যুগান্তর ডেস্ক    |    
প্রকাশ : ২৩ ডিসেম্বর, ২০১৭ ০০:০০:০০ প্রিন্ট
সিলেট ও কুষ্টিয়ায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ২
আহত ৮ পুলিশ

সিলেট ও কুষ্টিয়ায় পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে দু’জন নিহত হয়েছে। এ সময় আহত হয়েছে ৮ পুলিশ সদস্য। বৃহস্পতিবার রাত ও শুক্রবার ভোরে এ দুটি ঘটনা ঘটে। নিহতরা হল- সিলেটে হাবিবুর রহমান ওরফে হরু হুনা ও কুষ্টিয়ায় আনু আহমেদ ওরফে আলম। পুলিশের দাবি, তারা ডাকাত দলের সদস্য। যুগান্তর ব্যুরো ও প্রতিনিধির পাঠানো খবর-

সিলেট : পুলিশের দাবি, হাবিবুর একাধিক মামলার ওয়ারেন্টভুক্ত পলাতক আসামি ও কুখ্যাত ডাকাত। সে চরিপাড়া গ্রামের মৃত আবু সিদ্দেকের ছেলে। বৃহস্পতিবার রাত ৯টার দিকে তাকে গ্রেফতারে কানাইঘাট উপজেলায় অভিযান চালায় পুলিশ। এ সময় ডাকাত হাবিবুর, তার ভাই ফয়জুর রহমান, বিলাল আহমদ, চাচা জালাল উদ্দিন জয়াই ও তার ছেলে কামরুল ইসলাম এবং পরিবারের মহিলা সদস্যরা পুলিশের ওপর দেশীয় ধারালো অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়ে। এ সময় দু’পক্ষের গোলাগুলিতে নিহত হয় হাবিবুর রহমান। হামলায় আহত হয় সাব-ইন্সপেক্টর বশির আহমদ, এসআই আবু কাউসার, কনস্টেবল আবদুর রাজ্জাক ও কনস্টেবল পারভেজ আহমদ। এর মধ্যে গুলিবিদ্ধ এসআই বশিরের অবস্থা আশঙ্কাজনক। কানাইঘাট থানার ওসি আবদুল আহাদ জানান, নিহত হাবিবুরের লাশ ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

কুষ্টিয়া : শুক্রবার রাত ৪টার দিকে কুষ্টিয়া-রাজবাড়ী সড়কের সিটি কলেজের সামনে পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। এ সময় নিহত হয় আনু আহমেদ ওরফে আলম (৪০)। সে ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার যাত্রাপুর গ্রামের আবদুল লতিফের ছেলে। পুলিশের দাবি, আলম আন্তঃজেলা ডাকাত দলের সদস্য। কুষ্টিয়া ডিবি পুলিশের ওসি ছাব্বিরুল ইসলাম জানান, এ ঘটনায় পুলিশের চার সদস্য আহত হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে ১টি ওয়ান শুটারগান, ২টি পাইপগান, ১টি রামদা, ১টি ছুরি, ১টি চাইনিজ কুড়াল, ১ রাউন্ড শুটারগানের গুলি ও ২ রাউন্ড পাইপগানের গুলি ও বেশকিছু মোটা দড়ি উদ্ধার করা হয়েছে।


 


আরো পড়ুন
  • শীর্ষ খবর
  • সর্বশেষ খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Design and Developed by

© ২০০০-২০১৭ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত