প্রকাশ : ২১ অক্টোবর, ২০১৭ ০০:০০:০০ প্রিন্ট
জোকোভিচ উজ্জীবিত নাদাল-ফেদেরারে
ইনজুরি থেকে রজার ফেদেরার ও রাফায়েল নাদাল ফেরায় উজ্জীবিত নোভাক জোকোভিচ। ফিটনেস আর সেরা ফর্ম নিয়ে কোর্টে ফেরার দিকেই চোখ রাখছেন সার্বিয়ান টেনিস আইকন। কনুইয়ের ইনজুরির কারণে গত জুলাইয়ে
উইম্বলডন চ্যাম্পিয়নশিপ থেকে সাইডলাইনে জোকোভিচ। ২০১৬ ফরাসি ওপেন জয়ের পর মাত্র দুটি শিরোপা জিতেছেন সাবেক ওয়ার্ল্ড নাম্বার ওয়ান। গত মৌসুমের
দ্বিতীয়ার্ধ থেকে ক্রমশ ইনজুরি-বাধা তাকে কতটা ভুগিয়েছে সে কথাও তুলে ধরেছেন। লক্ষ্য এখন অস্ট্রেলিয়ান ওপেন দিয়ে ২০১৭ মৌসুুমে প্র্রতিযোগিতামূলক টেনিসে ফেরা। ঘুরে দাঁড়ানোর চ্যালেঞ্জ সামনে রেখে আন্দ্রে আগাসির পাশাপাশি আরেকজন কোচ খুঁজছেন জোকোভিচ। সার্বিয়ার দৈনিক ‘নোভোস্তি’কে দেয়া সাক্ষাৎকারে জোকোভিচ বলেন, ‘আমার টেনিসের পুরো জিনিস এবং আমার সঙ্গে যা ঘটেছে তা একটি শব্দের চেয়ে আরও কঠিন। কনুইয়ের ইনজুরি একটা বড় সমস্যা ছিল। অনুশীলন করতে পারতাম না যেমনটা আমি চাইতাম, পুরোদমে খেলতে পারতাম না, সার্ভিংসের গতির সঙ্গে মানিয়ে নিতে হয়েছিল। আমি বিরতি নিতে চাইনি, ভেবেছিলাম এটা ঠিক হয়ে যাবে... কিন্তু সমস্যাটা ক্রমে তীব্র হয়ে ওঠে।’ পুনর্বাসন প্রক্রিয়ায় সার্বিয়া ও মন্টে কার্লোতে শারীরিক ট্রেনিং করছেন ৩০ বছর বয়সী জোকোভিচ। ২০১৭ চলতি মৌসুমে ফেদেরার ও নাদালের সফল প্রত্যাবর্তন তাকে আত্মবিশ্বাস জুগিয়েছে, ‘ফেদেরার ও নাদাল অনন্য, টেনিস ইতিহাসের সেরা খেলোয়াড়দের মধ্যে পড়ে তারা। আমি আজ যে মাপের খেলোয়াড় এর পেছনে তাদের প্রভাব রয়েছে। তাদের দৃষ্টান্ত প্রদর্শন করছে যে, যদি আপনি একটা ব্রেক নেন এবং একটা মৌসুমে আপনার খেলা সেরা পর্যায়ে না থাকলেও আপনি শীর্ষে ফিরে আসতে পারবেন।’ এবার বছরের চারটি গ্র্যান্ডস্লামই নাদাল-ফেদেরারের দখলে। অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের পর উইম্বলডন শিরোপা জিতে নেন ৩৬ বছর বয়সী ফেদেরার। মাঝে ফরাসি ওপেনে বিশ্রাম নিয়েছিলেন সুইস কিংবদন্তি। ফরাসি ওপেন দিয়ে একটি সিঙ্গেল গ্র্যান্ডস্লাম টুর্নামেন্টে রেকর্ড ১০টি ট্রফি জয়ের ইতিহাস গড়েন নাদাল। সবশেষ ইউএস ওপেন নিজের করে নেন। দীর্ঘ সময় পর র‌্যাংকিংয়ের নাম্বার ওয়ান পজিশন পুনরুদ্ধার করেছেন স্প্যানিশ সুপারস্টার। দ্বিতীয় স্থানে ফেদেরার। তিনে মারে। জোকোভিচের অবস্থান সপ্তম। ওয়েবসাইট।



আরো পড়ুন
  • শীর্ষ খবর
  • সর্বশেষ খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Design and Developed by

© ২০০০-২০১৭ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত