যুগান্তর রিপোর্ট    |    
প্রকাশ : ২৪ ডিসেম্বর, ২০১৭ ০০:০০:০০ প্রিন্ট
মানুষ অত্যাচার থেকে মুক্তি চায়
নির্দলীয় সরকার ছাড়া নিরপেক্ষ নির্বাচন হবে না
খালেদা জিয়া
সব দলের অংশগ্রহণে একটি নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে আগামী সংসদ নির্বাচন চান খালেদা জিয়া। শনিবার রাতে গুলশান কার্যালয়ে বড়দিন উপলক্ষে খ্রিস্টান সম্প্রদায়ের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় অনুষ্ঠানে তিনি এ মন্তব্য করেন। বাংলাদেশ খ্রিস্টান অ্যাসোসিয়েশনের উদ্যোগে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এ সময় বড়দিনের কেক কাটেন বিএনপি চেয়ারপারসন। খ্রিস্টান সম্প্রদায়ের মানুষের সুখী ও সমৃদ্ধ জীবন কামনা করেন খালেদা জিয়া।
বিএনপি চেয়ারপারসন বলেন, ‘আমরা দেশে গণতন্ত্র চাই, বহুদলীয় গণতন্ত্র চাই। সবার অংশগ্রহণে যাতে দেশে একটা সুষ্ঠু-অবাধ নির্বাচন হয় সেটি আমরা চাই। সেই নির্বাচন হতে হবে নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে। তা না হলে কখনোই নিরপেক্ষ নির্বাচন হবে না। ২০১৮ সালে আওয়ামী লীগ সরকারের অন্যায়-অত্যাচার থেকে দেশের মানুষ মুক্তি চায়। বড়দিন ও নববর্ষে আমরা প্রত্যাশা করব আগামী বছরে গণতন্ত্র ফিরবে। শান্তি ফিরে আসবে।’
২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির ‘একদলীয়’ নির্বাচনের কথা তুলে ধরে বিএনপি চেয়ারপারসন বলেন, ওই নির্বাচনে কতজন লোক গিয়েছিলেন ভোট দিতে। যদি সত্যিকার নির্বাচনই হয় তাহলে কী করে ১৫৪ জন বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হলেন। এখন তারা চায় আবারও সেই রকম নির্বাচন করতে।
বিএনপিকে দুর্বল করার জন্য সরকারের দমন নীতির কঠোর সমালোচনা করেন খালেদা জিয়া। তিনি বলেন, মাদক ব্যবসা এটা সরকারি দলের লোকেরা করছে। এর মাধ্যমে দেশের মানুষকে বিশেষ করে যুব সমাজকে ধ্বংস করার কাজ করছে তারা। তারা ধরাও পড়ছে কিন্তু তাদের কোনো বিচার হচ্ছে না। দেশ আজকে অনাচারে ভরে গেছে। তিনি বলেন, ‘আমরা মনে করি, বাংলাদেশ অন্ধকার একটা সময় অতিক্রম করছে। এ থেকে মুক্তি পেতে হলে অবশ্যই সব ধর্মের ও সম্প্রদায়ের মানুষকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। দেশের জন্য এক হতে হবে।’
খ্রিস্টান অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি অ্যালবার্ট পি কস্টার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন- বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, আবদুল মঈন খান, সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, বিএনপির ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট জন গোমেজ, খ্রিস্টান অ্যাসোসিয়েশনের মহাসচিব সুব্রত উইলিয়াম রোজারিও প্রমুখ।
অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন- বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান, ভাইস চেয়ারম্যান ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু, খ্রিস্টান অ্যাসোসিয়েশনের সিনিয়র সহসভাপতি অধ্যাপক মার্সেল এম চিরান, কেন্দ্রীয় নেতা সঞ্চয় হাওলাদার, অনীল লিও কস্তা প্রমুখ।



আরো পড়ুন
  • শীর্ষ খবর
  • সর্বশেষ খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Design and Developed by

© ২০০০-২০১৭ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত