এম এ রহমান    |    
প্রকাশ : ০৮ ডিসেম্বর, ২০১৭ ০০:০০:০০ প্রিন্ট
প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় নেবে ১০৩ শিক্ষক
জনবল নিয়োগ দেবে প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়। মন্ত্রণালয় পরিচালিত বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সহকারী শিক্ষক ও জুনিয়র শিক্ষক পদে মোট ১০৩ জনকে নিয়োগ দেয়া হবে। এ লক্ষ্যে সম্প্রতি বিভিন্ন জাতীয় দৈনিকে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দেয়া হয়েছে। শিক্ষকতায় আগ্রহ থাকলে আপনিও আবেদন করতে পারেন। আবেদনের আগে যোগ্যতা মিলিয়ে নিতে বিজ্ঞপ্তিতে চোখ বুলিয়ে নিন একবার।
কোন কোন বিষয়ে নিয়োগ : প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ে বিভিন্ন বিষয়ে সহকারী শিক্ষক পদে ১৬ জনকে নেয়া হবে। এর মধ্যে জীববিজ্ঞান বিষয়ে ২ জন, ব্যবসায় শিক্ষায় ২, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তিতে ৪, কৃষিতে ৩, গার্হস্থ্য অর্থনীতিতে ২ ও শরীরচর্চা বিষয়ে নেয়া হবে ৩ জন। এছাড়া ধর্ম বিষয়ে ৬, শরীরচর্চা বিষয়ে ৩ এবং চারু ও কারুকলা বিষয়ে ১৪ জনসহ জুনিয়র শিক্ষক নিয়োগ পাবেন ৮৭ জন।
আবেদনের যোগ্যতা : প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, সহকারী শিক্ষক (জীববিজ্ঞান) পদে আবেদনের যোগ্যতা জীববিজ্ঞান বিষয়ে স্নাতক। বাণিজ্য বা ব্যবসায় শিক্ষায় স্নাতক হলে আবেদন করা যাবে ব্যবসায় শিক্ষা বিষয়ে। তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ের শিক্ষক হতে চাইলে কম্পিউটার বিজ্ঞান বা কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে স্নাতক অথবা বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ড থেকে কম্পিউটার সায়েন্সে তিন বছরের ডিপ্লোমা অথবা স্বীকৃত বিশ্ববিদ্যালয় হতে স্নাতক অথবা সরকার অনুমোদিত প্রতিষ্ঠান থেকে কম্পিউটার বিষয়ে ছয় মাসের প্রশিক্ষণ থাকলেও আবেদন করা যাবে। কৃষি বিষয়ে বিএসসি (কৃষি, কৃষি-অর্থনীতি, মৎস্য, পশুপালন, কৃষি প্রকৌশল, মৃত্তিকাবিজ্ঞান) অথবা ডিভিএম পাস হতে হবে। তিন বছর মেয়াদি কৃষি ডিপ্লোমা থাকলেও আবেদন করা যাবে। গার্হস্থ্য অর্থনীতি বিষয়ে আবেদনের জন্য লাগবে ন্যূনতম জিপিএ ২.৫ বা সমমানের ফলসহ স্নাতক ডিগ্রি। স্নাতক পর্যন্ত গার্হস্থ্য অর্থনীতি বা গার্হস্থ্যবিজ্ঞান পাঠ্য থাকতে হবে। শরীরচর্চা বিষয়ে লাগবে ন্যূনতম জিপিএ ২.৫ বা সমমানের ফলসহ স্নাতক ও বিপিএড ডিগ্রি। জুনিয়র শিক্ষক পদে কমপক্ষে জিপিএ ২.৫ বা সমমানের ফলসহ স্নাতক হতে হবে।
আর জুনিয়র শিক্ষক (ধর্ম) পদে আবেদনের যোগ্যতা জিপিএ ২.৫ বা সমমানসহ ফাজিল। জুনিয়র শিক্ষক (শরীরচর্চা) পদে ন্যূনতম ২.৫ জিপিএ বা সমমানের স্নাতকসহ বিপিএড পাস হতে হবে। সংশ্লিষ্ট বিষয় স্নাতক পর্যন্ত পাঠ্য থাকতে হবে। জুনিয়র শিক্ষক (চারু ও কারুকলা) পদে থাকতে হবে সংশ্লিষ্ট বিষয়ে স্নাতক ডিগ্রি। সহকারী শিক্ষক পদে আবেদনের জন্য এনটিআরসিএ নিবন্ধিত হতে হবে। উল্লেখ্য, সবগুলো পদে একটির বেশি তৃতীয় বিভাগ, শ্রেণী বা জিপিএ ২.৫-এর নিচে থাকা চলবে না।
আবেদনের বয়সসীমা : ১ জুলাই ২০১৭ তারিখে আবেদনকারীর বয়সসীমা হতে হবে ১৮ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে। তবে মুক্তিযোদ্ধা, শহীদ মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ও শারীরিক প্রতিবন্ধীদের বয়সসীমা ১৮ থেকে ৩২ বছর।
আবেদন যেভাবে : প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে (www.dmlc.gov.bd) পাওয়া যাবে চাকরির নির্ধারিত আবেদন ফরম। ফরম ডাউনলোড করে প্রয়োজনীয় সব তথ্য দিয়ে পূরণ করতে হবে। আবেদনের সঙ্গে কোনো সনদপত্র জমা দিতে হবে না। সোনালী ব্যাংকের যে কোনো শাখা থেকে সহকারী শিক্ষক পদের জন্য ৭০০ টাকা ও জুনিয়র শিক্ষক পদের জন্য ৫০০ টাকার ব্যাংক ড্রাফট/পে-অর্ডার যুক্ত করতে হবে। আবেদনপত্র পাঠানোর ঠিকানা-মহাপরিচালক, সামরিক ভূমি ও সেনানিবাস অধিদফতর, প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়, ঢাকা সেনানিবাস, ঢাকা-১২০৬।
বেতন-ভাতা : সহকারী শিক্ষক পদে বিএড কোর্স করা থাকলে ১৬০০০-৩৮৬৪০ টাকা স্কেলে, বিএড ব্যতীত ১২৫০০-৩০২৩০ টাকা স্কেলে বেতন পাওয়া যাবে। জুনিয়র শিক্ষক পদে বেতন পাবেন ১২৫০০-৩০২৩০ টাকা স্কেলে। সঙ্গে থাকবে কন্ট্রিবিউটরি প্রভিডেন্ট ফান্ড সুবিধা।
পরীক্ষা পদ্ধতি : খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, শিক্ষক পদে ১০০ নম্বরের পরীক্ষা নেয়া হয়ে থাকে। এর মধ্যে লিখিত পরীক্ষায় ৭৫ নম্বর, মৌখিক ও বিষয়ভিত্তিক পরীক্ষায় থাকে ২৫ নম্বর। ৭৫ নম্বরের লিখিত পরীক্ষায় প্রার্থীর পাঠ্য বিষয়ে (বিষয়ভিত্তিক) ২৫ নম্বর থাকে। সাধারণ জ্ঞানে ২০ এবং বাংলা ও ইংরেজিতে থাকে ১৫ নম্বর করে। একই দিনে লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষা নেয়া হয়ে থাকে।
প্রস্তুতি : লিখিত পরীক্ষায় বাংলা বিষয়ে সাহিত্য ও ব্যাকরণ অংশ থেকে প্রশ্ন করা হয়। ইংরেজি বিষয়ে ব্যাকরণ থেকে প্রশ্ন আসে। থাকতে পারে ট্রান্সলেশনও। নবম-দশম শ্রেণীর পাঠ্য থেকে প্রশ্ন করা হয়। নিজের পড়া বিষয়ে ভালো ধারণা থাকলে পরীক্ষায় ভালো করা যাবে। সাধারণ জ্ঞান বিষয়ে বাংলাদেশ ও আন্তর্জাতিক বিষয়াবলি, দৈনন্দিন বিজ্ঞান থেকে প্রশ্ন করা হয়। বাজারে বেশ কিছু প্রকাশনীর প্রস্তুতিমূলক বই পাওয়া যায়। বিগত বছরের শিক্ষক নিয়োগের প্রশ্নপত্র সমাধান করলে কাজে দেবে।



আরো পড়ুন
  • শীর্ষ খবর
  • সর্বশেষ খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Design and Developed by

© ২০০০-২০১৭ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত