বগুড়া ব্যুরো    |    
প্রকাশ : ২১ আগস্ট, ২০১৬ ০০:০০:০০ প্রিন্ট
বগুড়ায় বিপিসির এলপিজি ডিপোতে অগ্নিকাণ্ড
১৯৮টি সিলিন্ডার বিস্ফোরণ
বগুড়ার শাজাহানপুরের লিচুতলায় পদ্মা অয়েল কোম্পানির এলপিজি ডিপোতে অগ্নিকাণ্ডের পর ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা বিস্ফোরিত সিলিন্ডার -যুগান্তর

বগুড়ার শাজাহানপুরের সুজাবাদ লিচুতলা এলাকায় বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশনের (বিপিসি) পদ্মা অয়েল কোম্পানির এলপি গ্যাস ডিপোতে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। শনিবার সকালে ওই ঘটনায় ৩৭৮টি সিলিন্ডারের মধ্যে অধিকাংশই ক্ষতিগ্রস্ত হলেও ১৯৮টি বিস্ফোরণ হয়ে আশপাশের এলাকায় ছড়িয়ে ছিটিয়ে পড়ে। আগুনে মিলন নামে এক শ্রমিক সামান্য আহত হয়েছেন। গ্যাস বোঝাই একটি ট্রাক সম্পূর্ণ ও দুটি ট্রাক আংশিক ক্ষতিগ্রস্ত হয়। বগুড়া ও শেরপুর ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা এসে প্রায় দেড় ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন। ডিপোর ইন চার্জ সাখাওয়াত হোসেন এ ব্যাপারে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি। আশপাশের লোকজন ও গ্যাস পরিবেশক সমিতির কর্মকর্তারা দাবি করেন, ত্র“টিপূর্ণ সিলিন্ডার এবং লেবারদের অবহেলার কারণে এ দুর্ঘটনা ঘটে। বিকালে এ খবর পাঠানো পর্যন্ত ফায়ার সার্ভিসের ইউনিট ঘটনাস্থলে ছিল। পদ্মা অয়েল কোম্পানির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা এসে পৌঁছেননি।

পদ্মা অয়েল কোম্পানির এলপি গ্যাস ডিপোর অফিস সহকারী আশরাফুল ইসলাম জনি ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, শনিবার সকালে সিলেটের কৈলাশ টিলা থেকে একটি ট্রাকে ৩৭৮ পিস সিলিন্ডার গ্যাস আসে। বেলা সাড়ে ১১টার দিকে লেবাররা ট্রাক থেকে সিলিন্ডার ডিপোতে আনলোড করছিলেন। একটি সিলিন্ডার মাটিতে ফেলে দেয়ার পর সেটির মুখ দিয়ে গ্যাস নির্গত হতে থাকে। এ সময় অপর একটি সিলিন্ডার সেটির ওপর ফেললে ঘর্ষণে আগুন ধরে যায়। মুহূর্তের মধ্যে পুরো ট্রাকে আগুন ধরে যায়। এ সময় ১৯৮টি সিলিন্ডার বিস্ফোরিত হয়ে অন্তত ১০০ গজ দূরে উড়ে গিয়ে পড়ে। ওই কর্মকর্তা আরও জানান, ১৯৮ সিলিন্ডার বিস্ফোরিত হলেও ১৮০টি প্রায় অক্ষত পাওয়া গেছে। বগুড়া ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের ৩টি ও শেরপুরের ১টি গাড়ি দ্রুত ঘটনাস্থলে এসে প্রায় দেড় ঘণ্টা চেষ্টার পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে।


 


আরো পড়ুন
  • শীর্ষ খবর
  • সর্বশেষ খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Design and Developed by

© ২০০০-২০১৭ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত