যুগান্তর ডেস্ক    |    
প্রকাশ : ২১ আগস্ট, ২০১৬ ০০:০০:০০ প্রিন্ট
রয়টার্স/ইপসোসের জরিপ
ট্রাম্পকে আট পয়েন্টে পেছনে ফেললেন হিলারি
যুক্তরাষ্ট্রের ডেমোক্রেটিক দলের প্রার্থী হিলারি ক্লিনটনকেই ফেবারিট ভাবছেন ভোটাররা। সর্বশেষ জনমত জরিপেও রিপাবলিকান প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্পের তুলনায় হিলারির প্রতি সমর্থনের পাল্লা ভারিই থেকে যাচ্ছে। রয়টার্স-ইপসোসের করা ওই জরিপে দেখা গেছে ট্রাম্পের চেয়ে ৮ পয়েন্টে এগিয়ে আছেন হিলারি।
আগামী নভেম্বরে অনুষ্ঠিতব্য নির্বাচনের মাত্র আড়াই মাস বাকি থাকতে জরিপের এ তথ্য হিলারিকে বেশ স্বস্তি দেবে বলে রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের ধারণা। আগের নির্বাচনে বারাক ওবামা ও রিপাবলিকান প্রার্থী মিট রমনির মধ্যে সমর্থনের ব্যবধান দুই পয়েন্টেরও কম ছিল।
নির্বাচনী প্রচারের শুরু থেকেই জনমত জরিপগুলোতে ডেমোক্রেট প্রার্থী হিলারি এগিয়ে ছিলেন। রয়টার্স-ইপসোসের জরিপে সবসময়ই তার পক্ষে ৪১ থেকে ৪৪ শতাংশ সমর্থনের দেখা মিলেছে। অন্যদিকে ডোনাল্ড ট্রাম্পের সমর্থন ৩৩ থেকে ৩৯ শতাংশের মধ্যে ওঠানামা করছে। তবে তরুণদের মধ্যে হিলারি ও ট্রাম্প দু’জনেরই অবস্থান নাজুক বলে জানিয়েছে রয়টার্স। যুক্তরাষ্ট্রের ৫০টি অঙ্গরাজ্যের বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষের মধ্যে ১৪-১৮ অগাস্ট পর্যন্ত চালানো নতুন এ জরিপে দেখা গেছে, ৪২ শতাংশ ভোটার হিলারিকে ভোট দিতে আগ্রহী। ট্রাম্পের পক্ষে জনসমর্থন ৩৪ শতাংশ। জরিপে অংশ নেয়া বাকি ২৩ শতাংশ ভোটার এ দু’জনের কাউকেই ভোট দেবেন না বলে জানিয়েছেন। ‘প্রার্থীদের মধ্যে কাকে পছন্দ’- এ প্রশ্নের জবাবে জরিপে অংশ নেয়া ৪১ শতাংশ হিলারির পক্ষে অবস্থান নিয়েছেন। ৩৪ শতাংশ ভোট নিয়ে ট্রাম্প দ্বিতীয়, ৭ শতাংশের ভোট নিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী গ্যারি জনসন তৃতীয় হয়েছেন। দুই শতাংশের পছন্দের তালিকায় আছেন গ্রিন পার্টির প্রেসিডেন্ট প্রার্থী জিল স্টেইন। জরিপে দুই-তৃতীয়াংশ তরুণ জানিয়েছেন, এ দু’জনের কেউই আমেরিকান ভোটারদের উদ্বুদ্ধ করতে পারছেন না। এদের হাত ধরে দেশ ভুল পথে এগিয়ে যাবে।
পররাষ্ট্রমন্ত্রী থাকার সময় ব্যক্তিগত অ্যাকাউন্ট থেকে রাষ্ট্রীয় গোপন ই-মেইল পাঠানোর কারণে প্রশ্ন ও সমালোচনার মুখোমুখি হতে হচ্ছে হিলারিকে। অন্যদিকে অভিবাসী, মুসলমান ও নারীদের নিয়ে ‘কটাক্ষ’ ও ‘বাজে মন্তব?্য’ করায় ট্রাম্পের রাজনৈতিক জ্ঞান নিয়েও সমালোচনা চলছে।
রিপাবলিকান দলটির অনেক প্রভাবশালী নেতা ও সাবেক কংগ্রেস সদস্যরা তাদের শীর্ষ নেতৃত্বের প্রতি ট্রাম্পকে সহযোগিতা না করার আহ্বান জানিয়েছেন। ট্রাম্প তার প্রচারশিবির নিয়েও বেশ ঝামেলায় আছেন। শুক্রবার পল ম্যানাফোর্ট ট্রাম্পের প্রচার ম্যানেজারের পদ থেকে পদত্যাগ করেন। ইউক্রেনের রাশিয়াপন্থী দলের সঙ্গে ম্যানাফোর্টের সংযোগ রয়েছে এ অভিযোগ ওঠার পর ট্রাম্প নিজেও তার প্রচার দলে ব্যাপক রদবদল করেছেন।



আরো পড়ুন
  • শীর্ষ খবর
  • সর্বশেষ খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Design and Developed by

© ২০০০-২০১৭ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত