• শুক্রবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০
ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি    |    
প্রকাশ : ২১ আগস্ট, ২০১৬ ০০:০০:০০ প্রিন্ট
মোস্তাকিমের স্বীকারোক্তি
নবীনগরে বলাৎকারের চেষ্টা করায় রাহাতকে হত্যা
নবীনগরের ব্রাহ্মণহাতা গ্রামে বলাৎকারের চেষ্টা করায় বন্ধু রাহাতকে হত্যা করে ৮ম শ্রেণীর ছাত্র মোস্তাকিম। শনিবার বিকালে মোস্তাকিম ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। বিচারক ফারজানা আহমেদ এ জবানবন্দি নেন। এর আগে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই রেজাউল করিম আদালতে মোস্তাকিমকে হাজির করেন। মোস্তাকিম নবীনগর উপজেলার ব্রাহ্মণহাতা গ্রামের মোল্লা বাড়ির মিজানুর রহমানের ছেলে এবং পার্শ্ববর্তী ধনাশী উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণীর ছাত্র। রাহাতও এক ক্লাসের ছাত্র। শুক্রবার মধ্যরাতে রাহাতের বাবা খাদিম মিয়া নবীনগর থানায় মোস্তাকিম ও তার মা মহিনা বেগমকে আসামি করে হত্যা মামলা দায়ের করেন।
পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ওই গ্রামের খাদিম মিয়ার ছেলে রাহাত ও মিজানুর রহমানের ছেলে মোস্তাকিম ঘনিষ্ঠ বন্ধু। রাহাত প্রায়ই মোস্তাকিমের বাড়িতে রাত কাটাত। বৃহস্পতিবার রাত ১০টার দিকে রাহাত মোস্তাকিমের বাড়িতে ঘুমাতে যায়। শুক্রবার সকাল ৭টায় সে বাড়ি না ফেরায় তার মা জুলেখা বেগম তার ছোট ভাইকে মোস্তাকিমের বাড়িতে পাঠায়। কিন্তু মোস্তাকিমের মা মহিনা বেগম জানান, রাহাত চলে গেছে। পরে রাহাতের মোবাইল বন্ধ পেলে মা জুলেখা মোস্তাকিমের বাড়িতে যান। দক্ষিণ ভিটের ঘরে গিয়ে রক্ত ও প্রস্রাবের আলামত দেখে চিৎকার দেন। স্থানীয় ইউপি সদস্য লিলি বেগমও ঘটনাস্থলে গিয়ে বিষয়টি দেখেন। পরে গ্রাম কমিটির সভাপতি নুরুল ইসলাম ও ফিরোজ মেম্বারসহ অনেকে মোস্তাকিমের বাড়িতে গিয়ে রক্ত ও প্রস্রাবের আলামত দেখতে পান।



আরো পড়ুন
  • শীর্ষ খবর
  • সর্বশেষ খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Design and Developed by

© ২০০০-২০১৭ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত