যুগান্তর ডেস্ক    |    
প্রকাশ : ২১ অক্টোবর, ২০১৭ ০০:০০:০০ প্রিন্ট
ল্যানসেটের গবেষণা প্রতিবেদন
বাংলাদেশে প্রতি চারজনে একজনের মৃত্যু হয় দূষণে
পরিবেশ দূষণে বাংলাদেশ বিশ্বে শীর্ষে * বছরে বায়ু দূষণেই মারা যায় ২ লাখের বেশি মানুষ * সারা বিশ্বে দূষণে মৃত্যু হয় ৯০ লাখ লোকের * যুদ্ধ ও সহিংসতার ১৫ গুণ বেশি মারা যায় দূষণে

বিভিন্ন ধরনের দূষণের কারণে বিশ্বে প্রতিবছর ৯০ লাখ মানুষের মৃত্যু হচ্ছে। প্রতি ছয়জনের একজনের মৃত্যু ঘটছে পরিবেশ দূষণের কারণে। এসব মৃত্যুর বেশিরভাগই ঘটছে নিম্ন ও মধ্যম আয়ের দেশগুলোয়। এসব দেশে পরিবেশ দূষণই কেড়ে নিয়েছে এক-চতুর্থাংশ মানুষের প্রাণ। পরিবেশ দূষণের ফলে জনসংখ্যা অনুপাতে মৃত্যুর হারে শীর্ষে রয়েছে বাংলাদেশ। বাংলাদেশে প্রতি চারজনে একজনের মৃত্যু হয় দূষণের কারণে। এদেশে শুধু বায়ু দূষণেই বছরে ২ লাখ ১০ হাজার মানুষ মারা যায়।  যুক্তরাজ্যভিত্তিক চিকিৎসাবিষয়ক গবেষণা সাময়িকী ল্যানসেটের সাম্প্রতিক এক গবেষণায় এসব তথ্য উঠে এসেছে। খবর বিবিসির।
গবেষণা প্রতিবেদন মতে, দূষণগুলোর মধ্যে বায়ুদূষণই সবচেয়ে বড় প্রভাব ফেলছে। দূষণে যত মানুষ মারা গেছে, তার দুই-তৃতীয়াংশই বায়ুদূষণের কারণে ঘটেছে। সুইডেন ও ব্রুনাইয়ে সবচেয়ে কম মানুষের মৃত্যু হয় দূষণে। ব্রুনাইয়ে মোট মৃত্যুর মাত্র আড়াই শতাংশের কারণ পরিবেশ দূষণ। অন্যদিকে সুইডেনে এ হার প্রায় চার শতাংশ।

দ্য ল্যানসেটের প্রতিবেদনে বলা হয়, বিশ্বে ২০১৫ সালে দূষণজনিত রোগে ভুগে প্রায় ৯০ লাখ মানুষের মৃত্যু হয়েছে। পরিবেশ দূষণ বলতে বায়ু, পানি ও মাটি এবং কর্মক্ষেত্রে দূষিত পরিবেশের কথা বলা হয়েছে। পরিবেশ দূষণজনিত কারণে মারা যাওয়া অধিকাংশই নিম্ন বা মধ্যম আয়ের দেশের বাসিন্দা। এসব দেশে প্রতি চারজনে একজন পরিবেশ দূষণজনিত রোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান। পরিবেশ দূষণের কারণে হৃদরোগ, স্ট্রোক ও ফুসফুস ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে সবচেয়ে বেশি মানুষ মারা যায়। দূষণজনিত মৃত্যুতে সবচেয়ে বড় ভূমিকা বায়ুদূষণের। প্রতিবছর বায়ুদূষণের কারণে ৬৫ লাখ মানুষের মৃত্যু হয়। গবেষকদের মতে, ৯০ লাখের অকাল মৃত্যুর এ সংখ্যা ধূমপানের কারণে মৃত্যুর চেয়ে দেড়গুণ বেশি এবং এইডস, যক্ষ্মা ও ম্যালেরিয়ায় মোট মৃত্যুর চেয়ে তিনগুণ বেশি। মৃত্যুর এ সংখ্যা যুদ্ধ বা অন্যান্য সহিংসতায় নিহতের সংখ্যার চেয়ে ১৫ গুণ বেশি। দূষণজনিত কারণে শতকরা ৯২ ভাগ মৃত্যু ঘটছে স্বল্প বা মধ্য আয়ের উন্নয়নশীল দেশগুলোয়। এর মধ্যে তালিকার শীর্ষে আছে ভারত। দেশটিতে দূষণের কারণে বছরে মারা যায় ২৫ লাখ লোক। তারপরই  রয়েছে চীন, মারা যায় ১৮ লাখ মানুষ। ১৮৮ দেশের ওপর দুই বছর ধরে গবেষণার পর এ প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়। যুক্তরাষ্ট্রে প্রতিবছর প্রায় ১ লাখ ৫৫ হাজার মানুষ দূষণজনিত কারণে মারা যায়। প্রধান গবেষক আইকন স্কুল অব মেডিসিনের অধ্যাপক ফিলিপ ল্যান্ডরিগান বলেন, ‘জলবায়ু পরিবর্তনের চেয়ে পরিবেশ দূষণ অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। এটা নানা দিক দিয়ে মানবজাতির স্বাস্থ্য ও সুস্থতার ওপর একটি গভীর ও বিস্তৃত হুমকি।’ বায়ুদূষণের পরই পানিদূষণের অবস্থান। প্রতিবছর প্রায় ১৮ লাখ মানুষ পানিদূষণজনিত রোগে ভুগে মারা যান। কর্মক্ষেত্রে দূষণ ৮ লাখ মানুষের মৃত্যুর জন্য দায়ী। বাংলাদেশে পানিদূষণের অন্যতম প্রধান কারণ আর্সেনিক। দেশটির প্রায় ৫ কোটি ৭০ লাখ মানুষ যে পানি ব্যবহার করেন, সেখানে আর্সেনিকের মাত্রা প্রতি লিটারে ৫০ মাইক্রোগ্রাম। যেখানে ডব্লিউএইচও নির্ধারিত সর্বোচ্চ সহনীয় মাত্রা প্রতি লিটার ১০ মাইক্রোগ্রাম।

 


আরো পড়ুন
  • শীর্ষ খবর
  • সর্বশেষ খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Design and Developed by

© ২০০০-২০১৭ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত