যুগান্তর রিপোর্ট, নবাবগঞ্জ    |    
প্রকাশ : ২৩ ডিসেম্বর, ২০১৭ ০০:০০:০০ প্রিন্ট
নবাবগঞ্জে পুকুরে বিষ দিয়ে মাছ নিধনের অভিযোগ
ঢাকার নবাবগঞ্জ উপজেলায় ১৫ বিঘার একটি পুকুরে বিষ প্রয়োগ করে বিভিন্ন প্রজাতির প্রায় ৩ লাখ টাকার মাছ নিধন করেছে দুর্বৃত্তরা। উপজেলার বারুয়াখালী ইউনিয়নের মুন্সীনগর এলাকার মুন্সীনগর মৎস্য খামারে দুর্বৃত্তরা এ ঘটনা ঘটায় বলে অভিযোগ করেছেন খামার মালিক পুলিশের সাবেক উপ-পরিদর্শক মো. আবদুর রাজ্জাক।
তিনি আরও জানান, স্থানীয় বাসিন্দা বাবুল মিয়া, কুরমান মিয়া ও নান্নু মিয়াকে নিয়ে তিনি ৫ বছর ধরে পুকুরটিতে মাছ চাষ করছেন, যা মুন্সীনগর মৎস্য খামার প্রকল্প নামে সাধারণ মানুষের কাছে পরিচিত। গত বৈশাখ মাসে রুই, মৃগেল, কার্প, তেলাপিয়াসহ বিভিন্ন প্রজাতির ১ লাখ ২০ হাজার টাকার পোনা ছেড়েছি। ৫ বছরের অনেক পুরনো মাছও ছিল। এবার বর্ষা মৌসুমে জাল, বাঁশ, বেড়া, শ্রমিকসহ আরও প্রায় ৮০ হাজার টাকা খরচ হয়েছে। মাছের সঠিক পরিচর্যার জন্য উপজেলা মৎস্য অফিসের সহায়তাও নেয়া হয়েছিল। মাছ বিক্রি করার জন্য বৃহস্পতিবার সকাল থেকে পুকুরের কচুরিপানা পরিষ্কার করা হচ্ছিল। হঠাৎ দুপুর থেকে মাছ ভাসতে দেখি এবং বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে মাছ ভেসে উঠার সংখ্যাও বাড়তে থাকে। এসময় পুকুর থেকে দুটি বিষের বোতল উদ্ধার করা হয়। শুক্রবার সকাল পর্যন্ত পুকুরে সব মাছ মরে ভেসে উঠে। শত্রুতাবশত রাতের আঁধারে মাছের খামারে বিষ প্রয়োগ করা হয়েছে। বারুয়াখালী তদন্ত কেন্দ্রের উপ-পরিদর্শক অখিলরঞ্জন সরকার ঘটনা শুনেছেন জানিয়ে বলেন, এ বিষয়ে মৌখিক অভিযোগ পেয়েছি। লিখিত অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।
নবাবগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. তোফাজ্জল হোসেন বলেন, পুকুরে বিষ প্রয়োগ করে মাছ নিধনের বিষয়টি আমাকে কেউ জানায়নি বিষয়টি দুঃখজনক।



আরো পড়ুন
  • শীর্ষ খবর
  • সর্বশেষ খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Design and Developed by

© ২০০০-২০১৭ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত