অনলাইন ডেস্ক    |    
প্রকাশ : ২৪ ডিসেম্বর, ২০১৭ ১৫:৩২:৪১ প্রিন্ট
অতিরিক্ত টিভি দেখা ডেকে আনতে পারে পুরুষের বন্ধাত্ব্য: গবেষণা
প্রতীকী ছবি

অতিরিক্ত টিভি দেখা ডেকে আনতে পারে পুরুষের বন্ধাত্ব্য! সাম্প্রতিক আমেরিকান জার্নাল অফ এপিডেমিওলজিতে প্রকাশিত এক গবেষণাপত্র এমন একটি বার্তা প্রকাশ করেছে। খবর ডেইলী মেইলের।

গবেষণায় বলা হয়েছে, যেসব পুরুষ প্রতিদিন পাঁচ ঘণ্টার বেশি টিভি দেখেন আর টিভি দেখার সময় চিপস, বার্গার ধরণের জাঙ্ক ফুড খান তাদের স্পার্ম কাউন্ট ৩৭ শতাংশ পর্যন্ত কমে যায়।

গবেষণায় ১৮ থেকে ২২ বছর বয়সি ১২০০ জন সুস্থ্য যুবকের সিমেন নেওয়া হয়। সেগুলোর ল্যাব টেস্টে দেখা গেছে, এসব যুবকদের মধ্যে যারা কম টিভি দেখে তাদের প্রতি মিলিমিটার সিমেনে উর্বর শুক্রাণুর পরিমান ৫২ মিলিয়ন।

এসব শুক্রাণু অনেক সতেজ কর্মক্ষম। আর যারা টিভি দেখেই বেশি সময় কাটান তাদের প্রতি মিলিমিটারে এর পরিমাণ ৩৭ মিলিয়ন।

গবেষকরা বলেন, বসে থাকা যুবকদের শুক্রাণু তৈরিতে সাহায্যকারী টেস্টোস্টেরন হরমন নির্গমণের পরিমানও কম। এছাড়াও তাদের এসব দুর্বল স্পার্ম মরে গিয়ে পুরষের বন্ধ্যাত্বের সমস্যা দেখা দেয়।

গবেষণায় স্পার্ম বিশেষজ্ঞদের ব্যাখ্যায় বলা হয়েছে, ঘরে একটানা বসে টিভি দেখায় শরীরে আলসেমি ভর করে। চলাফেরা বা কাজে গতি কমে যায়।

একইসঙ্গে  অনেকের টিভি দেখতে দেখতে হাই-ক্যালোরির জাঙ্ক ফুড খাওয়ার অভ্যাস আছে। এসব খাবারে কৃত্রিম রঙ, চর্বি, লবণ, কার্বনেট ইত্যাদি ক্ষতিকারক দ্রব্যের আধিক্য থাকে যা গ্রহণ করা স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকারক।

এই দুইয়ের ক্ষতিকর শুক্রাণুর পরিণত হতে বাধা দেয়। ক্ষতিগ্রস্থ হয় শুক্রাণুর প্রোটিন। কর্মক্ষমতা হারায় শুক্রাণু।

পক্ষান্তরে, যেসব পুরুষ দিনে ১৫ ঘণ্টা শারীরিকভাবে সক্রিয়, তাদের ক্ষেত্রে স্পার্ম কাউন্ট শারীরিকভাবে নিষ্ক্রিয়দের থেকে তিন-চতুর্থাংশ বেশি হয়।

এ গবেষণায় আরও বলা হয়েছে, দীর্ঘসময় টিভি দেখার ফলে ফুসফুসে রক্ত জমাট বাঁধার সম্ভাবনা ৪৫ শতাংশ বেশি।

টিভি নয় আলসেমিকে দায়ি করে দিল্লির ইন্দিরা আইভিএফ হাসপাতালের এক্সপার্ট সাগরিকা আগরওয়াল বলেন, ‘বর্তমান প্রজন্মের বিশেষ করে ছেলেদের ছোটো থেকেই বাইরে খেলাধুলো করার প্রবণতা অনেক কম।

তিনি বলেন, দৈহিক পরিশ্রম কম হওয়ার ফলে তাদের স্পার্ম মরে যাওয়ার একটা সম্ভাবনা দেখা যায়। অনেক সময় স্পার্ম দুর্বলও হয়ে পড়ে। যার জন্য তাদের বন্ধ্যাত্বের সমস্যা দেখা যায়।


আরো পড়ুন
  • শীর্ষ খবর
  • সর্বশেষ খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Design and Developed by

© ২০০০-২০১৭ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত