প্রকাশ : ২৬ ডিসেম্বর, ২০১৭ ০০:০০:০০ প্রিন্ট
চোখ ধাঁধানো চলের বাহার
পরামর্শ দিয়েছেন আকাঙ্খা’স গ্ল্যামার ওয়ার্ল্ডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক অ্যারোমা থেরাপিস্ট জুলিয়া আজাদ

চুল নিয়ে সমস্যার অন্ত নেই। কারও চুল ঝরে যাচ্ছে। কারও ভেঙে পড়ছে। কারও কারও তো চুল পড়ে পড়ে মাথা ফাঁকা হয়ে যাচ্ছে। এ চুল নিয়ে হাজারও সমস্যার কারণ আমাদের সঠিক যত্নের অভাব। কিছু ভুল পদ্ধতি কিছু ভুল কেমিক্যাল না বুঝে ব্যবহার করা। কারণ তো অনেক কিছুই থাকতে পারে কিন্তু সমাধানের পথও আপনাকে বের করে নিতে হবে। নয় তো আপনার চেহারার সব থেকে উপরে যার স্থান তা হল স্বাস্থ্য উজ্জ্বল চুল আপনার ধীরে ধীরে যখন নষ্ট হয়ে যায় তখন আপনার থেকে খারাপ কিন্তু কারও লাগে না। চুলের সমস্যা সমাধানের নানা বিষয়ে পরামর্শ দিচ্ছেন আকাঙ্খাস গ্ল্যামার ওয়ার্ল্ডের স্বত্বাধিকারী এ্যারোমা থেরাপিস্ট জুলিয়া আজাদ। আজকাল চুলের স্টাইল কিন্তু প্রতিনিয়ত পরিবর্তন হচ্ছে। চুলকে কখনও নানা ধরনের হেয়ার কাট করে নিজেকে সুন্দর করে তুলতে চাইছে সবাই। যেটা অবশ্যই প্রয়োজন কারণ আপনি প্রতি একমাস অন্তর আপনার চুলের স্টাইল করে কেটে দেখবেন আপনার চুলের অনেক সমস্যাই কম হচ্ছে। এর কারণ আপনার চুল বরাবর কাটার ফলে চুলে স্পিটেন থাকছে না। তাই সমস্যাও কমে যাচ্ছে। অনেকে ভয়ে চুল কাটেন না মনে করেন চুল কাটলেই চুল ছোট হয়ে যাবে। কিন্তু না চুল সব সময় ছোট করেই কাটতে হবে তেমনটা নয়। আপনার লেন্থ বড় রেখেও আপনি আপনার স্টাইল করতে পারেন। এ তো গেল চুল কেটে চুলে স্টাইলের কথা, এর সঙ্গে সঙ্গে কেউ কোঁকড়া চুল সোজা করতে চাইছেন, কেউ আবার সোজা চুলকেই কার্লিলুক দিতে চাইছেন। সেই সঙ্গে হেয়ার কালার ও স্টাইলের একটা অনুষঙ্গ, আজকাল যেন এছাড়া আপনার সৌন্দর্য যে পরিপূর্ণতা আসে না। কত ধরনের কালার যে আছে তার তো ইয়ত্তা নেই। সেই সঙ্গে আছে হাজারও কোম্পানি। আপনি কি ব্যবহার করবেন? কোন প্রোডাক্ট আপনার জন্য সঠিক হবে? সেটা কিন্তু আপনি একজন হেয়ার এক্সপাটের পরামর্শ ছাড়া কখনই করবেন না, কারণ এসব কেমিক্যাল আপনার চুলে নানা সমস্যা তৈরি করবে যা থেকে আপনি কখনও বের হতে পারবেন না। আর কখনই আনাড়ি হাতে এ ধরনের কেমিক্যাল ট্রিটমেন্টগুলো না নিলে আপনার চুলের সমস্যা হবে না। যখনই কোনো কেমিক্যাল ট্রিটমেন্ট নেবেন তার তিন দিনের ভেতর কেমিক্যাল ওয়াশ ট্রিটমেন্ট নিয়ে নেবেন। এটা একমাত্র এ্যারোমা থেরাপি ট্রিটমেন্টেই আছে। তাহলে স্টাইল যা-ই করুন আপনার চুলে সমস্যা হবে না। আর যদি দেখা যায় কেমিক্যাল ট্রিটমেন্ট না করেও চুল পড়ে যাচ্ছে তবে বুঝতে হবে আপনার যত্নের অভাব হয়েছে। সঠিক উপায়ে যত্ন নিলে আপনি নিজেও আপনার চুল পড়া কমানোর উপায় পেয়ে যাবেন। বাড়িতে যত্ন নিতে হলে আপনাকে সঠিক শ্যাম্পু সঠিক কন্ডিশনার নির্বাচন করতে হবে। আর তেলকে করতে হবে আপনার সঙ্গী। কারণ তেল আপনার চুলে যে পুষ্টি দিতে পারবে কোনো কন্ডিশনার সেটা করতে পারবে না। সবচেয়ে সহজলভ্য হল নারিকেল তেল যা আপনার হাতের কাছেই থাকে। হাল্কা গরম করে আস্তে আস্তে অয়েল ম্যাসাজ করুন সম্ভব হলে স্টিম নিন। এক ঘণ্টা রেখে শ্যাম্পু করে চাইলে কন্ডিশনার লাগিয়ে পাঁচ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। এটুকু যত্ন ধৈর্য ধরে করুন আপনার অনেক সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে। সেই সঙ্গে সম্ভব হলে মাসে একবার কোনো ভালো পার্লারে গিয়ে প্রফেশনাল হেয়ার ট্রিটমেন্ট নিন। তাহলেই চুল নিয়ে আপনার কোনো সমস্যা থাকবে না।


 


আরো পড়ুন
  • শীর্ষ খবর
  • সর্বশেষ খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Design and Developed by

© ২০০০-২০১৭ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত