প্রিন্ট সংস্করণ    |    
প্রকাশ : ২৬ ডিসেম্বর, ২০১৭ ১০:০৪:৩৬ প্রিন্ট
ব্রাইডাল সু আর পার্স

ভালোবাসার সম্পূর্ণ অর্থ কিংবা একটি পূর্ণ রূপ হচ্ছে বিয়ে। হাজারও স্বপ্ন চোখের কোণে আর একজন মানুষের ওপর সারা জীবনের নির্ভরতা আর সারা জীবন কাটানোর একটি যাত্রাপথের নাম এ বিয়ে।

মানুষের এ জীবনের অনেক বড় একটি অংশ কিংবা অধ্যায় হচ্ছে এ মধুর দিনটি। যেদিন একজন মেয়ে তার জীবনের বাকি অর্ধেক পূর্ণতাকে পূরণ করতে চলে। তাই বিয়ের এ দিনটিকে ঘিরে কনের থাকে অনেক কল্পনা আর সাজের ক্ষেত্রে নিজেকে আলাদাভাবে উপস্থাপন করার সম্পূর্ণ ইচ্ছা। প্রিয় মানুষের চোখে নিজেকে ঠিক স্বপ্নের মতো করে দেখতেই এত শত প্রস্তুতি।

তাই তো বিয়ের অনেক আগে থেকে পছন্দের জিনিস খুঁজে বের করতে শুরু হয় তোড়জোড়। বিয়েতে সাজের যেমন একটি বড় ভূমিকা থাকে, তেমনি থাকে আনুষঙ্গিক জিনিস পত্রেরও।

কনের সঙ্গে থাকা ব্রাইডাল ব্যাগ আর সু তার মধ্যে অন্যতম। কনের পোশাক যতই সুন্দর হোক তার সঙ্গে মিলিয়ে সু আর ব্যাগ পাওয়া না গেলে কিংবা বিয়ের আসরে তার অনুপস্থিত থাকলে তা যেন সবার দৃষ্টি কাড়ে চোখের পলকেই।

মূলত কনের সঙ্গে থাকা পার্স ব্যাগ আর সু দেখেই যেন মনে হয় এটি কেবল তার জন্যই সৃষ্টি, এমন ইচ্ছাই থাকে সবার। বিয়ের ক্ষেত্রে কনে যেমন পার্স ব্যাগ ব্যবহার করতে পারেন, ঠিক তেমনি পারেন বাটুয়া ব্যবহার করতেও। কনের সঙ্গে অনেক সময় অল্প-স্বল্প জিনিস যেমন মোবাইল ফোন, টিস্যু কাছে রাখতে হয়ে আর হাতের মুঠোয় পুরে রাখা দেখতে একদম বেমানান।

সেক্ষেত্রে এ পার্স ব্যাগ বা বাটুয়ে যেমন ফ্যাশনেবল, তেমনি আপনার সঙ্গে মানিয়ে যায় খুব সহজে। বাটুয়ে দেখতে চারকোণা আর একটু লম্বা আকৃতির হয়ে থাকে।

অনেক ক্ষেত্রে কিছুটা বক্সের মতো হয়ে থাকে। এতে রেশমি, জামদানি আর কাতান কাপড়ের ব্যবহার অনেক বেশি হয়ে থাকে। তাতে কাচ, পুঁতিদানার ব্যবহার আর হাতের কাজের ব্যবহার তো আছেই। আর পার্সের ক্ষেত্রে মেটালের ব্যবহার আর স্টোনের তৈরিগুলোই চোখে পড়ে সবার আগে। এসব পার্সের ক্ষেত্রে সোনালি, রুপালি, লাল রঙের ওপর কাজের দেখা বেশি মিলে।

আর বাটুয়ার ক্ষেত্রে বেগুনি, নীল, আসমানি রঙ কনের যে কোনো রঙের পোশাকের সঙ্গে মানানসই। বাটুয়া আর পার্সের সঙ্গে আছে কনের সু। বিয়ের ক্ষেত্রে হিল আর স্টোনের কাজ করা সু কনের পছন্দের তালিকায় শীর্ষে থাকে। এসব সু’তে পুঁতি ক্রিস্টানের কাজের ব্যবহার সবচেয়ে বেশি। এসব সু লাল, সোনালি, রুপালি, গাঢ় নীল আর ভেলভেটের কাপড়েও হয়ে থাকে। এসব সু পায়ের সামনের দিক সরু আর পেছনের দিক তুলনামূলক প্রশস্ত আর চ্যাপটা হয়ে থাকে।

কোথায় পাবেন : যমুনা ফিউচার পার্ক, বসুন্ধরা সিটি, চাঁদনী চক, মৌচাক আর নিউমার্কেটে পাবেন আপনার পছন্দের ব্রাইডাল সু আর পার্স।

দাম : পার্স ব্যাগের দাম পড়বে ১ হাজার ৮৫০ থেকে শুরু করে ৮ হাজার টাকা। বাটুয়া পড়বে ২ হাজার থেকে ৭ হাজার টাকা। আর ব্রাইডাল সু পড়বে ২ হাজার ২৫০ থেকে শুরু করে ৫ হাজার টাকা পর্যন্ত।

কৃতজ্ঞতা আমিন’স ও ট্রাস্টমার্ট আলোকচিত্রী মনির আহমেদ


আরো পড়ুন
  • শীর্ষ খবর
  • সর্বশেষ খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Design and Developed by

© ২০০০-২০১৭ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত