যশোর ব্যুরো    |    
প্রকাশ : ২১ অক্টোবর, ২০১৭ ০০:০০:০০ প্রিন্ট
যশোরে নারীর গলাকাটা লাশ উদ্ধার
পার্বতীকে পূজা দেখাতে নিয়ে যায় নিরব
যশোরে পার্বতী রায় (২৪) নামে এক নারীর গলাকাটা লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। শুক্রবার বেলা ১১টায় সদর উপজেলায় পতেঙ্গালি-মালঞ্চি গ্রামের মধ্যবর্তী রাস্তা থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়। তার ৭ বছরের একটি ছেলে রয়েছে। স্বামী মহিতোষ ভারতে থাকায় বাবা-মায়ের সঙ্গে যশোর শহরে থাকতেন তিনি। স্বামীর অনুপস্থিতিতে নিরব ওরফে রা?ব্বি নামে এক যুবকের সঙ্গে প্রেমে জড়িয়ে পড়েন পার্বতী রায়। তারা বিয়ের সম্পর্কে আবদ্ধ হয়েছেন বলেও এলকায় গুঞ্জন রয়েছে। রাব্বি যশোর সদরের মাজদিয়া এলাকার সিরাজুল ইসলা?মের ছেলে। পার্বতী মনিরামপুর উপজেলার শ্যামকুড় গ্রামের অধীর রায়ের মেয়ে। তার মা যমুনা রায় শহরের কুইন্স হাসপাতালে চাকরি করেন। তারা যশোর শহরের আরএন রোড এলাকার নতুন বাজারে মতিয়া?রের বা?ড়ির ভাড়াটে। হত্যাকাণ্ডের পর থেকে নিরব পলাতক রয়েছে। অধীর রায় জানান, বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৮টায় পার্বতীকে নিরব ওরফে রাব্বি দীপাবলিতে পূজা দেখাতে নিয়ে যেতে চায়। এরপর তাকে শহরের সুধীর বাবুর কাঠগোলার মোড় থেকে মোটরসাইকেলে নিয়ে যায়। আজ শুক্রবার দুপুরে পুলিশ খবর দিলে মর্গে গিয়ে মেয়ের লাশ দেখি। যশোর কোতোয়ালি থানা জানায়, পতেঙ্গালি-মালঞ্চি রাস্তার মধ্যবর্তী মুসার বান্দালে নারীর লাশ পড়ে থাকার খবর আসে। পুলিশ ইটের সলিংয়ের ওপর ওই নারীর গলাকাটা লাশ উদ্ধার করে। পুলিশ লাশটি উদ্ধার করে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। যুবক নিরবকে খুঁজছে পুলিশ। পার্বতীকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়েছে কিনা তা ময়নাতদন্ত রিপোর্ট পাওয়ার পর নিশ্চিত হওয়া যাবে। পার্বতী হত্যার ঘটনায় শুক্রবার সন্ধ্যা পর্যন্ত কোনো মামলা বা কেউ আটক হয়নি।



আরো পড়ুন
  • শীর্ষ খবর
  • সর্বশেষ খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Design and Developed by

© ২০০০-২০১৭ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত