যুগান্তর ডেস্ক    |    
প্রকাশ : ১১ আগস্ট, ২০১৬ ০০:০০:০০ প্রিন্ট
ভারতে ট্রেনের ছাদ কেটে ছয় কোটি রুপি চুরি
চলন্ত ট্রেনের ছাদ কেটে ভেতর থেকে ভারতের কেন্দ্রীয় ব্যাংক রিজার্ভ ব্যাংক অব ইন্ডিয়ার প্রায় ৬ কোটি রুপি চুরির ঘটনা ঘটেছে। সোমবার রাতে চেন্নাইয়ে এ দুর্ধর্ষ চুরির ঘটনা ঘটে। মঙ্গলবার ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, সালেম থেকে চেন্নাইগামী একটি ট্রেনের দুটি কামরায় মোট ২২০টি বাক্স ছিল। এসব বাক্সে সব মিলিয়ে ৩৪০ কোটি রুপি ছিল। তবে এর সবই ময়লা-ছেঁড়া-ফাটা নোট। পাশের কামরায় একজন সহকারী কমিশনারের নেতৃত্বে পুলিশ দল ছিল প্রহরায়। এত নিরাপত্তার মধ্যেও সেখান থেকে অর্থ চুরি হয়ে গেছে।
প্রতিবেদনে বলা হয়, ট্রেনটি এগমোর স্টেশনে পেঁৗঁছার পর কামরায় পুলিশ তল্লাশির জন্য ভেতরে প্রবেশ করলে চুরির বিষয়টি টের পায়। এ সময় তারা ছাদের দিকে তাকিয়ে দেখতে পান সেখানে দুই ফুট বাই দেড় ফুট একটি গর্ত কাটা রয়েছে। তল্লাশি শেষে দেখা যায়, ট্রেনের ভেতর থেকে চারটি বাক্স ভাঙা অবস্থা রয়েছে এবং একটি বাক্স পুরোপুরি গায়েব। রেলওয়ে সূত্র জানিয়েছে, প্রায় ৫ কোটি ৭৮ লাখ রুপি খোয়া গেছে।
রেল পুলিশের মহাপরিদর্শক ভি রামসুবরামনি বলেছেন, ‘কীভাবে চুরি হয়েছে সে ব্যাপারে কিছু সূত্র পাওয়া গেছে। কিন্তু তদন্তের স্বার্থে এখনই সেটা বলা যাচ্ছে না।’
পুলিশের এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, সালেম আর বৃদ্ধাচলম স্টেশনের মাঝে প্রায় ১৩৮ কিলোমিটার রেলপথের বৈদ্যুতিকরণ হয়নি। ওই পথ অতিক্রমের সময় দুষ্কৃতকারীরা গ্যাসকাটার দিয়ে ট্রেনের ছাদ কেটে থাকতে পারে। আবার এটাও ধারণা করা হচ্ছে, যারা এই কোটি রুপি হাতিয়ে নিয়েছে তারা হয়তো কামরাটি সিল করার আগেই ভেতরে লুকিয়ে ছিল, চুরির পরে ছাদ কেটে তারা পালিয়েছে।
রুপিভর্তি কামরার নিরাপত্তায় যে পুলিশ দল ছিল, তারা বলছে- প্রতিটা স্টেশনেই তারা পরীক্ষা করে দেখেছে যে তালা আর সিল ঠিক আছে কিনা। পুলিশ ছাদের দিকে নজর দেয়নি, কারণ অত শক্ত ইস্পাতের ছাদ যে চলন্ত ট্রেনে কাটা যেতে পারে, এটা তারা কল্পনাও করেনি। তবে একটা ব্যাপারে পুলিশ নিশ্চিত যেম শর্ষের মধ্যে নিশ্চয়ই ভূত ছিল। তা না হলে চোরেরা জানল কী করে কোন কামরায় রিজার্ভ ব্যাংকের নোট যাচ্ছে।



আরো পড়ুন
  • শীর্ষ খবর
  • সর্বশেষ খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Design and Developed by

© ২০০০-২০১৭ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত