প্রকাশ : ২৪ জানুয়ারি, ২০১৬ ০০:০০:০০ প্রিন্ট
বিচিত্র
পানামা খালের জানা অজানা : পর্ব ১

পানামা খাল। দুই মহাসাগরের যোগসূত্র। জাহাজ চলাচলের জন্য পানামা প্রজাতন্ত্রের এক লাখ বিশ হাজার একর জমির উপর দিয়ে নির্মিত একটি খাল যা আটলান্টিক ও প্রশান্ত মহাসাগরকে যুক্ত করেছে। পানামা যোজক এমন একটি গুরুত্বপূর্ণ কৃত্রিম সামুদ্রিক পথ যার আন্তর্জাতিক রাজনৈতিক গুরুত্ব অপরিসীম। খালটির পরিচালক পানামা প্রজাতন্ত্র। খালটির দৈর্ঘ্য ৬৫ কিলোমিটার কিন্তু আটলান্টিক অর্থাৎ ক্যারিবীয় সাগরের গভীর জল থেকে প্রশান্তের গভীর জল পর্যন্ত হিসাব করলে ৮২ কিলোমিটার। খালটির গভীরতা ৪১ ফুট। পৃথিবীর দুই কৃত্রিম খালের একটি সুয়েজ খাল ও অন্যটি এই পানামা খাল। তবে পানামার মর্যাদা সুয়েজ খাল থেকে একটু বেশিই। পানামা খাল না থাকলে যুক্তরাষ্ট্রের পূর্ব থেকে পশ্চিম উপকূল অভিমুখে যাত্রাকারী যে কোনো জাহাজকে দক্ষিণ আমেরিকার কেইপ হর্ন হয়ে যাওয়ার মাধ্যমে অতিরিক্ত ১৫ হাজার কিলোমিটার পথ অতিক্রম করতে হতো। এছাড়া উত্তর আমেরিকার এক উপকূল থেকে দক্ষিণ আমেরিকার অন্য উপকূলে যাওয়ার ক্ষেত্রেও পানামা খালের কারণে ৬৫০০ কিলোমিটার কম পথ পাড়ি দিতে হয়। ইউরোপ এবং পূর্ব এশিয়া ও অস্ট্রেলিয়ার মধ্যে যাতায়াতকারী জাহাজেরও প্রায় ৩৫০০ কিলোমিটার পথ বেঁচে যায় এই শর্টকাট রাস্তা দিয়ে। এককথায় পানামা যোজক বিশ্বের অন্যতম বাণিজ্যিক নৌ-রুট। এমন গুরুত্বপূর্ণ পথটি তৈরির ইতিহাসে রয়েছে অনেক অনেক ক্ষত, ত্যাগ, মৃত্যু আর লোভ-লালসা। পানামার ইতিহাস শতাব্দি পুরোনো মনে করা হলেও তা আরও অনেক আগে শুরু হয়েছিল। পানামা খাল খনন হয় ১৯০৪ সালে ও শেষ হয় ১৯১৪ সালে কিন্তু এর ইতিহাস আরও সমৃদ্ধ। স্প্যানিশ অভিযাত্রী ভাস্কো নুয়েঞ্জ ডি বালবোয়াই প্রথম ইউরোপীয়, যিনি আটলান্টিক ও প্রশান্ত মহাসাগরের এ সম্মিলনের কথা বলেছিলেন। সে সময়ের স্প্যানিশ রাজা বালবোয়াইয়ের এ ধারণাকে উড়িয়ে দেন। তবে ১৫৩৪ সালে অপর রাজা চার্লস পঞ্চম প্রস্তাবটি যাচাইয়ে একটি কমিটি গঠন করেন। কমিটি তদন্ত করে জানায় একটি জাহাজ প্রবেশ করতে পারে এমন খাল ওই স্থানে খনন করা অসম্ভব। এরপর সময় কেটে যায় শতাব্দির পর শতাব্দি। পানামা খাল আর খনন করা যায়নি। আঠারো শতকের শেষের দিকে এ পথটিতে ফ্রান্স ও যুক্তরাষ্ট্রের চোখ পড়ে। মূলত যুক্তরাষ্ট্রের কঠিন হস্তক্ষেপেই তৈরি হয়েছে পানামা। যুক্তরাষ্ট্রের প্রথমে খালটি নিকারাগুয়া দিয়ে করার ইচ্ছা ছিল। কিন্তু নিকারাগুয়ার রাজনৈতিক অসন্তোষ ও ফরাসি প্রকৌশলী ফিলিপ বোনাও ভারিল্লার চেষ্টায় যুক্তরাষ্ট্র এ খাল পানামা দিয়ে করার সিদ্ধান্ত নেয়। প্রথমে দুই সাগরকে এভাবে এক করাটা একেবারেই অসম্ভব ছিল। এর মূল কারণ পানির উচ্চতার তারতম্য। খালটি দুই সমুদ্র সমতল হতে ৮৫ ফুট উঁচুতে অবস্থিত। ঠিক এ কারণেই পনেরো শতকে পানামা খাল তৈরি করা সম্ভব হয়নি। ১৮৮১ সালে খালটি খনন শুরু করে ফ্রান্স। প্রকৌশলগত ত্র“টির কারণে আবারও ব্যর্থ হয় কাজ। এরপর যুক্তরাষ্ট্র সরকার এটি নিয়ে কলম্বিয়া সরকারের সঙ্গে বোঝাপড়া করার চেষ্টা চালায়। যুক্তরাষ্ট্রের বাণিজ্যিক ও সামরিক নৌজাহাজগুলো সহজে আটলান্টিক থেকে প্রশান্ত মহাসাগরে নেয়ার জন্য খাল খননের প্রস্তাব সরাসরি প্রত্যাখ্যান করে কলম্বিয়া সরকার। আর এ প্রত্যাখ্যানের পরই মূলত যুক্তরাষ্ট্রের কুটনৈতিক চালে একটি কথিত অভ্যুত্থান ঘটে এবং ১৯০৩ সালে জন্ম হয় পানামা নামের স্বাধীন রাষ্ট্রের।

খাল খননে আর বিন্দুমাত্র বেগ পেতে হয়নি যুক্তরাষ্ট্রের। পানামা-যুক্তরাষ্ট্র চুক্তি হয় এবং যুক্তরাষ্ট্র সরকার ১৯০৪ সালে খালটি পুনরায় খনন শুরু করে। শুরুর দিকে বেশ কয়েকটি পরীক্ষা ব্যর্থ হয়। ভারি বর্ষণ, আর্দ্রতা ও স্থানীয় বিভিন্ন রোগ ছিল খাল খননের অন্যতম প্রতিবন্ধক। এর আগেও স্পেন খাল খনন শুরু করলে নানা কারণে বিশ হাজার শ্রমিক দুর্ঘটনা ও মশার কামড়ে হলুদ জ্বর হয়ে মারা গেলে খনন বন্ধ রাখা হয়। যুক্তরাষ্ট্র তার কারিগরি সক্ষমতা দিয়ে শ্রমিক মৃত্যুর সংখ্যা কমিয়ে আনে। তারপরও পাঁচ হাজার ছয়শ শ্রমিক মারা যায়। তৈরি হয় সভ্যতার অনন্য মাপকাঠি পানামা যোজক। পানামা খাল সংকীর্ণ আর অগভীর হওয়ায় যে কোনো জাহাজকেই এ খাল অতিক্রম করতে অনেকটা সময় ব্যয় করতে হয়। ৭৭.১ কিলোমিটার পথ অতিক্রম করতে লেগে যায় ১৫ ঘণ্টা। তাই ২০০৭ সালে সম্প্রসারণের অংশ হিসেবে ৫.২ বিলিয়ন ডলারের এক প্রকল্প নেয়া হয়। বর্তমানে একটির বদলে পাশাপাশি দুটি জাহাজ চলতে পারে।

সাঈদ আল হাসান শিমুল


 


আরো পড়ুন
  • শীর্ষ খবর
  • সর্বশেষ খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Design and Developed by

© ২০০০-২০১৭ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত