পছন্দ হলেও পুলিশি পোশাকের প্রতি আগ্রহটা সেই ছোটবেলা থেকেই। তাই পছন্দের দ্বিতীয়তেই ছিল পুলিশ ক্যাডার। নোয়াখালীর মেয়ে নূরাঙ্গীর নাহিদের পড়াশোনার একেবারে শুরুটা শেরেবাংলা নগর বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় হয়ে মোহাম্মদপুর প্রিপারেটরি কলেজে। এরপর চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে নগর অঞ্চল ও পরিকল্পনা বিভাগ থেকে শেষ করেছেন স্নাতক। বিসিএসের জন্য কিভাবে প্রস্তুতি নিতেন? এমন প্রশ্নে নাহিদের উত্তর, ঘরে বসেই শুরুর দিকে মডেল টেস্ট দিতাম, বিভিন্ন বই পড়তাম আর নিজেকে তৈরি করতাম। প্রিলিমিনারির আগে আমার বাসায় বসেই চলছিল প্রস্তুতি। প্রিলিমিনারিতে চান্স পাওয়ার পর মূলত কোচিংয়ে সময় দিয়েছে। কোচিংয়ের বাইরে নিজেদের মধ্যে বিভিন্ন বিষয়ে গ্রুপ স্টাডি করতাম। শুরুর দিককার প্রস্তুতি ছিল এরকমই। তবে এর মধ্যেই সংসার-শ্বশুরবাড়ি সামলাতে হয়েছে। তবে, আমার সব কাজেই উনাদের সহযোগিতা ছিল ভীষণ। বিশেষ করে স্বামী প্রকৌশলী ফয়সাল চৌধুরীর আগ্রহ আর ইচ্ছে ছিল অনেক গুণ। গণিত, বিজ্ঞাণ তো আমার পড়ার বিষয় থাকায় বেশ সুবিধা হয়েছিল প্রস্তুতি নিতে। তবে, আন্তর্জাতিক বিষয়াবলি, বাংলা ইংরেজি নিয়ে একটু বেশি পরিশ্রম করতে হয়েছে। লিখিত পরীক্ষার প্রস্তুতির জন্য খুব বেশি সময় না পেলেও বারবার চেষ্টা করেছেন নূরাঙ্গীর নাহিদ। শুরুর দিকে কোনো বিষয় আত্মস্থ না করতে পারলেও একেবারেই হাল ছেড়ে দিতেন না তিনি। বার বার চেষ্টা করতেন, এক সময়ে আত্মস্থ হয়ে যেত বিষয়টা। আর মৌখিক পরীক্ষায় অন্যদের অভিজ্ঞতা থেকে নিজেকে শাণিত করেছেন, সেজন্য তেমন কোনো বই বা সিলেবাসের সাহায্য নেননি নূরাঙ্গীর নাহিদ। সাম্প্রতিক বিষয়াবলিতে নিজের দখল রাখার চেষ্টা করতেন নাহিদ। ইচ্ছে তো পূরণ হল এবার সেই ইচ্ছার ডালপালা মেলানোর পালা। পুলিশিংয়ের কাজে মানুষের পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টাটা করতে চান আজীবন। অন্যায়ের বিরুদ্ধে দাঁড়াতে চান প্রতিনিয়ত [চলবে]



আরো পড়ুন
  • শীর্ষ খবর
  • সর্বশেষ খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Design and Developed by

© ২০০০-২০১৭ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত