ওমর ফারুক রুবেল    |    
প্রকাশ : ২১ অক্টোবর, ২০১৭ ০০:০০:০০ প্রিন্ট
বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সাঁতার টুর্নামেন্ট আটকে রয়েছে
ফুটবল ও ভলিবলের পর এবার জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর নামে আন্তর্জাতিক সাঁতার প্রতিযোগিতার আয়োজন করতে যাচ্ছে বাংলাদেশ সুইমিং ফেডারেশন। দক্ষিণ এশিয়ার সাতটি দেশ এতে অংশ নেবে। তবে স্কোরবোর্ড আর ডাইভিং অকেজো থাকায় এবং বরাদ্দ হওয়া বাজেট পরিকল্পনা মন্ত্রণালয় থেকে ছাড় পাওয়ার পরও অর্থ হাতে না পাওয়ায় আটকে রয়েছে এ আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্ট। বিষয়টি জানিয়েছেন সুইমিং ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক এমবি সাইফ। তার কথায়, ‘অনেক প্রত্যাশা নিয়ে আমরা চেষ্টা করছি। এশিয়ান সুইমিং ফেডারেশনকেও জানানো হয়েছে। কিন্তু পরিকল্পনা মন্ত্রণালয় থেকে বরাদ্দকৃত অর্থ ছাড় পেলেও ফাইলটি কোথায় যে আটকে রয়েছে তা বলতে পারছি না।’
দীর্ঘদিন ধরে নষ্ট মিরপুর সুইমিং কমপ্লেক্সের স্কোরবোর্ড। ২০১০ ঢাকা সাউথ এশিয়ান (এসএ) গেমসে আনা হয়েছিল এটি। এরপর থেকেই তা বিকল হয়ে পড়ে রয়েছে। প্রতি বছর জাতীয় সাঁতারের আগে উদ্যোগ নেয়া হলেও সংস্কার করা হয় না স্কোরবোর্ডের। আর্থিক সংকটের কারণে এমনটা হচ্ছে বলে সূত্রে
জানা গেছে। নিজস্ব কমপ্লেক্সে
ডাইভিং থাকার পরও সংস্কারের অভাবে সেখানে ডাইভিং প্রতিযোগিতা করতে পারছে না ফেডারেশন। ফলে প্রতি বছরই জাতীয় প্রতিযোগিতার ডাইভিং ইভেন্ট অনুষ্ঠিত হয় নৌবাহিনীর সুইমিংপুলে।
দুটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ের সুরাহা করতে আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতার আয়োজন করতে চাইছে ফেডারেশন। আগামী বছরের মার্চ কিংবা এপ্রিল মাসে হতে পারে এ টুর্নামেন্ট। যেখানে অংশ নেবেন ভারত, পাকিস্তান, শ্রীলংকা, নেপাল, ভুটান, মালদ্বীপ ও স্বাগতিক বাংলাদেশের সাঁতারুরা। এর পরিপ্রেক্ষিতে ১০ কোটি টাকার বাজেট যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ে জমা দিয়েছেন ফেডারেশনের কর্মকর্তারা। পরিকল্পনা মন্ত্রণালয় থেকে সেই বরাদ্দ চাওয়া অর্থের ছাড়ও নাকি দেয়া হয়।
কিন্তু কোথায় এবং কি কারণে ওই ফাইল পড়ে রয়েছে তা জানেন না সাধারণ সম্পাদক।
সাইফের কথায়, ‘স্কোরবোর্ড ও ডাইভিংসহ অন্যান্য সংস্কারের জন্য ১০ কোটি টাকা বরাদ্দ চাওয়ার পরিপ্রেক্ষিতে ছাড় হয়েছে। এছাড়া টুর্নামেন্ট পুলে গড়ানোর জন্য আরও এক কোটি টাকার বাজেটও করেছি আমরা। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকেও বিষয়টি জানিয়েছি। এশিয়ান সুইমিং ফেডারেশনের কাছ থেকেও অনুমোদন নিয়েছি। বরাদ্দকৃত অর্থ পেলে আমরা এ বৃহৎ আসর আয়োজনের জন্য প্রস্তুতি নিতে পারব। বিদেশি সাঁতারু, জাজ, জুরিদের ঢাকায় আসা-যাওয়া এবং থাকা-খাওয়ার ব্যবস্থা আমাদেরই করতে হবে। তাই অর্থ ছাড়ের বিষয়টি খুবই জরুরি। আমরা চেষ্টা করছি যাতে সময়মতো এ আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতা আয়োজন করতে পারি।’



আরো পড়ুন
  • শীর্ষ খবর
  • সর্বশেষ খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Design and Developed by

© ২০০০-২০১৭ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত