অনলাইন ডেস্ক    |    
প্রকাশ : ১৯ জুলাই, ২০১৭ ১১:২০:৫২ প্রিন্ট
সোশ্যাল মিডিয়ায় উদ্বিগ্ন তরুণ-তরুণী

ফেসবুক-টুইটারের মতো সোশ্যাল মিডিয়া বা সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম তরুণ-তরুণীদের আরো উদ্বিগ্ন করে তুলছে। অনলাইন নির্ভরতা তাদের আরো অসম্পূর্ণ ও ভীত করে তুলতে পারে বলে এক গবেষণায় বেরিয়ে এসেছে।

ঘৃণা ছড়ানোর জন্য সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত সোশ্যাল মিডিয়া হচ্ছে ইনস্টাগ্রাম। সোশ্যাল মিডিয়ার কারণে শিশুরা 'বৈরিতার সংস্কৃতির' মধ্যে বেড়ে উঠছে বলে গবেষণায় জানা গেছে। খবর বিবিসির।

ডিচ দ্য লেবেল নামের একটি অ্যান্টি-বুলিয়িং বা পীড়ন-বিরোধী দাতব্য সংস্থা এই গবেষণাটি চালিয়েছে।

এই গবেষণা জরিপে অংশ নেয়াদের মধ্যে ৪০%-ই বলছে, কেউ যদি তাদের সেলফিতে লাইক না দেয়, তাহলে তারা খারাপ বোধ করে। আর ৩৫% বলছে তাদের কী পরিমাণ ফলোয়ার বা অনুসারী তার ওপর সরাসরি নির্ভর করে তাদের আত্মপ্রত্যয়ের ব্যাপারটি।

প্রতি তিনজনে একজন বলছে তারা সারাক্ষণই সাইবার-বুলিয়িংয়ের বা পীড়নের আতঙ্কে থাকে।

দশ হাজার তরুণ-তরুণীর ওপর এই জরিপটি চালানো হয়। এদের বয়স ছিল ১২ থেকে ২০ এর মধ্যে।

এই জরিপে জানা গেছে, সাইবার-বুলিয়িং ব্যাপক বিস্তৃতি লাভ করেছে। ৭০% অংশগ্রহণকারী স্বীকার করেছে যে তারা অনলাইনে অন্যের ওপর পীড়নমূলক আচরণ করে।

১৭% দাবি করেছে তারা অনলাইনে পীড়নের স্বীকার হয়েছে।

অর্ধেকই বলেছে যে তারা অনলাইনে তাদের সঙ্গে ঘটে যাওয়া খারাপ আচরণগুলো নিয়ে আলোচনা করতে চায় না।

একজন বিশেষজ্ঞ বলছেন, সোশ্যাল মিডিয়ার কারণে শিশুরা 'বৈরিতার সংস্কৃতির' মধ্যে বেড়ে উঠছে।


আরো পড়ুন
  • শীর্ষ খবর
  • সর্বশেষ খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Design and Developed by

© ২০০০-২০১৭ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত