কাপাসিয়া প্রতিনিধি    |    
প্রকাশ : ২৭ ডিসেম্বর, ২০১৭ ২১:৩২:৫৭ প্রিন্ট
খুনের ৭ দিন পর ছিন্ন মাথা উদ্ধার
গাজীপুরের কাপাসিয়ায় খুনের ৭ দিন পর মঙ্গলবার রাতে ছিন্ন মাথা উদ্ধার করেছে পুলিশ। খুনের সঙ্গে জড়িত রাকিব মিয়ার স্বীকারোক্তিতে ১৯ তারিখ নিখোঁজ হওয়া অটো চালক মাফিজুর রহমানের ছিন্ন মাথা উদ্ধার করা হয়।
গ্রেফতারকৃত রাকিব জানায়, কড়িহাতা তরুণ গ্রামের ডাকাত ইসমাইল তার সঙ্গে পূর্বপরিকল্পনা করে একটি অটো ছিনতাই করার জন্য। এজন্য ইসমাইল রাকিবের সঙ্গে ৫ হাজার টাকার চুক্তি করে। এরই প্রেক্ষিতে ১৯ ডিসেম্বর রাতে রাকিব তার উপজেলা সদরের ভাড়াবাসা থেকে লেপ তোষক নেয়ার জন্য তার পূর্বপরিচিত অটোচালক মফিজুরকে ভাড়া করে। এ সময় তার সঙ্গে শামীম নামে আরেক অটোরিক্সা চালকসহ তাকে রাকিবের বাড়ি কড়িহাতা গ্রামের তরুণ গ্রামে নিয়ে যায়। তার মালামাল নামানো শেষ হলে কৌশলে রাকিবের অন্যান্য সহযোগী ইসমাইল, আক্রাম ও শামীম তাকে পাশের জঙ্গলে নিয়ে যায়। হঠাৎ করেই রাকিব, আক্রাম ও শামীম তার হাত-পা ধরে এবং ইসমাইল তাকে জবাই করে দেহ থেকে মাখা বিচ্ছিন্ন করে ফেলে। দেহটি গভীর জঙ্গলে ফেলে রাখে। লাশ যাতে কেউ চিনতে না পারে সেজন্য ঘাতকরা মাথা অন্যত্র লুকিয়ে রাখে। পরে রাকিবের তথ্যের ভিত্তিতে বেপারি বাড়ি এলাকার সরদার টেকের জঙ্গলের পুকুর পাড়ে দেড় ফুট মাটির নিচ থেকে ওই মাথা উদ্ধার করে পুলিশ।
মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও কাপাসিয়া থানার ওসি মনিরুজ্জামান জানান, ময়না তদন্তের জন্য মাথাটি গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। মামলার রহস্য উদঘাটিত হয়েছে, বাকী আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। 
উল্লেখ্য, ১৯ ডিসেম্বর বিকালে মফিজুর রহমান অটোরিক্সাসহ নিঁখোজ হন। পরদিন ২০ ডিসেম্বর কড়িহাতা ইউনিয়নের তরুন পশ্চিম পাড়া খালেকের টেকের জঙ্গল থেকে মাথা বিহীন মাফিজুরের লাশ উদ্ধার করেছিল পুলিশ।


আরো পড়ুন
  • শীর্ষ খবর
  • সর্বশেষ খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Design and Developed by

© ২০০০-২০১৭ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত